ক্যাটেগরিঃ স্যাটায়ার

বন্ধুকে বলিলাম, দাঁতের মর্যাদা রাখো; যত্ন নাও!

উত্তরে সে বলিল, আমার দাঁতের যত্ন লাগে না! ইহা বাঘের দাঁত; কামড়াইয়া সব খাইয়া ফালামু!

বলিলাম, রাতে খাওয়ার পর দাঁত মাজিও, পাড়লে ইহা দুবেলা করিও! মাঝে মাঝে স্কেলিংও করাইয়ো! তাতে করে প্লাক জমবে না, পোকা ধরবে না, ব্যথা হবে না, অকালে পড়বেও না!

উত্তরে সে অবজ্ঞার ভংঙ্গিতে বলিল, তোর দরকার হলে তুই কর! আমার রয়েল বেঙ্গলের দাঁত!

বলিলাম বুঝবে- যখন দাঁতে পোকা ধরবে; ব্যথা হবে! আরও বুঝবে যখন ডাক্তার সাঁড়াশী দিয়ে টেনে টেনে দাঁতগুলো তুলবে! তোমার কুহানীর চোটে সেদিন ডাক্তার অবশ করার ঔষধ দিতেও ভুলে যাবে! দেখে নিও!

সে ভেটকি মেরে বলিল, তো?

বলিলাম- তখন বুঝবে দাঁত থাকলে কি হয় আর না থাকলে কি হয়! জানো তো বাঘের দাঁতে পোকা ধরলে সে মানুষ খেকো হয়; আর রাজেরা তাকে গুলি করে মারার অর্ডার দেয়! অফটার অল, তুমি হলে গিয়া বাঙ্গালীর পোলা- তুমি দাঁতের মর্যাদা আর কি বুঝবে?

তো তৈরী থাকো; ডাক্তারেরা সাঁড়াশি রেডী রেখেছে! টেনে টেনে তুলবে তোমার পোকায় খাওয়া দাঁতগুলো!

সেদিন সামনে >>>

০২/১১/১৫ রাতঃ ৮.০০