একুশে ফেব্রুয়ারি শুধু ভাষা আন্দোলন নয়, ছিল সাংবিধানিক অধিকারের আন্দোলন

/

ভাষা আন্দোলন হিসেবে ২১শে ফেব্রুয়ারি, ১৯৫২ প্রচলিত হলেও এটা মোটেও এককভাবে ভাষা আন্দোলন ছিল না। ১৯৫২ সালে এটা ছিল সাংবিধানিক অধিকার আদায়ের আন্দোলন। কারণ সংবিধানে সমগ্র পাকিস্তানের জাতীয় ভাষা কি হবে এ নিয়ে মতানৈক্য দেখা দেয়। উর্দু ভাষাভাষী ক্ষমতাসীনরা সংখায় ছিল মাত্র ৩ শতাংশ, কিন্তু এই অংশটি জোর করে সংবিধানে রাষ্ট্রভাষা শুধুমাত্র উর্দু হবে বলে… Read more »

টরন্টোয় স্থায়ী শহীদ মিনার এবং আমাদের বিভাজন নীতি

/

প্রায় এক দশকের জল্পনা-কল্পনা, আলাপন ও পরিকল্পনা শেষে উদ্যোক্তাদের মেধা, অর্থ ও শ্রমের বিনিময়ে অবশেষে গত ২ অক্টোবর ২০১৭ তারিখে ভাষা শহীদদের স্মরণে এবং আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবসের প্রতি সম্মান প্রদর্শনের নিমিত্তে টরন্টোতে একটি স্থায়ী শহীদ মিনার স্থাপনের প্রস্তাব অনুমোদন করেছে টরন্টো সিটি কাউন্সিল। শহীদ মিনারটি নির্মাণের জন্য স্থান নির্ধারিত হয়েছে টরন্টোর বাঙালি অভিবাসীদের সাহিত্য ও… Read more »

একুশে ফেব্রুয়ারি অমর হোক, আসুক ফিরে বারবার

/

এখন ফেব্রুয়ারি মাস। বর্তমান তারিখ যা-ই হোক না কেন, আর কদিন পরেই ফেব্রুয়ারি মাসের ২১ তারিখ। এই মাসটি আমাদের বাঙালিদের জন্য এক স্মরণীয় মাস, যা স্কুলজীবনেও অনেক বই পুস্তকে পড়েছি। যেই দিবসটির কথা বলতে চাচ্ছি সেটি হলো, একুশে ফেব্রুয়ারি আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস। ১৯৫২ সালে মাতৃভাষা রক্ষা করার জন্য যারা রাজপথে লড়াই করেছে, তাদের আমরা ভাষা… Read more »

ভাষা আন্দোলনের গৌরবদীপ্ত মাস

/

“আমার ভাইয়ের রক্তে রাঙানো একুশে ফেব্রুয়ারি, আমি কি ভুলিতে পারি”   আলোকচিত্রী: নাভিদ ইবনে সাজিদ নির্জন  

slide

ভাষা শহীদদের প্রতি শিশু মিনহা আফছানার শ্রদ্ধা নিবেদন

/

১৯৫২ সালের ভাষা আন্দোলন। রাষ্ট্র ভাষা বাংলা চাই, অন্য কোন দাবি নাই। ৮ই ফাল্গুন, ২১শে ফেব্রুয়ারি ঢাকার রাজপথ রক্তে রঞ্জিত হয় মাতৃভাষা বাংলার দাবিতে। সেদিন ১৪৪ ধারা ভঙ্গ করে মিছিেল অংশ নেয় ছাত্র-জনতা। পুলিশের গুলিতে সেদিন রাজপথ রক্তে রঞ্জিত হয়ে শহীদ হন রফিক, সফিক, বরকত সহ নাম না জানা অনেকেই। সেই দৃশ্য এ প্রজন্মের শিশুরা… Read more »

পিয়ারু সরদার, প্রথম শহীদ মিনার নির্মাণের নেপথ্য নায়ক

/

‘পঞ্চায়েত’ হচ্ছে  বিরোধ নিষ্পত্তি , নির্দেশ কিংবা পরামর্শ প্রদানের ক্ষমতা প্রাপ্ত একধরনের  স্থানীয় সরকার ব্যবস্থা , প্রথম দিকে যা হিন্দু শাসন ব্যবস্থাতেই  প্রচলিত ছিল ।  এবং পরবর্তীতে এটি মুসলিমগণ শাসন ব্যবস্থাতেও জনপ্রিয়তা লাভ করে। হিন্দু পঞ্চায়েত ব্যবস্থার  মূল ভিত্তি ছিল ছিল বর্ণ কিংবা জাত , কিন্তু  মুসলিম পঞ্চায়েত ব্যবস্থাটি -প্রধানত ধর্মীয়-ভিত্তিক ছিল না, তাদের কাজ ছিল… Read more »