উবার, পাঠাও এবং সিএনজি ধর্মঘটের ‘ইয়ার্কি’

/

আমরা যারা ঢাকায় থাকি, কর্ম ও ব্যক্তি প্রয়োজনে নিত্য রাস্তায় বের হই, তারা জানি পাবলিক ট্রান্সপোর্টে ভোগান্তি কাকে বলে ও তা কত প্রকার। কিছুদিন আগেও লোকাল বাস ও সিটিং বাস আলাদা করা যেত। কিন্তু বর্তমানে ঢাকা শহর থেকে লোকাল বাস একপ্রকার উঠেই গেছে। এখন যাহা লোকাল তাহাই সিটিং বাস। মূলত ভাড়া বেশি নেওয়ার জন্য এই… Read more »

কিন্তু দায়িত্ব কি এড়াতে পারি?

/

রক্তের কণিকাগুলোর কাজ কি? ধারণা করি- হার্ট পাম্পের ফলে রক্তের সাথে মিশে যাওয়া অক্সিজেন কণাগুলোকে শরীরের কোষে কোষে পৌঁছে দেওয়াই এদের কাজ। এছাড়াও এরা আরও অনেক কাজ করে থাকে যেমন শরীরের কোণে কোণে, মগজে, চোখে খাদ্য উপাদানগুলো পৌঁছে দেয়। এমনি অসুস্থ জায়গাগুলোতে ঔষধও পৌঁছে দেয়। আচ্ছা! আমাদের ট্রাকগুলোর কাজ কি? যারা জানেন না তাদের জন্য… Read more »

বাস ড্রাইভার-হেলপার ও আমাদের আচরণগত সমস্যা

/

একটা বিষয় সবসময় খেয়াল করি। আমরা যখনই বাসে উঠি তখনই আমরা আমাদের মুখের লাগাম খুলে ফেলি। খুলে ফেলি ভদ্রতার মুখোশ। এই যেমন ঢাকা শহরে আমাদের প্রাত্যহিক চলাচলে বাস একটা অপরিহার্য যানবাহন। আমরা মানি আর না মানি, এতে আমাদের সবাইকে কমবেশি উঠতে হয়; হাতেগোনা উচ্চবিত্তের কিছু মানুষ ছাড়া। উঠেই আমরা যে কাজটা করি- তা হলো নিজেদের… Read more »

দোহাই অফিসারগণ, অন্যের ফোনে কান দিবেন না

/

অভ্যসাবসত ফোনটা খুলেই ঘুমাই। ইতোপূর্বে মাঠ পয়ায়ের পুলিশিং-এ ফোন খোলা রাখা অনেকটাই পেশাগত দায় ছিল। রাত-বিরেতে পুলিশকে ফোন করে যদি মানুষ না পায়, তাহলে, পুলিশ রেখে লাভ কি? একজন পুলিশ অফিসার হিসেবে তো বটেই, একজন নাগরিক হিসেবে আমারও একই প্রশ্ন। আইন অনুসারে পুলিশ অফিসাগণ দিবারাত্র ২৪ ঘন্টাই কর্মরত। তাদের নিজস্ব বা ব্যক্তিগত সময় বলতে কিছু… Read more »

ট্রাফিক পুলিশ ও গণপরিবহনের আত্মভোলা যাত্রীগণ

/

‘বাস থামিয়ে যাত্রী নামিয়ে দিলেন সার্জেন্ট’ জনাব আরিফ আহমেদ এর এ লেখাটি আইন-শৃঙ্খলা বর্গে না ছাপিয়ে সংগত কারণেই ‘নাগরিক সমস্যা’ বর্গে ছাপানো হয়েছে। জনাব আরিফের ব্লগটির তথ্যগুলো সম্পূর্ণ নয়। সে কথা অবশ্য তিনি নিজেই স্বীকার করেছেন। তার কথায়, সার্জেন্টকে জিজ্ঞাসা করলাম, গাড়ি থামানোর কারণ। তিনি তো মহা বিরক্ত, শেষমেষ যা বোঝাতে চায় তা হলো গাড়ি… Read more »