ক্যাটেগরিঃ ধর্ম বিষয়ক

 

“ফেইসবুকে ইসলাম অবমাননার অভিযোগ তুলে ব্রাহ্মণবাড়িয়ার নাসিরনগরে অন্তত পাঁচটি মন্দির ভাঙা হয়েছে। ভাংচুর-লুটপাট হয়েছে হিন্দুদের শতাধিক ঘর। পুলিশ কর্মকর্তারা জানান, নাসিরনগর উপজেলার হরিপুর ইউনিয়নের হরিণবেড় গ্রামের জগন্নাথ দাসের ছেলে রসরাজ দাস শুক্রবার ফেইসবুকে ‘ইসলাম অবমাননা করে’ একটি পোস্ট দেন বলে স্থানীয়রা অভিযোগ করে। পরে রসরাজকে পুলিশ আটক করে এবং আদালতের মাধ্যমে তাকে কারাগারে পাঠানো হয়।রসরাজের শস্তির দাবিতে একদল মাদ্রাসা শিক্ষার্থী রোববার বিকালে ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রেসক্লাব চত্বরে বিক্ষোভ দেখায়। আর কয়েকশ লোক সরাইল-নাসিরনগর-লাখাই সড়ক অবরোধ করে টায়ার জ্বালিয়ে বিক্ষোভ শুরু করে। প্রত্যক্ষদর্শীদের বরাত দিয়ে ব্রাহ্মণবাড়িয়ার পুলিশ সুপার মো. মিজানুর রহমান বলেন, অবরোধ থেকে একদল লোক পরে দেশি অস্ত্রে সজ্জিত হয়ে নাসিরনগর সদরের দত্তবাড়ির মন্দির, নমসুদ্রপাড়া মন্দির, জগন্নাথ মন্দির, ঘোষপাড়া মন্দির, গৌরমন্দির গুঁড়িয়ে দেয়। হামলাকারীরা হিন্দুদের বাড়িঘরেও ভাংচুর ও লুটপাট চালায়। এ সময় কয়েকজন পূজারী আহত হন বলে এসপি জানান। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে প্রথমে এক প্লাটুন বিজিবি মোতায়েন করা হয়। পরে অন্যান্য বাহিনীও যোগ দেয়।