না ফেরার দেশে চলে গেলেন মো. সিদ্দিকুর রহমান

/

আর দেখা যাবে না তাঁকে। গত ৮ মে শুক্রবার রাত ১১ টার দিকে ল্যাব এইড হাসপাতালে হার্টএট্যাক হয়ে মো. সিদ্দিকুর রহমান (দুলাভাই) এই জগত থেকে না ফেরার দেশে চলে গেছেন। ইন্নালিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন। তিনি গ্রামীণ ব্যাংকের সাবেক কর্মকর্তা ছিলেন। বর্তমানে তিনি বাংলামা গ্রুপে এ্যাকা্উন্ট ম্যানেজার হিসেবে কর্মরত ছিলেন। তিনি এক ছেলে (অষ্টম শ্রেণি)… Read more »

কিস্তি শোধে বসতঘর বিক্রি এবং গ্রামীণ ব্যাংকের নোবেল প্রাপ্তি

/

bdnews24.com এ প্রকাশিত খবরে জানা যায় মাদারীপুরে ঋণের কিস্তি পরিশোধ করতে না পারায় এক নারী দিনমজুরের বসতঘর বেচে দিয়েছে ক্ষুদ্র ঋণদাতা বেসরকারি সংস্থা আশা। ওই নারীর অভিযোগ, কিস্তি শোধ করতে না পারায় আশার স্থানীয় কর্মকর্তারা জোর করে তার ঘর বিক্রি করে দিয়েছেন।কালকিনি উপজেলার এনায়েতনগর এলাকার কাচারিকান্দি গ্রামের আলী খার স্ত্রী নাছিমা বেগম আশার সমিতিরহাট শাখা… Read more »

গরীবের রক্ত চোষা গরীবের জন্য ভালো*

/

১৯৭৬ সালে ইন্ডিয়ায় জবরদস্তি শ্রম নিষিদ্ধ করা হয়; কিন্তু নয়া দিল্লির বান্ধুয়া মুক্তি মোর্চা [লিংক] বলছে, ১৪ বছরের নিচে সাড়ে ছয় কোটি এবং ১৪ বছরের উপরে ৩০ কোটি আবালবৃদ্ধবনিতা ইন্ডিয়ায় জবরদস্তি শ্রমিক। বান্ধুয়া মুক্তি মোর্চা থেকে জাতিসংঘ পর্যন্ত বহু মানবাধিকার প্রতিষ্ঠান একে বলছে ‘কন্টেম্পরারি স্লেভারি’। সব ধরনের গবেষণায় এই ‘কন্টেম্পরারি স্লেভারি’র যে কারণটি কমন থাকছে… Read more »

প্রসঙ্গ ড. ইউনূস: মাইক্রো প্রতিক্রিয়া অফ এ পুউর ম্যাঙ্গো পিপল

/

[১] ড. ইউনূস বাংলাদেশ ব্যাংকের কথা শুনলেন না, তিনি শুনলেন পশ্চিমা শাসকদের কথা। অথচ ড. ইউনূস চাইলেই গ্রামীণ ব্যাংকের পদমর্যাদা ছেড়ে দিয়ে অনন্য দৃষ্টান্ত দেখাতে পারতেন- যে ধরনের দৃষ্টান্ত বাংলাদেশে বিরল কিন্তু ভারত থেকে শুরু করে পশ্চিমা দেশগুলোতে প্রায়শ দেখা যায়। [২] নির্দিষ্ট বয়সসীমা পার হয়ে যাওয়ার পরও পদমর্যাদা বহাল রাখার গ্রহণযোগ্যতা-অগ্রহণযোগ্যতার ডিসকোর্সের সাথে নোবেল… Read more »

শিক্ষাক্ষেএে গ্রামীণ ব্যাংকের শিক্ষাঋণের অবদান কতটুকু?

/

গ্রামীণ ব্যাংক আজ দেশে-বিদেশে আলোচিত এবং সাথে সাথে সমালোচিত। গ্রামীণ ব্যাংক নিয়ে আগ্রহ সারাবিশ্বে দিন দিন বেড়েই চলছে। বিভিন্ন দেশে গ্রামীণ ব্যাংকের শাখা খোলা হচ্ছে। গ্রামীণ ব্যাংকের ধারনা ব্যবহার করে অনেকেই উপকৃত হচ্ছেন। গ্রামীণ ব্যাংকের উচ্চসুদ নিয়ে দেশে অনেকেই কথা বলেন এবং ডঃ ইউনুস কে নিয়ে অনেক কিছুই ঘটে গেছে। তাই পুরাতন কাসুন্দি আর ঘাটতে… Read more »

