ক্যাটেগরিঃ দিনলিপি

ফোনে বউ জিগাইলো, তুমি কোথায়?
আমি বললাম, রাস্তায়!
ধুর! মিথ্যা কথা বলো না! সত্যি করে বলো, তুমি কোথায়?
আমি বললাম, সত্য কথাই তো বললাম! সেটা তো তুমি বিশ্বাস করলে না? যদি মিথ্যা করে বলতাম, আমি দার্জিলিং-এ; তাহলে তুমি ঠিকই বিশ্বাস করতে।
ও বলল, তা হোক! মাঝেমাঝে মিথ্যা শুনতেও ভাললাগে! – বলেই দীর্ঘশ্বাসের সাথে ফোনটা কেটে দিলো বউ!
— মিথ্যাতে যদি হয় ভাল কিছু; তাহলে মিথ্যাও ভালো! মাঝেমাঝে!

০৭/০৩/২০১৫ সন্ধ্যা ৬.২৫

ফোনে বউ জিগাইলো, শাড়ী এনেছো?
আমি বললাম, না!
মিথ্যা বলো না? সত্যি করে বলো, এনেছো কিনা? কি রঙের এনেছো? দাম কত?
বললাম, রঙ যেমন তুমি বলেছিলে- হলুদ জমিনের সাথে লাল পাড়, সোনালী জড়ির সাথে সবুজের কাজ! একেবারে খাপে খাপে মিলে গেছে, তয় দাম দশ হাজার।
মিথ্যা কথা, তুমি আনবে দশ হাজার দিয়ে! আচ্ছা, দেখতে কেমন?
বললাম, তোমাকে মানাবে দারুণ; তয় টাকা দশ হাজার!
মিথ্যা কথা! বলেই খুশীতে ফোন কেটে দিলো, বউ!
— মিথ্যাতে যদি হয় বউ খুশি; তবে তা বলা ভাল! মাঝেমধ্যে!

০৮/০৩/২০১৫ দুপুরঃ ১.১২

বউকে জিগাইলাম, আচ্ছা! তুমি যে আমার ব্লগের-ফেসবুকের লেখাগুলো পড়; তোমার রাগ হয় না?
উত্তরে ও বলল, রাগ হবে কেন? তুমি তো সব বানিয়ে বানিয়ে লেখো! একটাও সত্যি না! তাই রাগ করি না! বরঞ্চ পড়তে ভাললাগে! তবে বাজে কিছু লিখো না! তোমাদের যা অবস্থা? ব্লগ ছাড়াই ভাল!
আমি বললাম, কেন? আমি তো আর ওদের বলা ক্যাটাগরিতে পড়ি না; প্রতিদিন পূজা অর্চনা করি, মাঝে মধ্যে মন্দিরেও যাই! সমস্যা কি? তুমি তো সব জান?
না! তাও ভয় করে; ছেড়ে দাও এসব! – বলেই দীর্ঘশ্বাস ছাড়লো বউ!
— ব্লগ নিয়ে আর মিথ্যা বলা যাচ্ছে না! কি যে করি?

০৮/০৩/২০১৫ দুপুরঃ ১.২৫

অফটপিকঃ নারী দিবসে সব নারীর ‘মনখুশী’ হোক!

০৮/০৩/২০১৫ দুপুরঃ ১.৪৪