গরু না আনলে ভারত সীমান্ত হত্যা বন্ধ করবে?

/

আমাদের বিজ্ঞ বিজিবি প্রধান মনে করেন যে, ভারত থেকে গরু না আসলে বিচারবহির্ভূত সীমান্ত হত্যা বন্ধ হয়ে যাবে। থামেন ভাই! # তাহলে মই দিয়ে বেড়া পার হতে গিয়ে ফেলানী কিভাবে খুন হয়? # ঘাস কাটতে গিয়ে বা মাঠে কাজ করার সময় কৃষক কিভাবে খুন হয়? # অপরাধী ধরার নামে বিএসএফ সদস্যরা কিভাবে বাংলাদেশের গ্রামে ঢুকে এলোপাথারি গুলি… Read more »

বুদ্ধিজীবীদের গল্প

/

১. ঈদ এলো এবং চলেও গেলো। আমাদের নাগরিক বুদ্ধিজীবীদের একটি অংশ ঈদে ‘সত্যাগ্রহ’ আন্দোলন করেছেন, শহীদ মিনারে। ঈদ ‘উদযাপন’ বা ‘বর্জনে’র মাধ্যমে। ব্যাপারটিতে আমার ‘সামান্য’ কৌতুহল ছিলো, অন্য অনেকের মতো। কিন্তু আমি, পরিবারের সবার সাথে প্রতি বছরের মত গ্রামের বাড়িতে চলে গেলাম। ঈদ করতে। ‘শহীদ মিনার’ আমাকে ভাল মতন টানে নাই। এদিকে গ্রামে গিয়ে এক… Read more »

অবাক কাণ্ড! ইন্ডিয়ানরাও নাকি অবৈধভাবে বিদেশে যায় ??

/

ফেলানীর মতো মাইগ্রেন্টদের হেয় করে যে সব ভারতীয় অন্যান্য ব্লগগুলিতে ফেলানীকে হেয় করে যেসব পোস্ট দিয়েছে, তাদের মনে করিয়ে দিচ্ছি যে ভারতের লোকজনও অবৈধভাবে বিদেশে যায়। অনেক ভারতীয়র ধারণা, ইন্ডিয়া ধনী ও বাংলাদেশ নাকি খুবই গরীব দেশ, অথচ এত ধনী দেশ হয়েও ইন্ডিয়া তার নাগরিকদের অবৈধভাবে বিদেশযাত্রা ঠেকাতে পারছে না। শত শত ইন্ডিয়ান টেক্সাসে ধরা… Read more »

ফেলানী, লাশ, কাঁঠাল, হায়েনা, বিএসএফ, বর্ডার কিলিং, আয়োডিন (দেশী পোলা এবং শয়তানের জন্য রূপকথা)

/

ফেলানী এখন আর কোন মানুষ নেই, সে একটা লাশ, এই দেশের রাজনীতিতে লাশ খুব বড় একটা ফ্যাক্টর, কারন আমজনতা নিজেদের বিবেকবুদ্ধি জমা রেখেছে দুটো দলের দুজন ঝগড়াটে মহিলার কাছে, দু’টো পরিবার আর তাদের চাটুকারদের কাছে। ফেলানী এখন আর কোন মানুষ নেই, সে একটা লাশ, এই দেশের রাজনীতিতে লাশ খুব বড় একটা ফ্যাক্টর, কারন আমজনতা নিজেদের… Read more »

ফেলানী বোন তোমার রক্তের শপথ: কাঁটাতারের ঐ বেঁড়াগুলো একদিন ছিঁড়বোই…

/

এক. অসভ্য-বর্বর-পশুসম ইসরাইলী আগ্রাসী বাহিনীর ফিলিস্তিন সীমান্তে নিরস্ত্র ফিলিস্তিনিদের উপর ঝাপিয়ে পড়ার বর্বর সেইসব দৃশ্য শিশুকাল থেকেই টেলিভিশনে দেখে চোখের পানি মুছতাম আর বলতাম মানুষ এমন বর্বর কিভাবে হতে পারে। কিভাবে সভ্যতার সর্বোচ্চ শিক্ষা পাওয়া একটি সুশিক্ষিত সেনা অফিসার মুহুর্তেই পাখির মত গুলি করে ঝাজরা করে দিতে পারে নিষ্পাপ ঐ মাছুম নিরস্ত্র ফিলিস্তিনি বাচ্চাগুলিকে। এখনো… Read more »