ক্যাটেগরিঃ ক্যাম্পাস

12038341_10153673032834644_7318819434509935173_n
মেডিকেলে ভর্তি পরীক্ষা নিয়ে বেশ কয়েকদিন ধরে আলোচনা সমালোচনার অন্ত নেই। এছাড়া আন্দোলনও চলছে বেশ কয়েকদিন যাবত। কিছুদিন আগে প্রশ্ন ফাঁসের চক্রটিও ধরা পড়েছে র‍্যাবের হাতে। এতে প্রমাণিত হয়েছে যে প্রশ্ন ফাঁস হয়েছে। আর ফাঁস করা প্রশ্ন দ্বারা পরীক্ষা দিয়ে এরা রুগী মারার ডাক্তার হবে। আমি মনে করি দীর্ঘদিন ধরেই প্রশ্ন ফাঁস করেই এদেশে ডাক্তার হচ্ছে। তা নাহলে জটিল রোগের চিকিৎসা বাংলাদেশে নাই কেন? রোগ নিয়ে চলে যেতে হয় বিদেশে। আমাদের দেশে চিকিৎসা ক্ষেত্রে ব্যবসা বেশ জমজমাট। কিন্তু সঠিক চিকিৎসা নেই। এটা আর বিস্তারিত বলার প্রয়োজন মনে করি না। এ ব্যপারটি কারও অজানা নয়।
যাই হোক, এখন আসল কথায় আসি। ভর্তি পরীক্ষা বাতিলের আন্দোলনে পুলিশের লাঠিপেটা ও অত্যাচার সীমা লঙ্গন করেছে। আজকের পত্রিকাতেও দৃষ্টিগোচর হলঃ আন্দোলনকারী ছাত্রের মাথায় রাইফেলের বাট দিয়ে আঘাত। অন্যায়ের বিরুদ্ধে মেধাবী ছাত্ররা আন্দোলন করছে। সেখানে পুলিশের অমানসিক নির্যাতন কারও কাম্য নয়। এ ক্ষেত্রে পুলিশের সঠিক আইনটি প্রয়োগ করলে আর সমালোচনায় পড়তে হয় না।
আমরা যারা লেখনির মাধ্যমে প্রতিবাদ করছি তারা চাই এ সমস্যার সঠিক সমাধান। দেশের সকল জনগণ চায় এর সমাধান। তবে রাজনৈতিক ফায়দা লুটার জন্য কেউ কেউ সমস্যাটির সমাধান নাও চাইতে পারে। আর এরা কখনও দেশের মঙ্গল চায় না।
পরিশেষে সরকারের কাছে আমার অনুরোধ হলঃ এই জটিল বিষয়টি আমলে এনে সঠিক সমাধান করা। ভর্তি পরীক্ষাটি বাতিল করে সঠিকভাবে পরীক্ষা গ্রহণ করে প্রকৃত মেধাবীদের বাছাই করা। তাহলেই জাতি সামনের দিকে এগিয়ে যাওয়ার প্রয়াস পাবে।