ফুটবল বিশ্বকাপ এবং আমার শৈশব

/

১৯৯৮ সালে কোয়ার্টার ফাইনালে হল্যান্ডের কাছে আর্জেন্টিনা হেরে যাওয়ার পর বাড়িতে এসে (মামাবাড়ি) দরজা আটকে কেঁদেছিলাম।  আমি আর্জেন্টিনার সাপোর্টার হই ১৯৯০ কি ১৯৯১ সাল থেকে। তখন খেলা বোঝার মতো আমার বয়স নয়।  তবে একটা বাক্য মনে গেঁথে গিয়েছিল। আমাদের বাড়ি একেবারে পাড়া গায়ে হলেও মাঝে মাঝে পত্রিকা আসত।  বাবা বাগেরহাট গিয়ে নিয়ে আসতেন। আমরা ছিলাম… Read more »

কেন মেসির বিশ্বকাপ পাওয়া জরুরি?

/

  আর্জেন্টাইন-স্পেনীয় নাগরিক হিসেবে ২০০৪ সালে মেসিকে স্পেনের জাতীয় অনূর্ধ্ব-২০ ফুটবল দলে খেলার জন্য আমন্ত্রন জানানো হয়। কিন্তু তিনি তা প্রত্যাখ্যান করেন। মেসি এটা জানেন একটা বিশ্বকাপ পাওয়া তার জন্য অনেক সহজ, যদি তিনি স্পেনের পক্ষে খেলেন। তার সময় স্পেন একটা বিশ্বকাপ পেয়েছে। যদি তিনি থাকেন তবে সংখ্যাটা একাধিক হবে কোন সন্দেহ নাই। এমন নয়… Read more »

মেসি কি পারবে?

/

ঠিক কবে থেকে আমি ব্রাজিলের সাপোর্টার! সেটা সঠিক করে বলতে পারবো না। তবে ধারণা করি-  ক্লাস টু বা থ্রী’তে আমাদের পাঠ্য বইয়ে ‘ফুটবলের কালোমানিক’ নামে ব্রাজিলের পেলে’র একটা গল্প ছিল, সেটা পড়েই আমার মাইন্ড “ব্রাজিল কন্ট্রোল্ড” হয়ে থাকতে পারে। বলতে গেলে বলতে হয়- হালের ‘ব্লু হোয়েলের’ মত করে, সেই আমলেই আমি ব্রাজিলের খপ্পরে পড়েছি। তবে… Read more »

তিনটি দেশের সীমান্ত যেখানে মিশে গেছে

/

পর্তুগিজে স্থানটির নাম ‘মার্কো দাস ত্রেস ফ্রন্টেইরাস’ (Marco das Três Fronteiras), বাংলায় যার অর্থ করলে দাঁড়ায় ‘তিন সীমান্তের চিহ্ন’। ব্রাজিলের দক্ষিণে ‘পারানা’ (‘টুপি-গুয়ারানি’ ভাষার এ শব্দের অর্থ ‘অফুরন্ত নদী’)  প্রদেশের এই স্থানে দাঁড়িয়ে একসাথে আর্জেন্টিনা ও প্যারাগুয়ের সীমান্ত দেখা যায়। ‘ইগুয়াসু’ ও ‘পারানা’ নদীর এই মিলনস্থলে ব্রাজিলের ‘ফয দো ইগুয়াসু’, আর্জেন্টিনার ‘পুয়ের্তো ইগুয়াসু’ ও প্যারাগুয়ের… Read more »

slide