মাদককে না বলি, সামাজিক সচেতনতা বৃদ্ধি করি

/

পৃথিবীতে জন্ম নেবার পর হাঁটি-হাঁটি পা-পা করে মানুষ বড় হয়। বড় হয়ে ওঠার মাঝেই অনেক শিশুর পরিবর্তনও লক্ষণীয়। লক্ষ্য করা যায় শিশুরা ১৫ থেকে ১৮ মাস বয়সেই কিছু বুঝেতে পারে। এ সময় শিশুকে কিছু জিজ্ঞেস করলে শিশু মাথা নেড়ে জবাব দেয় । এভাবে এক সময় শৈশব থেকে কৈশোর, কৈশোর থেকে যুবক। তারপর বৃদ্ধ হয়ে চলে… Read more »

বাবা, ওরা গাছের উপর বসে ঐসব কি খায়?

/

মেঘকে নিয়ে স্কুলে যাচ্ছি সেদিন। বাপ-বেটা মিলে গল্প করতে করতে প্রতিদিন বাহাদুরশাহ পার্কের সামনে দিয়ে হেটে হেটে স্কুলে যাই— নানা কিছু দেখি, ভালো-মন্দ নানা বিষয়। মেঘ প্রশ্ন করে, আমি তার যথা সম্ভব উত্তর দেই। সমাজ, সংসারের বিষয়গুলো বোঝাতে চেষ্টা করি। সে একের পর এক প্রশ্ন করে যায়। তো সেদিন— একটা গাছের উপর আমাদের দুজনের দৃষ্টিগোচর… Read more »

মাদকের নেশা বন্ধ করলে এ কাজে শ্রমিক মিলবে তো?

/

    একটু দূরেই আরেকটি ম্যানহোলের পাশে মনে হল এরা একটি পরিবার। ছবি তুলতে গেলে মুহূর্তে যে যার পজিশন নিতে শুরু করল। বোঝা গেল- জীবন ক্ষুধা কতটা জমা রয়েছে তাদের!   জীবিকা নির্বাহের জন্য কোনো কাজ না পেলে আপনি কি এই কাজটি করতে প্রস্তুত আছেন? ব্যক্তিগতভাবে আমি রাজি নই। ওরা কি কাজটি আসলে বাঁচার জন্য… Read more »

জনৈকা জীবন আরা’কে নির্যাতনের অভিযোগ এবং মাদক ব্যবসার অপরাধ সমীকরণ

/

যেকোন সরকারি সংস্থার হেফাজত, তা কারাগার হোক কিংবা পুলিশের হাজতখানাই হোক, একটি নিরাপদ স্থান বলেই বিবেচিত হয়। অনেক দাগী চোর বা ডাকাত বিক্ষুব্ধ জনতার হাত থেকে বাঁচার জন্য ভোঁ দৌড় দিয়ে থানার মধ্যে প্রবেশ করে স্বেচ্ছায় আলামতসহ গ্রেফতার পর্যন্ত হওয়ার নজির স্থাপন করেছে। কারণ, পাবলিকের হাতে পড়ে ব্যাকরণহীন পিটুনি খেয়ে অক্কা পাওয়ার চেয়ে থানার দারোগার… Read more »

রডরিগো দুতার্তেরা কেন ক্ষমতায় আসে?

/

অর্থনীতির সূত্র মতে- মানুষের মনে প্রথমে কোন কিছুর জন্য আকাংখা তৈরী হয়! যখন সেই আকাংখা পূরণ করার মত অর্থ বা সক্ষমতা তাদের হাতে আসে; তখন বাজারে এর চাহিদা তৈরী হয়! আর এই চাহিদা পূরণ করতে এগিয়ে আসে ‘যোগান’। যাকে আমরা ‘পণ্যের যোগান’ বলি। বাকী কাজটা বা পণ্যের বাজার দর নির্ভর করে সেই পণ্যের চাহিদা আর… Read more »

তল্লাশিতে বোঝা দায়- পুলিশ গাঁজা খোঁজে না হেরোইন?

