ক্যাটেগরিঃ প্রশাসনিক

বাংলাদেশস্থ ভারতীয় দূতাবাস থেকে বারবার বলা হচ্ছে- ভারতের ভিসার ই-টোকেন পূরণ ও ভিসা সংক্রান্ত কোন কাজে দালালের কাছে না যাওয়ার জন্য। পাশাপাশি ভিসা প্রার্থীদের উপদেশ দেওয়া হচ্ছে- এসব দালালদের সাথে কোন প্রকারের টাকা লেনদেনে জড়িত না হতে। এমনকি বলা হয়েছে- এই সংক্রান্ত তথ্য কারো জানা থাকলে তা পুলিশে জানিয়ে দিতে।

আইনত দূতাবাসের এই আহ্বান সঠিক ও ন্যায্য। এসব দালালদের পুলিশেই ধরিয়ে দেওয়া উচিত বলে আমিও মনে করি। কারণ তারা অনেক অঘটনের নায়ক। কিন্তু মানুষ বা একজন ভিসাপ্রার্থী তখনই দালালের কাছে যায় যখন সে সহজ পথে নিজের কাজটা করতে পারে না বা জটিলতার সম্মুখীন হয়। আর এমন নয় যে দালালরা ফ্রি সার্ভিস দেয়? একজন মানুষকে গাঁটের টাকা খরচ করেই এদের কাছ থেকে সার্ভিসটা কিনতে হয়। তাহলে বাংলাদেশের মানুষ কেন তাদের কাছে যায়? আসুন এটা নিয়ে আমরা কিছু তথ্য প্রমাণসহ আলোচনা করি-

সত্যি বলতে কি, আমি গত ২০-২৫ দিন ধরে ভারতের ভিসার জন্য চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছি। এর জন্য প্রয়োজনীয় কাগজ রেডি করে ই-টোকেন পূরণ করতে যেয়ে পড়লাম ফ্যাসাদে। নিজহাতে ফর্ম পূরণ করে কিছুতেই Appointment Date পেলাম না। পর পর কয়েকদিন ব্যর্থ হয়ে রাস্তার মোরে সাইন বোর্ড দেখে গেলাম একটা কম্পিউটার সেন্টারে; সেখানে একটা ছেলের সাথে চুক্তি হলো- সে আমাকে ডেট পাইয়ে দিবে শর্তে। আইনত এটা অপরাধ; আমি তা স্বীকার করছি কিন্তু আমি অপারগ কারণ নিজে ব্যর্থ হয়েছি আর তাদের মাধ্যমেই কিছু কিছু ভিসা প্রার্থীকে তাদের সেই কাঙ্ক্ষিত Appointment Date টা পেতে দেখছি চোখের সামনে, দেখলাম দরদামও।

আমার একটা বিশেষ স্বভাব আছে; সেটা হল- আমি খুব দ্রুত মানুষের সাথে মিশে যেতে পারি, তারা সমাজের যেকোন স্তরেরই হোক না কেন? আর মানুষও আমাকে খুব দ্রুত বিশ্বাস করে। এতে ভাল মন্দ দুই ফলই পাওয়া যায়। সেই কম্পিউটার সেন্টার থেকেই আমি এই সংক্রান্ত তথ্য সংগ্রহ শুরু করলাম, তারপর আমার সর্বদা উৎসুক মন আরও অনেক তথ্য খুঁজে পেলো ভিন্ন ভিন্ন উৎস থেকে যার পুরোটা এখনো প্রকাশ করিনি। যাকগে সেসব কথা- এখানে বলে রাখি আমার সেই ছেলেটাও কিন্তু ডেট পায়নি এখনো! আজ প্রায় ১৫ দিনে যাচ্ছে।

দূতাবাসের উপদেশ ও আমার আগের পোষ্টে করা আমাদের প্রিয় ব্লগার এলডোরাডো ভাইয়ের মন্তব্য/উপদেশ মোতাবেক গত ২২ ডিসেম্বর রাতে ল্যাপটপ পাশে নিয়ে শুলাম আর একটু পর পর চেষ্টা চালালাম নতুন পূরণ করা ই-টোকেনে Appointment Date ফেলাতে। বহুবার চেষ্টা করেও ফেল মারলাম। ভোরের দিকে আবার সার্ভারও ফেল দেখলাম।

আজ, ২৩ ডিসেম্বর ২০১৪ সালের রাত ৯ টায় শুরু করলাম আবার, দেখা যাক কি হয়-

এখন থেকে আর কথা হবে না; হবে স্ক্রিনশট; বন্ধুরা গ্যালারিতে বসুন Indian Visa Application Center এর ভেল্কি দেখতে আর বুঝতে থাকুন মানুষ কেন দালালের কাছে যায়? আমি আজ সারারাত অনলাইনে থাকবো আর আপডেট দেবো। ওকে?

