ক্যাটেগরিঃ প্রযুক্তি কথা

মন মেজাজ ভালই ছিলো। নিজের সাইটগুলো বেশ দাঁড়িয়ে গেছে, নিত্যনতুন সুবিধা আমিও যোগ করি। প্রতিযোগিতার বাজারে টিকে থাকতে হলে আপডেটেড রাখতে হয় নিজের কালেকশন। কিন্তু গুগল এটা কী করলো এবার? খবর দেখলাম বিডিনিউজ২৪ এ। শিরোনাম “গুগল সার্চে গানের কথা”। মানে বোঝেননি ? দাঁড়ান, পুরো আর্টিকেলটাই তুলে দিচ্ছি,


সার্চ ইঞ্জিনের মাধ্যমে পুরো গানের কথা দেখানো শুরু করেছে ওয়েব জায়ান্ট গুগল। গুগল সার্চ ইঞ্জিনের নতুন এই ফিচারের ব্যবহার সহজ আর দ্রুত গতির হলেও এখন পরীক্ষামূলক পর্যায়ে আছে এটি।

সংবাদ মাধ্যম সিএনএন এক প্রতিবেদনে জানিয়েছে, গুগল-এর এই উদ্যোগে গানের কথা বা লিরিক্স খুঁজে পাওয়া অনেকটাই সহজ হয়ে যাবে সংগীত প্রেমীদের জন্য।

গানের লিরিক্সের প্রচলিত সাইটগুলো ধীর গতির, আর বিজ্ঞাপনে দৌরাত্বের কারণে সাইটগুলো প্রায়শই বিরক্তির কারণ হয়ে দাঁড়ায় ব্যবহারকারীর জন্য। এই প্রতিবন্ধকতা এড়িয়ে গানের কথা খুঁজে বের করা গুগলের এই নতুন ফিচার সহজ করে দেবে বলে মন্তব্য করেছে সিএনএন।

সিএনএনের ওই প্রতিবেদন অনুযায়ী, গুগল নতুন ফিচারটি পরীক্ষামূলকভাবে ডিসেম্বর মাসের তৃতীয় সপ্তাহ থেকে চালু করেছে। প্রাথমিকভাবে গুগল সার্চের এই সেবা কিছু জনপ্রিয় গানের জন্যই সীমাবদ্ধ রেখেছে কর্তৃপক্ষ। নতুন ফিচারে গানের কথার সঙ্গে থাকবে গুগল প্লের লিংক যেখান থেকে গ্রাহক সহজে গানটি ডাউনলোড করতে পারবেন।

গুগলের এই নতুন ফিচার গানের লিরিক্সভিত্তিক ওয়েবসাইটগুলোর উপর নেতিবাচক প্রভাব ফেলতে পারে বলে জানিয়েছে সিএনএন। এই বিষয়ে আনুষ্ঠানিক কোন প্রতিক্রিয়া জানায়নি সাইটগুলো।

বিশ্বাস না হলে খবরের লিঙ্ক টা দিয়ে দিলামঃ http://bangla.bdnews24.com/tech/article901356.bdnews

ঘটনা নিয়ে অবশ্য তারা কেউ মাথা না ঘামালেও আমাকে ঘামাতে হচ্ছে। যারা গান শুনেন, তারা প্রায় ই ঢুঁ মারেন বিভিন্ন লিরিক্সের ওয়েবসাইটে । মজার ব্যাপার, এরকম পপুলার কিছু সাইট বিশ্বের মোস্ট ভিজিটেড ওয়েবসাইটগুলোর মধ্যে পড়ে।

আমরা আগে কী করতাম, কোন লিরিক্স দরকার হলে গুগলে সার্চ করতাম। ঐ সাইট গুলোর ঠিকানা পাইতাম, ঢুকতাম। এভাবেই টিকে ছিলো ব্যাপক পরিসরে গড়ে উঠা সাইট গুলো। যেহেতু ভিজিটর ছিলো বহু, তাই সাইটগুলোতে নিয়মিত আপডেট পাওয়া যেত। আর লিরিক্সের কথা কী বলবো, কী যে নেই তাই বলা মুশকিল। কিন্তু গুগল এখন কী করলো ? সার্চ করে হোম পেইজেই দেখানো শুরু করবে লিরিক্স। নিচের ছবিটা দেখেন।

তাহলে আর পাবলিকের ওই সব সাইটগুলোতে যাবার দরকারই নাই। মার খাবে সাইটগুলো। অনেকগুলো বড় বড় ওয়েবসাইট ক’দিনের ব্যাবধানে জিরো ভ্যালুতে পরিনত হবে। চিন্তা করেন ঐ ওয়েবসাইট গুলোতে যারা কাজ করেন তাদের কথা!

গুগল পরিনত হচ্ছে একটা সর্বগ্রাসী ওয়েবসাইটে। এর আগেও কিছু লিখে সার্চ করলে সার্চ হোম পেইজে গুগল তাদের প্রডাক্ট, ইউটিউব এর ভিডিও’কে প্রাধান্য দেয়। এমন কি হাই ভিজিটেড নন প্রফিট ওয়েবসাইট উইকিপিডিয়াও রেহায় পায়নি। কোন বিখ্যাত লোকের নাম লিখে সার্চ করেন, গুগল ইউকিপিডিয়ার আর্টিকেলের একাংশ হোম পেইজের ডান পাশেই দেখানো শুরু করে। যে হারে গুগল সবকিছুই দেয়া শুরু করছে, এক সময় কি হবে তা নিয়ে একটা মজার গ্রাফিক জোক আছে, দেখেন-

মানুষ মরলে আমাদের কী? আমাদের দেশেও লিরিক্স নিয়ে কাজ করে এমন বহু ওয়েবসাইট আছে। বাংলা লিরিক্স, লিরিক্স ৭১ এর মত সাইটগুলো মানুষের ভালোবাসা নিয়ে চলে, কোনদিনই আমাকে বিজ্ঞাপন এর মত ব্যাপার নিয়ে বিরক্ত হতে হয়নি। এগুলো  খুব জলদি হয়তো মার খেয়ে যাবে। কারন জানেন তো, গুগল শুধু ইংরেজী নিয়ে কাজ করে না।

ফেইসবুকের সাথে পাল্লা দিয়ে টিকে থাকতে গুগল হয়তো নিজেদের মিউজিক ডাউনলোড সেকশনও বানিয়ে ফেলবে। যেখানে আর্টিস্ট মার খেলে খাক, তাদের ভিজিটর থাকা নিয়ে কথাই মেনে চলবে টেক জায়ান্ট(নাকি টেক এভিল) গুগল। গুগলের মুল নীতি ছিলো ’Don’t Be Evil’। এই মুলনীতির কারনেই একেবারে শুরুতে মাইক্রোসফট এর ব্যবসায়ী আগ্রাসনে পড়তে হয়নি গুগলকে। কিন্তু এখন মনে হয় বলতে হবে-