ঠাকুরগাঁওয়ে বন্যা শেষে জীবনমুখী মানুষের সাথে

/

পোক্ত গুড়ির আমগাছগুলোর গায়ে গায়ে মাটি মাটি দাগ জানান দিচ্ছে সম্প্রতি নেমে যাওয়া বেনো জলের গল্প। নাগর নদী পাশের গ্রামের মানুষগুলো জানে প্রতিবছর অতিবৃষ্টিতে উটকো বান এসে আকণ্ঠ ডুবিয়ে দিয়ে যাবে। ধসিয়ে দিয়ে যাবে মাটির ঘর। তবু তারা ফিরে আসে, পানি নামলেই। ঘর গোছাতে থাকে। টিকেট নিয়ে হাহুতাশ করতে করতেই টিকেট হাতে অবিশ্বাস্য মুহূর্তকে দুচোখে… Read more »

জংলা রাজবাড়ি, শুষ্ক নদী আর নড়বড়ে সেতুর রাণীশংকৈল

/

ঠাকুরগাঁও জেলার বিভিন্ন উপজেলাগুলি কালের সাক্ষীর মত ঐহিত্য আর প্রকৃতিকে ধারণ করে আছে। প্রকৃতিই যতটুকু পারছে রোদেবৃষ্টিতে ধরে রাখছে, মানুষের যত্নের ছাপ কম। এদিকে সড়কের অবস্থা ভাল। বলা চলে ঢাকার চেয়েও ভাল। ঢাকার মত অধিক সংখ্যক ভাড়ি যানবাহন চলেনা, তাই কিছু মেঠোপথ ছাড়া ঝাঁকিহীনভাবেই ঠাকুরগাঁওয়ের মসৃণ পিচের সড়কে যান্ত্রিক বাহনে চড়ে দু’চোখ ভরে দেখা যায়… Read more »