ক্যাটেগরিঃ ফটো

 

নাগাল্যান্ডের ডিমাপুরে এসেই এক নাগারে বাজার ঘুরছিলাম। ঘুরতে ঘুরতে আমরা এসে দাঁড়ালাম একটা দোকানের সামনে। একটু ভাল করে খেয়াল করে দেখি দোকানে টুকটাক বিস্কুট চিপস থাকলেও এটা মূলত পান দোকান।

একদম নিট এন্ড ক্লিন দোকানটায় পান বানানোর প্রসেসটাও চমৎকার। একজন পান বাছাই করে পরিষ্কার করে তাতে চুন খয়ের লাগিয়ে রাখছে, একটা ছেলে ক্রেতাদের কাছ থেকে তাদের চাহিদা মত ‘মসলা পানে’র ভিন্ন ভিন্ন দামে দামে অর্ডার ও টাকা নিচ্ছে আর মূল ব্যক্তি সেই অনুযায়ী পান বানিয়ে ক্রেতাকে দিচ্ছে।

আমি সবচেয়ে অবাক হলাম এটা দেখে যে, পুরো বাজারটা ময়লা আবর্জনায় আমাদের মতই ভরপুর হলেও; পান দোকানটা একদম পরিষ্কার। কোথাও ময়লার চিহ্নও নেই। পান বানাতে যেয়ে একফোঁটা চুন বা খয়ের এর রস দোকানের কোথাও পরার সাথে সাথে দোকানিদের যে কোন একজন চট করে তা মুছে নিচ্ছে।

দেখে ভাল লাগলো; আমি আর নিজাম ভাই অর্ডার দিয়ে পান কিনলাম। আমি নিলাম মিষ্টি আর নিজাম ভাই তার পছন্দমাফিক জর্দা দিয়ে। খেয়ে ভাল লাগলো; ছবিও তুললাম।

ওহ! আর একটা বিষয় বলতে ভুলে গেছি; এই দোকানে চারটা পান ছাড়া বিক্রি করে না অর্থাৎ একটা লাগলেও আপনাকে চারটা বানানো পান কিনতে হবে।

ঘটনা – জানুয়ারি ২০১৩ সালের। আপডেট: ১৭/০১/২০১৫

slide