গ্রামীণ ব্যাংক ও দুটি কথা

/

সাভারের গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রে তৃতীয়বারের মতো বার্ষিক সামাজিক ব্যবসা দিবসের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে মুহাম্মদ ইউনূস গত তিন দশক ধরে গড়ে তোলা নিজের প্রতিষ্ঠান গ্রামীণ ব্যাংকের ভবিষ্যৎ নিয়ে শঙ্কা প্রকাশ করেন। গ্রামীণ ব্যাংক বিষয়ে শঙ্কা প্রকাশ করে মুহাম্মদ ইউনূস বলেন, ‘গ্রামীণ ব্যাংকের মালিকানার বিষয়টি এখন অনিশ্চিত। বিষয়টিতে একা আমি উদ্বিগ্ন নই। এটার ভবিষ্যৎ নিয়ে এখন সবাই উদ্বিগ্ন।’ ক্ষুদ্রঋণ… Read more »

ব্যাংকার টু দি পুউর, ফাদার অফ মাইক্রো ক্রেডিটঃ মাইক্রো প্রতিক্রিয়া অফ দি পুউর ম্যাঙ্গো-জনগণ

/

ডঃ ইউনূসকে নিয়ে টুইটারের সাম্প্রতিক ’টপ টুইট’টি হলো, ‘ইউ আর ফায়ারড! নো! অ্যাম নট!’। দি ইকোনোমিস্ট ব্লগ পাতার এশিয়া ভিউতে ২রা মার্চে প্রকাশিত পোস্টের লিংকসহকারে এই শিরোনামের টুইটটি ইতোমধ্যে ১৭ জনেরও বেশি সংখ্যকবার টুইটার ব্যবহারকারীদের দ্বারা রি-টুইট করা হয়েছে। চমকপ্রদ বিষয় হলো, এই রি-টুইটকারীদের অন্তত ইউজার নাম দেখে অধিকাংশকেই বাংলাদেশি ঠাওরানো দুস্কর হয়ে পড়ছে। ইংরেজি… Read more »

মাননীয় প্রধানমন্ত্রী! বাংলাদেশের একমাত্র নোবেল বিজয়ী ড. মুহাম্মদ ইউনুসের সাথে চরম অসম্মানজনক আচরণ করে সারা বিশ্বের কাছে আপনি বাংলাদেশীদের লজ্জিত করেছেন।

/

মাননীয় প্রধানমন্ত্রী! আপনার সদয় অবগতির জন্য জানাচ্ছি যে, ২০০৬ সালের ১৩ অক্টোবর ড.ইউনুস নোবেল পুরষ্কার অর্জন করেন। নোবেল পুরষ্কার টাকা দিয়ে কেনা যায়না। বরং এর সাথে ড. ইউনুস ১০ মিলিয়ন সুইডিশ ক্রনর (১.৩৫ মিলিয়ন আমেরিকান) ডলার পান। সেই টাকাও তিনি নিজের বিলাসিতার জন্য ব্যয় করেন নাই। বরং গরিব মানুষের সাহায্যের জন্য ব্যয় করেছিলেন। আপনি সে… Read more »

ডঃ ইউনূসকে বিদায় করা মানে আওয়ামী সরকারের নিজের পায়ে নিজে কুড়াল মারা

/

কিছুদিন আগেই ঘটে গেলো তিউনিশিয়ায়, মিশরে কি এক বিড়াট অঘটন, শুরুতে শাসক গোস্ঠিরা ভাবেনি তাদের পরিনিতি কি হতে পারে। শেষ পর্যন্ত ছেড়ে দে মা কেনদে বাঁচি অবস্থা। লিবিয়ার অবস্থা তো সবার ই জানা, আর ভবিষ্যতে সেটা যে কি হবে তা আর অনুমানের প্রয়োজন নেই, বাস্তব আতি নিকটে। গাদ্দাফি এখন অন্ধ, তার ও হয়তো চোখ খুলবে… Read more »

নোবেল প্রাইজ প্রাপ্তির বিনিময়ে আমরা কি এড়িয়ে যাবো সকল অনিয়ম-অন্যায়কে?

/

গুড মনিং এর বাংলা করেছি আমরা শুভ প্রভাত হিসাবে। কিন্তু বাঙালি কি শুভ প্রভাত বা গুড মনিং প্রচলনের আগে সম্ভাষণের রীতিতে অভ্যস্ত ছিলো না? কি ছিলো আমাদের সম্ভাষণের ধরণ? নিশ্চিতভাবে বলা যায় সময়/ক্ষণ মেপে বা নির্দিষ্ট করে আমরা সম্ভাষণে অভ্যস্ত বা চর্চায় ছিলাম না। এই অঞ্চলে বরঞ্চ ছিলো ব্যক্তিকে নির্দিষ্ট করে/সন্মান প্রদর্শন করে সম্ভাষণের পদ্ধতি/রীতি,… Read more »