/

আমি একটা সমিতির অফিসে চাকরি করে আসছি তা ৬/৭ বছর ধরে, সমিতিটা হলো, ক্ষুদ্র ঋণদান সমিতি। এখানে শুধু ব্যবসায়ীদের ঋণ দেয়া হয়, ব্যবসায়ী দোকানদার ছাড়া এখানে কাউকে ঋণ দেওয়া হয় না। আমার চাকরিটা হলো, সমিতির অফিস পরিচালনা করা আর দোকানে-দোকানে গিয়ে সেই ঋণের টাকা আদায় করা। আমি প্রতিদিন সকালবেলা থাকি অফিসে আর বিকালবেলা থাকি মার্কেটের… Read more »

মাদকাসক্তির সায়েন্টিফিক বিশ্লেষণ ও সমাধান

/

মানুষের শরীর এমন কতগুলো হরমোন স্বাভাবিক প্রক্রিয়ায় নিঃসরণ ঘটায় যা ব্যথা-বেদনা, দুশ্চিন্তা, মানসিক চাপ ইত্যাদি সহ্য করতে সাহায্য করে। কিন্তু এসব হঠাৎ করে বেড়ে গেলে মানুষ হতাশ হয়ে মাদকদ্রব্য সেবন শুরু করতে পারে। বেশিরভাগ মাদক সেবন ডিপ্রেশন থেকেই বেশি হয়, আর তখন এসব মাদক শরীরের ফ্রি-রেডিকেল বাড়ানোর মাধ্যমে হরমোন নিঃসরণ বাড়িয়ে দিয়ে সাময়িকভাবে মানসিক চাপ… Read more »

কটিয়াদীতে প্রকাশ্যেই চলে মাদক ব্যবসা!

/

কটিয়াদীতে প্রকাশ্যেই চলে মাদক ব্যবসা! হাত বাড়ালেই বাহারি ব্র্যান্ডের পছন্দসই মাদক! হঠাৎ করে কটিয়াদীতে যখন একজন মাদকাসক্ত সন্তান মাদকের অর্থ জোগাতে তাঁরই নিজ পিতাকে প্রকাশ্যে নৃশংসভাবে হত্যা করলো, তখন যেন সবাই হতবাক! যেখানে একজন সাধারণ মানুষ পর্যন্ত জানেন কারা এই মাদক ব্যবসার মূল হোতা! তাই আশাকরি সংশ্লিষ্ট কর্তাব্যক্তিরাও এ বিষয়টি ভাল করেই জানেন। তাই মাদক… Read more »

তরুণ সমাজের হতাশা এবং নেশা

/

বিশ্ববিদ্যালয়ের বন্ধু, এলাকার বন্ধু বা সমবয়সী অনেককেই দেখি নানা রকম নেশায় নেশাগ্রস্ত হয়ে পরছে। এদের মধ্যে প্রথম প্রথম প্রায় সকলের বক্তব্যই থাকে “দেখি জিনিসটা কেমন? সবাই কেন খায় দেখি!!” অনেকে আবার তথাকথিত সামাজিকতা রক্ষার্থে চেখে দেখে। স্কুলে বন্ধুদের সাথে সিগারেট খেয়ে ধরা খাওয়ার পর স্যার বলেছিল “সংগদোষে লোহাও ভাসে”। তখন স্যারের কথা হেসেই উরিয়ে দিয়েছিলাম,… Read more »

সনাতনী পুলিশিং এর নিরিখে মাদক-সমস্যা ও কমিউনিটি পুলিশিং

/

সনাতনী পুলিশিং দর্শনে অপরাধকে কোন সমস্যা হিসেবে দেখা হয় না। মনে করা হয়, এটা একটা মনুষ্য উপদ্রুব। তাই এখানে সমস্যার সমাধান নয়, অপরাধ নিয়ন্ত্রণের চেষ্টা করা হয়। মাদক সমস্যাকে গোড়া থেকে না দেখে দেখা হয় এর আগা থেকে। উপর থেকে গাছের ডাল-পালা ছেঁটে গাছকে আকারে ছোট করা হয়। কিন্তু স্বাভাবিক প্রক্রিয়ায় কয়েক দিন পর আবার… Read more »