ক্যাটেগরিঃ রাজনীতি

একজন শিশুকে নিজের সন্তান দাবী করে দুইজন মায়ের রাজার দরবারে নালিশ দেওয়ার গল্পটা কে না জানে ? কিন্ত সেইটা ছিল শুধুই গল্প । বাস্তবেও যে এমন ঘটনা ঘটতে পারে, সে কথা কি কেউ কোনদিন কল্পনা করতে পেরেছে ? গল্পের সেই শিশুটি রাজার বিচক্ষনতায় শেষ পর‍্যন্ত তার আসল মাকে খুজে পেয়েছিল কিন্ত বাস্তবের ঘটনায় বিগত কুড়ি বছরেও কি আমরা এদেশের অতিমাত্রায় সহজ-সরল জনগন আমাদের আসল মাকে খুজে পেয়েছি ? মায়ের জাতি বলে সেই সময় আমরা তাদের যোগ্যতা নিয়েও কোন প্রশ্ন তুলিনি পাছে নিজ মায়ের অপমান হয় মনে করে । আমাদের সর্বসাধারনের একটা দৃঢ় বিশ্বাস ছিল‍‍ যে, আর‍ যা ই হোক মাতৃত্বের গুনের অধিকারিনীরা তাদের সন্তানদের প্রতি কোনরুপ দায়িত্বহীন আচরন করতে পারে না যা সর্বজন কর্তৃক বিদীত । কিন্ত আমাদের আশায় গুড়েবালি । রাষ্ট্রীয় ক্ষমতা এমনই এক জিনিস, যা একজন নারীর স্বত:সিদ্ধ নারীত্ববাদকেও আমূল বদলে দিতে পারে এক নিমিষেই । কেড়ে নিতে পারে নারী পরিচয়দানকারী সাধারন বিশেষনগুলিও ।

বড় আশা নিয়ে আমরা আপনাদের দুজনকেই পালাক্রমে দুই দুইবার করে প্রধানমন্ত্রী বানালাম কিন্ত বিনিময়ে আপনারা এদেশের জনগনের কতটুকু আশা-আকাংখা পূরন করতে পেরেছেন, একবারও কি ভেবে দেখেছেন ? আমরা জনগন কি আপনাদের প্রধানমন্ত্রী বানিয়ে ভূল করেছি ? আপনারা কি আসলে প্রধানমন্ত্রী হওয়ার যোগ্য নন ? আমরা এই সকল প্রশ্নের তো কোন উত্তর খুজে পাচ্ছি না । বর্তমানে দেশে এক শ্বাসরুদ্ধকর অবস্থা বিরাজ করছে । এই অবস্থা চলতে থাকলে আমরা সকল জনগন তো একদিন দম বন্ধ হয়ে মারা যাবো । তখন আপনারা কাদের জিম্মি করে রাজনীতি করবেন ? আপনাদের রাজনীতির উপকরন মনে করে হলেও আমাদের বাঁচিয়ে রাখুন । আমাদের জনগনের দু:খ-কষ্ট আপনারা কি একটুও অনুভব করতে পারছেন না ? কিন্ত কেন অনুভব করতে পারছেন না ? একটু মনে করে দেখুন তো, কাদের ভোটে নির্বাচিত হয়ে আপনারা প্রধানমন্ত্রী হন ? কাদের জোগানো অর্থে আপনারা হাইলি সিকোরেটেড ও বিলাসবহুল জীবন‍যাপন করেন ? সবচেয়ে দামী বাড়ী, সবচেয়ে দামী গাড়ী, সবচেয়ে ব্যবহুল অফিস , কত ডজন ডজন পাইক-পেয়াদাসহ কোন কিছুর কি কমতি আছে আপনাদের আরাম-আয়েশ ও ভোগ-বিলাসের জোগান দিতে জনগনের কষ্টার্জিত অর্থে ।‍ যে জনগনের কষ্টার্জিত অর্থে আপনাদের এতো সুযোগ-সুবিধা দেওয়া হয়, সেই জনগনের কথা কি করে আপনারা ভূলে যান প্রধানমন্ত্রী হওয়ার পরে ? নারী মানে আমরা জানি মমতাময়ী, নারী মানে আমরা জানি কষ্ট স্বীকারে সীমাহীন ধৈর‍্য্য,নারী মানে ত্যাগ স্বীকারে অপ্রতিদ্বন্ধী,নারী মানে যার ভালবাসা সমুদ্রের বিশালতাকেও হার মানায়, সেই নারীই কি করে ক্ষমতার মোহে এমন নিষ্ঠুর, হ্রদয়হীনা, বিবেকবর্জিত, পরশ্রীকাতর, এমনকি দূর্নীতির মতো এমন ঘৃন্য কাজকে প্রশ্রয় দিতে পারে, তা আমার কাছে একেবারেই অবিশ্বাস্য মনে হয় । কোমলমতি নারী ক্ষমতা পাওয়ার পরে কেমন জানি ভূতে আছড় করা ব্যক্তির মতো আচরন পরিবর্তন হয়ে‍ যায়‍, যা এক অদ্ভূত ব্যাপার বলেই আমার কাছে মনে হয় । ব্যতিক্রম হিসাবে না হয় একজন নারীর মধ্যে এরুপ পরিবর্তন মেনে নেওয়া‍ যায় কিন্ত দুইজনেই একই রকম আচরন করবে, তাও আবার প্রধানমন্ত্রী হলে যেরকম, আবার বিরোধীদলে গেলেও সেই একই রকম । কোথাও তাদের নারীত্বের উপস্থিতি নেই । নেই মা কূলেরও কোন লক্ষন । তাইতো আমি আজ দ্বিধাগ্রস্ত এইভেবে যে, গল্পের সেই শিশুটির মা দাবীকারীদের মধ্যে তো শিশুটির আসল মা ছিল, তাইতো ছেলেটি সেইদিন নির্ঘাত মৃত্যুর হাত থেকে বেঁচে গিয়েছিল কিন্ত আমাদের ১৬কোটি জনগনকেই যারা নিজের সন্তান বলে দাবী করেন,আমার প্রশ্ন, তাদের মধ্যে আমাদের আসল মা আছেন তো ? কে আমাদের আসল মা ? কবে জানতে পারব আমাদের আসল মায়ের পরিচয় ? আর যদি এদের মধ্যে আমাদের আসল মা না থেকে থাকে, তবে কি পরিনতি হবে আমাদের ১৬কোটি অবুঝ মানবসন্তাদের ?