রাত ৯.৫৩ মিনিটে বলছে, “No Appointment Dates are available”  নিচে স্ক্রীনশট >>>

রাত ৯.৫৩ মিনিটে বলছে, “No Appointment Dates are available”

রাত ৯.৫৩ মিনিটে বলছে, “No Appointment Dates are available”

রাত ১১.৩৪ মিনিটে বলছে, “No Appointment Dates are available”

রাত ১১.৩৪ মিনিটে বলছে, “No Appointment Dates are available”

রাত ১১.৩৪ মিনিটে বলছে, “No Appointment Dates are available”। নিচে স্ক্রীনশট >>>

রাত ১২.০০ মিনিটে বলছে, “No Appointment Dates are available” তারিখঃ ২৪/১২/২০১৪ ( এর মাঝে আরও ৫ বার একই রেজাল্ট পেয়েছি) >>>

রাত ১২.০০ মিনিটে বলছে, “No Appointment Dates are available” তারিখঃ ২৪/১২/২০১৪

রাত ১২.০০ মিনিটে বলছে, “No Appointment Dates are available” তারিখঃ ২৪/১২/২০১৪

এই সময়ের মধ্যে কমপক্ষে ১৫ বার ফেল করার পর নতুন ঝামেলায় পড়লাম- এখন Get Appointment Date অপশন টাই আসছে না রাত ১২। ৪৫ মিনিট! নিচে প্রমাণ >>>

চরম খারাপ অবস্থায় আছি! উত্তর কোরিয়ার কিম হইয়া যাইতে মন চাইতেছে !!! রাতঃ ১.০০ টা !!! Get Appointment Date অপশন বন্ধ !!! ভাবতেছি আগামীকাল থেকে দালালদের আর দালাল নামে না ডেকে উপকারী বন্ধু ডাক্মু, তাতে যা হওয়ার তা হবে! লগে ঠাস কইরা একখান স্যালুটও দিমু! এই মুশকিল ক্যামনে তারা আসান করে?

ভাইরে কাল থেকে তোদের ৫০০ টাকা আরও বাড়াইয়া দিমু তাও এত হাঙ্গামা কইরা ডেট পাইতে মন চায় না! Get Appointment Date অপশন বন্ধ এখনো! রাতঃ ১.১৫

SONY বুঝতে পারতেছে মশকরার মজা কারে কয়? কিমের এক থাবড়ায় এমন ভয় পাইছে যে, আমেরিকাতে থেকেও সিনেমা হল থেকে স্যাটায়ার মুভি খান নামাইয়া ফালাইছে! ঠেলার নাম বাবাজী! প্রেসিডেন্ট ওবামা’র লম্ফঝম্ফতেও SONY’র ভয় ভাঙছে না; এমনি ভয় পাইছে সে! পুড়া সার্ভার আমেরিকা থেকে চোখের পলকে উত্তর কোরিয়ায় Transfer হইয়া গেছে!

আমাদের সাথেও মশকরা করা হইতেছে, বলা হইতেছে, Appointment Date ছাড়া ভিসার আবেদন গ্রহণ করা হবে না এবং সেটা অনলাইনেই পাওয়া যাবে। কিন্তু দিনে-রাতে সেটা কখনোই সেখানে পাওয়া যায় না। পাওয়া যায় দালালের দোকানে।
আবার বলা হয়, দালালের কাছে যাবেন না; কিন্তু ঠিক কখন Date পাওয়া যাবে সেটা দালালদেরই গোপনে জানিয়ে দেওয়া হয়, আর আমাদের মত আম পাবলিকদের রাত জাগায়!

এতে নাকি দুর্নীতি নাইক্যা- আবার জিগায়? রাত ১.৫৫ টা- ঘুম পাইতেছে !!!

রাত ২.১০; কোন আপডেট নাই ব্যর্থতা ছাড়া! একটা স্যাটায়ার লিখতে মন চাইতেছে ! কিন্তু ঘুমও পাইতেছে। কি করি? কাল আবার অফিস আছে যে !!!

Enough is Enough !!! Thanks to all of Indian High Commission in Bangladesh !!!

— ঘুমাই! ২.৩০ রাত! অফিস আছে !!!

আগের পোস্টঃ ভারতের ভিসার ডেট পেতে কত টাকা লাগে?