এক পুলিশের আত্মজীবনী: ঘুষ ছাড়াও জীবন চলে, ইচ্ছাও পূরণ হয়

/

জনাব সিকান্দার আলি পুলিশের এসআই পদে যোগ দিয়েছিলেন ১৯৪৪ সালে। সময়টা ছিল ব্রিটিশ শাসনের শেষ দিক। এরপর ভারত ভেঙ্গে পাকিস্তান হয়েছিল ১৯৪৭ সালে। তিনি স্থানান্তরিত হয়েছিলেন পূর্ব পাকিস্তান পুলিশ বিাহিনীতে। এরপর পূর্ব পাকিস্তান স্বাধীন হয়ে হল বাংলাদেশ। জনাব সিকান্দার আলী বাংলাদেশ পুলিশ বাহিনী থেকে অবসর নিয়েছিলেন ১৯৭৮সালে। তখন তিনি পদোন্নতি পেয়ে হয়েছিলেন পুলিশ সুপার। পুলিশে… Read more »

অতঃপর মফিজের সিএনজিতে আকাশ পথে চুরি

/

একটা সময় ছিল যখন ঢাকায় বৃহত্তর রংপুর- দিনাজপুর এলাকার অধিবাসীদের সামান্য কজন পাওয়া যেত। চাকরির সুবাদে ঢাকায় আসার বাইরে গায়েগতরে খেটে জীবিকা উপার্নের জন্য আসা উত্তরাঞ্চলের মানুষের সংখ্যা হাতে গোনা যেত। ১৯৯০ সালের আগে ঢাকায় রিকসায় চড়ে কেউ যদি রিকসাওয়ালার বাড়ির কথা জানতে চাইতেন, তাহলে অর্রেরক বেশি রিকসাওয়ালা বলতেন, তাদের বাড়ি বৃহত্তর ফরিদপুর কিংবা তার… Read more »

দারোগা সা’দত আলি আখন্দের ইন্সপেক্টর গিন্নি ও পুলিশ-কর্তাদের উৎকোচ অপারেন্ডি

/

জনাব সা’দত আলি আখন্দ বৃটিশ ও পাকিস্তান আমলে পুলিশের দারোগা ছিলেন। দারোগা মানে পুলিশের সাব-ইন্সপেক্টর। যদিও দারোগা পদটি বৃটিশ আমলের গোড়ার দিকের এবং বিধিবদ্ধ পুলিশ সৃষ্টি হওয়ার পরে বৃটিশ পুলিশতো বটেই, বাংলাদেশ পুলিশের কোন আইন, বিধি বা আদেশ বইতে দারোগা বলতে কোন শব্দের স্থান হয়নি, তবুও ঐতিহ্যগতভাবে আমরা এখনো দারোগা শব্দটি কথ্য ভাষা থেকে বিদায়… Read more »

লর্ড কর্নওয়ালিসের দারোগা বনাম বাংলাদেশ পুলিশের সাব-ইন্সপেক্টর

/

বাংলার ইতিহাসে কোতোয়াল, ফৌজদার, দারোগা ইত্যাকার পুলিশ পদবীগুলোর প্রবর্তন হয়েছিল সুলতানী শাসন আমলে (১৩৪২-১৫৩৮) [১]। প্রদেশ (ইকলিম) বা বিভাগ (শিকাহ্‌) এর দায়িত্বে থাকতেন একজন ফৌজদার। জেলা (আরছা) এর দায়িত্বে থাকতেন কোতোয়াল এবং থানার (পরগণা) দায়িত্বে নিযুক্ত থাকতেন একজন দারোগা। অনেক সময় বড় বড় শহরের দায়িত্বে থাকত ভিন্ন একজন কোতোয়াল। শহরের কোতোয়াল বর্তমানের মেট্রোপলিটন পুলিশের কমিশনারের… Read more »