ক্যাটেগরিঃ অর্থনীতি-বাণিজ্য

 

এই প্রথম সাংবাদিকদের দেওয়া কোন প্রস্তাব আমার পছন্দ হলো। আমি আশা করবো এনবিআর প্রস্তাবটা গ্রহণ করে তা বাস্তবায়ন করবে! খবরে পড়লাম-

করের আওতা বাড়িয়ে রাজস্ব আয় বাড়াতে জাতীয় রাজস্ব বোর্ডকে (এনবিআর) পরামর্শ দিয়েছে ইকোনোমিক রিপোর্টার্স ফোরাম (ইআরএফ)। এজন্য বড় ও নামকরা ক্লাবের সদস্য, সব ব্যক্তিগত গাড়ির মালিক, রাজধানীতে ১৫০০ বর্গফুটের বেশি আয়তনের বাসায় বসবাসকারী ও বাসায় এয়ার কন্ডিশনার ব্যবহারকারীদের করের আওতায় আনার পরামর্শ দিয়েছেন তারা। মঙ্গলবার এক প্রাকবাজেট আলোচনায় অর্থনীতিবিষয়ক সাংবাদিকদের এই সংগঠনের নেতারা প্রতিষ্ঠানের বেলায়ও একই পদক্ষেপ নিতে এনবিআরকে পরামর্শ দিয়েছেন।

করখাত থেকে দেশীয় আয় বাড়াতে এনবিআর এছাড়াও আরও যা যা করতে পারে, তাহলো-

১) ট্যাক্সের ফাইলে দেওয়া/দেখানো বাড়ি/ফ্ল্যাটের মাপগুলো “ভোটার আইডি কার্ডের” মত করে একযোগে মেপে ফেলা! তাহলে দেখা যাবে ৫০০ স্কয়ার ফিটের বাসা হয়ে যাচ্ছে ২,৫০০ স্কয়ার ফিট। দোতালা বাড়ী হয়ে যাচ্ছে ৭ তলা। একই নামে ১ টার জায়গায় ৭ টা বাড়ীর মালিকও পাওয়া যাবে তাতে।

২) ঢাকা ও বড় শহরে বসবাস করা ভাড়াটে মানুষের কাছ থেকে অনলাইনে/চিঠিতে বাড়ী ভাড়ার প্রকৃত চিত্রটা জানা হোক হোল্ডিং নম্বর ধরে। তাতে করে দেখা যাবে, আয়কর ফাইলে দেখানো মাসিক ৫,০০০ টাকার ভাড়াটা হয়ে যাচ্ছে ১৫,০০০ টাকা। বাড়ী ভাড়া থেকে ৫০,০০০ টাকার আয়ের স্থলে তা হয়ে যাচ্ছে ৫,০০,০০০ টাকা।

৩) একটা সময়ের স্ল্যাব ধরে, হোক সেটা ১৯৮০ বা ১৯৯০ সাল! ঢাকাসহ বড় শহরগুলোতে গৃহবধূ/মেয়েদের নামে যত বাড়ী, জমি ও ফ্ল্যাট কেনা হয়েছে তাদের গড়ে ধরা/ডাকা হোক! তাহলে দেখা যাবে এই মালিকদের ৯০ ভাগই আসলে পুরুষ; যিনি আসলে নিজের কালো ও চোরাই টাকা লুকাতে মেয়ের (স্ত্রী/কন্যা) নাম ধারণ করেছেন! ভূমি রেজেস্ট্রী অফিসে এদের নামের তালিকা পাওয়া যাবে! মেয়েদের প্রকৃত আয় না থাকলে তাদের নামে থাকা সব সম্পত্তি স্বামী/বাবা’র আয়কর ফাইলে মার্জ করে দেওয়া হোক এবং সেই অনুযায়ী আয়কর নির্ধারণ করা হোক!

8) পুড়নো ঢাকার ব্যবসায়ীদের ব্যবসা থেকে তাদের প্রকৃত আয়টা জানাতে বাধ্য করা হোক!

তাহলেই দেখা যাবে, বাংলাদেশের ‘কর রাজস্ব’ এক লাফে কয়েকগুণ বেড়ে গেছে!

ধন্যবাদ!

অফটপিকঃ ‘মেয়ে’ বলে নারী জাতির অবমাননা করা হয় নাই; বরঞ্চ মেয়েদের নামে চোরাই টাকা লুকিয়ে ‘নারী জাতি’কে কলঙ্কিত করা হয়েছে! চোরের গাট্টির রক্ষক বানানো হয়েছে তাদের!

০৭/০৫/২০১৫