ক্যাটেগরিঃ প্রযুক্তি কথা

 

 

বিজ্ঞানভিত্তিক প্রযুক্তির উন্নয়নের বদৌলতে ফেইসবুক সামাজিক যোগাযোগে যুগান্তকারী অবদান অফুরন্ত অভিনন্দন ও শুভেচ্ছা। বিজ্ঞানভিত্তিক প্রযুক্তির উন্নয়নের বদৌলতে সাড়ে সাতশত কোটি বিশ্ববাসী অধ্যুষিত পৃথিবী আজ ছোট হয়ে আসেছে। বরিশাল এ পৃথিবীর উল্লেখযোগ্য জনগোষ্ঠী “ফেসবুক” নামক সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম আজ বিশাল এক পরিবার। ক্রমাগত এ পরিবারের পরিসর বৃদ্ধি পেয়ে চলেছে। ইলেকট্রন, প্রোটন অথবা নিউট্রন সমতুল্য এ পরিবারের নগন্য এক সদস্য হিসেবে নিজেকে ধন্য মনে করছি। কারণ- এ  “ফেসবুক” পরিবারের সদস্য হওয়ার সুবাদে প্রায় তিন কুড়ি বছর বয়সে চার দশকের অধিককাল সময় যাবৎ যাদের অনেকের কাছ থেকে বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়েছিলাম তাদের অনেকেরই সন্ধান পেয়েছি এবং সরাসরি যোগাযোগ করতে পেরেছি। বিষয়টি নিঃসন্দেহে উপভোগ্য এবং অকৃত্রিম আনন্দের। বলেছেন জাসদ নেতা লোকমান আহমদ।

লোকমান আহমদ তার লিখনিতে উল্লেখ করেছেন, “ছোট বেলায় পড়েছিলাম– ‘গনি মিয়া একজন কৃষক। তার নিজের জমি নাই। অন্যের জমি চাষ করে’। একবিংশ শতাব্দির জ্ঞান বিজ্ঞান প্রযুক্তির উন্নয়নে দক্ষ কারিগর, প্রশিক্ষক, নেতা , নির্দেশক হিসেবে নিজ বা নিজেদের সন্তান, নাতি-নাতনী এগিয়ে চলেছে অপ্রতিরোধ্য গতিতে প্রযুক্তির সাফল্যে। বিজ্ঞানের অগ্রযাত্রার উর্বরতম এমনতর সময়ে “ফেসবুক” পরিবারের মাঠে আমি নিজেও ‘গনি মিয়া’র মতো এক কৃষক। এক্ষেত্রে চাষ করার মতো আমার নিজের কোন জমি নেই। ঘনিষ্ঠ স্বজনদের বদান্যতায় ইতিমধ্যে একাধিকবার চাষ উপযোগী জমির মালিকানা (গনি মিয়া যা পায়নি) পেলেও অযোগ্যতা আর অদক্ষতার কারণে মালিকানা ধরে রাখতে পারিনি। কেউ বা ছিনিয়ে নিয়েছে (সম্পর্কের কারণে) অথবা কারো কাছে আত্মসমর্পণ করেছে। আর এ কারণেই আজ আমি পরনির্ভরশীল ভূমিহীন দক্ষ (?) কৃষক। আমার স্বৈরতান্ত্রিক দানবীয় আচরণে (অনিচ্ছাকৃত) অতিষ্ঠ আমার চারজন সহযোগী ইতিমধ্যে আমার দক্ষতা বৃদ্ধির নানান প্রচেষ্ঠা চালিয়ে যাচ্ছে। তারা তাদের জমিতেই সময়ে অসময়ে চরম ক্লান্তি নিয়েও আমাকে প্রশিক্ষণ দেওয়ার চেষ্ঠা করছে। ২০১৫ সালের মধ্যেই আশা করি “ফেসবুক” পরিবারের সদস্য হিসেবে মোটামুটি দক্ষতা নিয়ে বিশ্বদরবারে সম্মুখিন হতে পারবো ”।

