ক্যাটেগরিঃ প্রশাসনিক

আমি বিমানবন্দরে বসে বিমানবন্দর অথরিটি’র বিপক্ষে যায়- এমন লেখা লেখার সাহস পাই কী করে? যেখানে আমি জানি, আমি তো কোন নস্যি আমার চেয়ে বড় বড় চাইকে ওনারা চাইলেই পকেটে দুটো চকলেট ঢুকিয়ে দিয়ে লাল দালানে চালান করে দিতে পারেন!

হ্যাঁ! আমি সাহস পেয়েছি কারণ আমি জানি একজন মানুষ শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে আছেন যিনি আমার বিপদে সাহায্য করবেন, ডাকলে আসবেন। যদিও আমি তাকে চিনি না, তার নামও জানি না। শুধু জানি তিনি ফেসবুকে এয়ারপোর্ট ম্যাজিস্ট্রেট নামক একটা পেজের এডমিন। আর আমি সেই পেজ অনুসরণ করি। এটাই আমার পাওয়ার হিসেবে কাজ করেছে এতদিন।

All

শুধু আমি না, আমাদের কর্মজীবী ভাইবোনেরা যারা বিদেশে কর্মরত আছেন তাদের সবার সহায় হলেন এয়ারপোর্টের এই ম্যাজিস্ট্রেটগন।

Mr. Eusuf

এই অল্প কিছুদিন আগে আমি জানলাম তার নাম মোঃ ইউসুফ। কিন্তু তিনি যে ফেসবুকের বানসুরী মোঃ ইউসুফ সেটা জানতাম না। গত পরশু যখন তার স্বনামের পেজে জানতে পারলাম তিনি ক্যান্সারে আক্রান্ত এবং সেই খবরটাও দিয়েছেন মজা করে; তখনই আমর কাজে খটকা লাগলো। পরে অমি রহমান পিয়াল ভাইয়ের স্ট্যাটাস থেকে জানতে পারলাম তিনিই আমার সেই ভরসার মানুষটা যার উপরে সাহস রেখে আমি তথা হাজারো বাঙালি প্রতিদিন এয়ারপোর্ট দিয়ে চলাচল করি।

এই পোড়াদেশে যেখানে সার্স লাইট দিয়েও খুঁজে একজন সৎ ও পরোপকারী মানুষ পাওয়া যাবে না। সেখানে বিমানবন্দর নামক সোনার খনির উপর বসে তিনি সততার সহিত, সাহসের সহিত রাতদিন কাজ করে যাচ্ছেন। যার ভয়ে বিমানবন্দরের অপরাধীরাও আজ সেই এলাকা ছাড়া আর অল্পকিছু ছুপা চোর থাকলেও তারা তার ভয়ে সর্বদা তটস্থ থাকে।

এইরকম একজন মানুষ হটাৎ করেই একটা ভয়াবহ বিপদের সম্মুখীন হবেন, জীবন মৃত্যুর সামনে দাঁড়াবেন সেটা ভাবা যায় না।

হ্যাঁ! ওনার অসুখটা যেহেতু ধরা পড়েছে, তাই আর আগে পিছে কোন চিন্তা না করে ওনাকে আমাদের বাঁচিয়ে রাখার চেষ্টা করতে হবে। নজির আছে মানুষের আত্মবিশ্বাসের কারণে অনেক জটিল অসুখও ভাল হয়ে যায়? সেই আত্মবিশ্বাস ওনার আছে। কিন্তু সেটার উপর ভরসা না করে থেকে ওনাকে বাঁচানোর জন্য সর্বচ্চো চেস্ট করা উচিত এবং সেটা আমাদের নিজেদের স্বার্থেই।

হ্যাঁ! আমি স্বার্থপরের মত করে বলছি, আমাদের নিজেদের স্বার্থেই ওনার মত একজন সৎ, পরোপকারী, কাজপাগল মানুষকে বাঁচিয়ে রাখতে হবে।

মনে রাখতে হবে, একজন ম্যাজিস্ট্রেট ইউসুফ, এয়ারপোর্টের হাজারো নিরাপত্তা রক্ষীর সমান।

আসুন আমরা সবাই আরও একবার স্বার্থপর হই এবং নিজেদের স্বার্থেই ওনাকে দ্রুত ও সঠিক চিকিৎসা দিয়ে সুস্থ করে তুলি।

১৭/০৭/২০১৬