ক্যাটেগরিঃ ভ্রমণ

 

বলা হয় বাণিজ্যে লক্ষ্মীর বসতি! আগের যুগে ধর্মকে প্রমোট করতো ধর্মগুরুরা এখন করেন বড় বড় ব্যবসায়ী প্রতিষ্ঠানগুলো! এক্ষেত্রে স্থান, কাল, পাত্র নেই? যেখানে যেমন, সেখানে তেমন ভিত্তিতে পুঁজিবাদ তার বিজনেস প্রমোশন চালিয়ে যাচ্ছে! দুর্যোগ, যুদ্ধ, ধর্ম- সব জায়গা থেকেই পুঁজিবাদ তার লাভটা তুলে নিচ্ছে!

সিরিয়ার যুদ্ধক্ষেত্রে যেদিনগুলোতে আমেরিকা ও রাশিয়ার জোট যুদ্ধ করতে যায়, সেদিনের মিডিয়াগুলো খেয়াল করলেই দেখা যাবে- তারা সেই যুদ্ধকে ক্যাম্পেইন, এসল্ট ইত্যাদি শব্দ দিয়ে জনসাধারণের কাছে পেশ করছে। যাতে করে এটাকে একটা ভিডিও গেম হিসেবে মনে হয় তাদের কাছে!

সিরিয়ার যুদ্ধটা মূলত একটা বড় ধরনের মার্কেটিং প্রোমোশন ক্যাম্পেইন। এখানে এক একটা উন্নত দেশ তাদের নতুন নতুন অস্ত্র ব্যবহার করছে আর নতুন নতুন ক্রেতা তা কেনার জন্য ঝাঁপিয়ে পড়ছে। আমেরিকা, রাশিয়ার বাহাস আসলে ভাওতা! মূল হলো- যুদ্ধ মার্কেটিং করে অস্ত্র বিক্রি করা আর লাভটা ঘরে তোলা! ব্রিটিশরা এক সময় আমাদের ফ্রিতে চা খাইয়েছিল, এখন আমাদের তা তিনবেলা কিনে খেতে হয়! আগামীতে বাঁচার জন্য আমাদেরও ঘরে ঘরে একে-৪৭ রাখতে হবে হয়ত!

যাকগে, এসব লেখার জন্য আমি আজ ব্লগে বসিনি! বসেছি, মালয়েশিয়া শুরু হওয়া মেরী ক্রিসমাস উৎসবের কিছু ছবি শেয়ার করার জন্য!

এই ছবিটা পেট্রোনাস টাওয়ারের মূল ভবনের গ্রাউন্ড ফ্লোর থেকে তোলা।

merry-2

এই ভবনে ঢুকতেই মেরি ক্রিসমাসের এই ডিসপ্লেটা পাওয়া যাবে!

merry-1

এবার দেখা যাক- এই টাওয়ারের সামনের ক্রিসমাস ট্রি’টাকে!

merry-3

সবশেষে, আমি বলবো সবকিছুকে ছাপিয়েও আমার কাছে মালয়েশিয়ানদের অনেক বেশি রেশনাল ও নির্বিবাদী মনে হয়েছে। তারা জাতি, ধর্ম, বর্ণ নির্বিশেষ যার যার ধর্ম ও সংস্কৃতি পালন করছে, কেউ কারো বিষয়ে সামান্যতম বাঁধার সৃষ্টি করছে না!

সবাই মিলে পাশাপাশি বসবাস করছে! খাচ্ছে-দাচ্ছে, কাজ করছে আর আনন্দে থাকছে!

মেরি ক্রিসমাস সবাইকে!

০১/১২/২০১৬