 প্রায় তিন কুড়ি বছর বয়সে চার দশকের অধিককাল সময় যাবৎ দু:খ ভারাক্রান্ত হৃদয়ে লোকমান আহমদ তাঁর ষ্ট্যটাসে বলেন, “ভাতিজা সংগ্রাম সিংহ দৈনিক যুগান্তরের সিলেট ব্যুরো, শরিফুল হক মন্জু বিয়ানীবাজার প্রতিনিধি দৈনিক যুগান্তর, সিলেট, সুমন দে ষ্টাফ রিপোর্টার দৈনিক যুগভেরী ইতিমধ্যে নাগালের বাইরে চলে গিছে। নিজ সন্তানরা বিরক্ত। আমার পিঠেপিঠি অনুজ জাসদ নেতা, গোয়াইটুলা জামে মসজিদের সম্মানিত মোতাওয়াল্লী সোলেমান আহমদ প্রতিনিয়ত উৎসাহ দিয়ে চলছে। সে ইতিমধ্যে ভকেশনাল দক্ষতা অর্জন করেছে বলে মনে হচ্ছে। তার তাগিদ ও তাড়নায় আমার আজকের এ ষ্ট্যাটাস। একটি স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনের কার্যক্রম করার কারণে আমার সহকারী ও কম্পিউটার অপারেটর সোহেল বেগ আমার নিত্য সঙ্গী। তার পালিয়ে যাওয়ার সুযোগ কম। এ মাঠে তাকে নিয়েই এখন আমার নিত্য কার্যক্রম।

(যারা অবশ্যই আমার সুপ্রিয় স্বজন) নিজেদের অকৃত্রিম ভাললাগা, বিশ্বাস, প্রত্যয়, প্রত্যাশা, অঙ্গিকার আর ভালোবাসার কথা ব্যক্ত করে নিজেদের মূল্যবান সময় আমার জন্য ব্যয় করেছেন। যার কারণেই আমি সকল সুপ্রিয় স্বজনের (১৬৭২জন) ছবিসহ নাম ও কথা সংগ্রহ করেছি। সংগৃহীত তথ্যমতে ৯৯.৯৫% জনকে আমি চিনতে পেরেছি। আমি আমার সুপ্রিয় স্বজনদের হৃদয়গ্রাহী ভালোবাসায় অভিভূত। সকলকে অনেক অনেক সাধুবাদ, কৃতজ্ঞতা, অভিবাদন ও ধন্যবাদ। দীর্ঘজীবি হোন সকলেই। আমি সকলের কাংঙ্খিত প্রত্যাশা পূরণে শেষ দিন পর্যন্ত যেন অটল থাকতে পারি— এ আমার প্রতিশ্রুতি নয় অঙ্গীকার।প্রযুক্তির উন্নয়নের বদৌলতে বিশ্বদরবারে বাংলাদেশ ও মাথা উচু করে দাড়ানোর প্রত্যয় ব্যক্ত করি, কারণ আগামী প্রজন্ম প্রযুক্তির উন্নয়নের ধারা  বিকশিত করবেই। ৭১ এর চেতনায় আগামী প্রজন্ম বলিষ্ট ভুমিকা রাখবে বলে আমার বিশ্বাস…

দেশ এগিয়ে চলেছে। প্রায় চার দশকের সৃষ্ট হওয়া জঞ্জাল পরিস্কার করার প্রচেষ্ঠা অব্যাহত। চূড়ান্ত বিজয় অর্জিত না হওয়া পর্যন্ত এগিয়ে চলার গতি যেন থাকে বহমান। বাঙ্গালী জাতির কপালে এঁকে দেয়া বা লেগে থাকা কলংক মোচনের আন্দোলন, সংগ্রাম, লড়াই, যুদ্ধ সহ সকল প্রচেষ্ঠা আপোষহীন অপ্রতিরোধ্য গতিতে এগিয়ে নিয়ে যেতে হবেই। খালেদা-তারেক-জামাত-জঙ্গিবাদ-সাম্প্রদায়িক অপশক্তি সহ সকল কালোশক্তিকে রাজনৈতিকভাবে নির্মূল করতেই হবে। একাত্তুরের ন্যায় মহান মুক্তিযুদ্ধের চেতনা আদর্শের বাস্তবায়নে সমগ্র জাতিকে লৌহ কঠিন ঐক্য গড়ে তুলতে হবে। লৌহমানবী, প্রধানমন্ত্রী, দেশরত্ন জননেত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে জাসদ সহ ১৪দল, মহাজোট সরকারের কর্মপ্রচেষ্ঠার পরিধিকে আরো বিস্তৃত করার প্রত্যয় নিয়ে মহাঐক্য গড়ে তুলতে সংশ্লিষ্ট সকলকে অগ্রণী ভূমিকা পালনে দায়িত্বশীল হতে হবে। বাঙ্গালী জাতির চুড়ান্ত বিজয় অনিবার্য। জাতির কাংঙ্খিত প্রত্যাশা-অসাম্প্রদায়িক, শোষনহীন সমাজতান্ত্রিক বাঙ্গালী জাতি রাষ্ট্রের বিজয় পতাকা উড়বেই।”

সুত্র- জাসদ কেন্দ্রীয় যুগ্ম সাধারাণ সম্পাদক লোকমান আগমদ।