ক্যাটেগরিঃ প্রশাসনিক

ভ্রমর যেমন মধুর লোভে সদ্য ফোঁটা ফুল খোঁজে! কার আগে কে খাবে পাল্লা দেয়! লাল্টু পুরুষেরা এ লাইট, ও লাইট আর রেড লাইট ঘুরে ফিরে এসে- শেষে বধূ বানানোর জন্য ভার্জিন মেয়ে খোঁজে! বাসর রাতে সে রক্তমাখা লাল বেডশিট দেখতে পাবে কিনা; তা নিয়ে টেনশনে ভোগে। তেমনি আমাদের ঢাকা শহরটার উন্নয়নে দায়িত্বপ্রাপ্ত ইঞ্জিনিয়ার, আমলা, নেতা-খ্যাতা আর কনট্রাক্টর’রা খোঁড়াখুঁড়ি করার জন্যও ভার্জিন রাস্তা খোঁজে! বর্ষাকালে ভার্জিনগুলোকে খুঁড়তে পারলে যেন তারা ‘যৌন সুখ’ পায়? তাদের ভাবখানা এমন, যত ভার্জিন তত মজা? রাস্তা হইছে তো কি হইছে? খোঁড়াখুঁড়ি তো আছে!
Rasta
গতকাল ঘুরতে ঘুরতে দেখলাম কারওয়ান বাজারের প্রজাপতি আণ্ডার পাস’টার পাশ দিয়ে খোঁড়াখুঁড়ি হচ্ছে। সচরাচর আমি যা করি, তাহলো নতুন কিছু একটা দেখলেই তাতে নিজের মনখানাকে ঢুকিয়ে দেই; ম্যাটারটা বুঝতে চেষ্টা করি। এক্ষেত্রে আমার সেই উৎসুক মনটা সারা দিলো না। অবশ্য সে সারা দিবেইবা কিভাবে? এই ঢাকায় খোঁড়াখুঁড়ি নামে ভার্জিনের রেপ দেখতে দেখতে তার ইমোশনটাই নষ্ট হয়ে গেছে।

এখন আমি যদি সত্যিই এই কর্মে নিয়োজিত শ্রমিকদের প্রশ্ন করতাম, তাহলে কি উত্তর পেতাম আসুন তার কিছু কাল্পনিক নমুনা দেই-

নমুনা- ১

ভাই রাস্তা খুঁড়ছেন কেন?
– পানির পাইপ বসাচ্ছি!
জলের পাইপ তো বসানোই আছে দেখতে পাচ্ছি; আবার খুঁড়ছেন কেন?
– না, আগের বার ৮ ইঞ্চি পাইপ বসানোর কথা ছিল কিন্তু ভুল করে বসানো হয়েছিল ৯ ইঞ্চি। তাই ওটা তুলে ৮ ইঞ্চি বসাচ্ছি। নতুন টেন্ডার হয়েছে, সামনেই জুন মাস তাই কাজের তাড়া আছে; আর কথা কইয়েন না! যান!

নমুনা- ২

ভাই কি করেন?
– ক্যান দেখছেন না রাস্তা খুঁড়ছি! আপনি কি কানা?
না ভাই আমি কানা না। এই গত সপ্তাহেই তো রাস্তাটা এক বছর ফেলে রেখে কার্পেটিং করা হলো। চকচকে নতুন রাস্তাটা আবার খুঁড়ছেন তো তাই জিজ্ঞাসা করলাম? ভাই এখানে কি হবে?
– কি হবে মানে? আপনি কি জানেন আগের কন্ডাক্টর সুয়ারেজের লাইনের সাথে পানির পাইপ লাগিয়ে দিয়ে গেছে? এ এলাকার যত মানুষ আছে সবাই গু’র পানি খাচ্ছে! আপনারা এখনো টের পান নাই কিন্তু আমাদের স্যারেরা পাইছেন, তাই নতুন টেণ্ডার হয়েছে- দ্রুত কাজ শেষ করতে হবে, যান ভাই প্যাঁচাল পাইরেন না!

নমুনা- ৩

ভাই রাস্তা খোঁড়েন ক্যান?
– টেলিফোনের লাইন বাসাবো!
এই তো গত মাসেই না খুঁড়ে হলুদ, সবুজ পাইপগুলো বসালেন? ওগুলো কি ছিল?
– ওগুলো অন্য টেণ্ডার ছিল! আমরা নতুন টেণ্ডার পেয়েছি! একমাসে কাজ শেষ করতে হবে! জ্বালায়েন তো ভাই? বহুত কাম আছে!
আচ্ছা ভাই একটা প্রশ্ন, এই যে আপনারা ভাল রাস্তাগুলো খুঁড়ছেন এটা বোজাবেন কি আপনারাই?
– না ভাই এটার জন্য অন্য টেণ্ডার হবে; এটা যে পাবে সে করবে! যান তো!

এবার লাইনে আসি-

যদিও অনেকদিন ধরেই দেখছি, তারপরেও গত কয় মাস ধরে খেয়াল করছি, ঢাকার সবচেয়ে ভাল রাস্তাগুলো কিছুদিন পর পরই খোঁড়া হচ্ছে। সদ্য কার্পেটিং করা রাস্তাগুলোও এথেকে বাদ যাচ্ছে না! এর কারণ কি? কাজ করার নামে সরকারী বাজেটের টাকা লুটপাট?

ভাই! লুটপাটই যখন করবেন, তখন রাস্তা খুঁড়ে আমাদের ভোগান্তির মধ্যে ফেলছেন কেন? কাজ না করেও তো বিল তোলা যায়? তাই বলছি কি- সবই যখন করছেন, তাই এই কাজ অফিসে বসেই করেন না? শুধু শুধু আমাদের ভার্জিন রাস্তাগুলো খুঁড়েছেন কেন?

– মিলেঝিলে খান না? না করছে কে? আমাদের মাপ করেন!

০৫/০৪/২০১৫