গুলিয়াখালি সমুদ্র সৈকতে একদিন

/

চট্টগ্রাম জেলার সীতাকুণ্ড উপজেলার গুলিয়াখালি গুলিয়াখালী সমুদ্র সৈকত ঘুরতে গিয়েছিলাম আমরা ক’জন। প্রকৃতির এক অনিন্দ্য রূপ, অফুরন্ত সবুজের মায়া আর উজাড় করে দেয়া প্রকৃতির নৈসর্গিক দৃশ্য দেখা মিলবে এই সমুদ্র সৈকতে। ভিডিও ধারণ ও সম্পাদনা- আমিনুর রহমান হৃদয়। ভ্রমণ তারিখ- ০১-০৫-২০১৮।

ব্যস্ত জীবন থেকে একটু বিরতি!

/

আমি আর আমার ছোটবেলার এক বান্ধবী প্রতিবছর দু’টো দিন আলাদা করে রাখি নিজেদের মত ঘুরব বলে- এ যেন একেবারে ছোটবেলার ‘কোথাও আমার হারিয়ে যাবার নেই মানা’ ধরনের এক রকম অপার আনন্দ, সীমাহীন উচ্ছাস! নিজের প্রতিদিনকার জীবন থেকে একটি বিরতি। মায়েদের জন্য বিরতির কতটা প্রয়োজন সেটি কোন ফুলটাইম মা’কে জিজ্ঞাসা করলে জানতে পারবেন। আমার কাছে মনে… Read more »

অাল্পসের দেশ সুইজারল্যান্ডে আমরা

/

  ইন্টারসিটি এক্সেপ্রেস বা ICE লিওনেলের জন্মদিন! আমাদের একমাত্র পুত্রের জন্মদিনটি অন্যভাবে যদি করা যেতো! যেই ভাবা সেই কাজ। ঠিক করলাম মেঘের রাজ্য ছাড়িয়ে আরও অনেক ওপরে উঠে পুত্রকে অন্য এক পৃথিবী দেখাবো।ফ্র্যাঙ্কফুর্ট থেকে আইসিই তে চড়ে রওনা হলাম। আইসিই হলো ইন্টার সিটি হাইস্পিডের ট্রেন। জার্মানী ও তার আশেপাশের দেশগুলোতে সহজেই এতে চড়ে যাওয়া যায়… Read more »

ফ্রাঙ্কফুটের ক্রিসমাস মার্কেট

/

ইউরোপের অন্যতম বড় আর পুরাতন ক্রিসমাস মার্কেটে ঢুকতে ঢুকতে আমার মনেও উৎসব উৎসব একটি অামেজ চলে এলো। কোথায়? জার্মানীর ফ্রাঙ্কফুটে! উইন্টারে এখানে বিকাল ৫ টার ভেতরেই সন্ধ্যা নামে। সন্ধ্যার পরেই যেন পুরো জায়গা জুড়ে জমজমাট ভাব জমকালো পরিবেশে আরও বেশি করে জমে ওঠে! দেখলেই আপনি বুঝতে পারবেন যে, এরা সারা বছর এই সময়টার জন্যই অপেক্ষা… Read more »

অনেকখানি সবুজের খোঁজে শহর থেকে একটু দূরে

/

যান্ত্রিক শহরের বুকে সবুজের দেখাটা যেন এখন অসম্ভব হয়ে উঠেছে। শহরের বুকে সময় কাটানোর মত অনেক পার্ক থাকলেও নোংরামী আর অশ্লীলতার কারণে পরিবার নিয়ে সময় কাটানোর কথা ঘুণাক্ষরেও ভাবতে পারেন না কেউ কেউ। ছুটির দিন কাটে ইট-পাথরের ছোট কারাগারে, ছোট একটি যান্ত্রিক বস্তু নিয়ে। ইচ্ছে যদি হয় একটুখানি সবুজের ছোঁয়া পেতে, আর হাতে যদি সময়… Read more »

৬ অক্টোবর উত্তরায়…এসো মিশি শারদ শুভ্রতায়

/

জাবির আড্ডার স্মৃতি এখনো মুছে যায়নি। ফিকে হয়নি রমনার কৃঞ্চচূড়া আড্ডা। স্মৃতিতে জ্বলজ্বল করছে ময়মনসিংহের বরষার আবাহন। প্রাণ আবার উথলে উঠেছে বন্ধুদের আশায়, ৬ অক্টোবর উত্তরায়.. এসো মিশি শারদ শুভ্রতায়…। বন্ধুরা, মাঝে মাঝেই তোমাদের ফেবুতে দেখি, খানিকটা চ্যাট-ফ্যাটও হয়। কারও সাথে কথা হয় মুঠোফোনে। তাই বলে কি আর প্রাণের হাহাকার থামে? পাশাপাশি বসে উচ্ছল কলরবে… Read more »

কাজের আশায় ভারত গমন, নিঃস্ব হয়ে দেশে ফেরা! পর্ব-৪

/

এ ভাবে কানাইর সাথে ঘোরাফেরা করতে-করতে কেটে গেল আরও কয়েকদিন। আমার চিন্তা আরও ঘনীভূত হতে লাগল, এখন আর কিছুই ভালো লাগছে না। চার-পাঁচদিন পর একদিন সকালবেলা কানাই বলল, ‘চল দুইজনে টাউনে গিয়ে ঘুরে আসি।’ আমি জিজ্ঞেস করলাম, ‘কোথায় যাবি?’ কানাই বলল, ‘আজ তোকে মেট্রো ট্রেনে চড়াব আর সময় পেলে হাওড়া, তারামণ্ডলও দেখাতে পারি।’ এ তো… Read more »

কাজের আশায় ভারত গমন, নিঃস্ব হয়ে দেশে ফেরা! পর্ব-৩

/

স্টেশনের বাইরে গিয়ে চা-বিস্কুট নিয়ে খাচ্ছি, এমন সময় ট্রেনের হুইসেল শোনা যাচ্ছে। ট্রেনের হুইসেল শুনে আমার বুকের ভেতরে কামড়াকামড়ি শুরু করে দিল। কখন আমি স্টেশনের ভেতরে যাব, সেই চিন্তায় আমার চা-বিস্কুট খাওয়া শেষ। ঝটপট দোকানদারকে চা-বিস্কুটের দাম দিয়ে দৌড়ে চলে আসলাম, স্টেশনের ভেতরে। ভেতরে আসার পর কানাই বলল, “কী খেয়েছিস? এতো ঝটপট চলে এলি যে?”… Read more »

কাজের আশায় ভারত গমন, নিঃস্ব হয়ে দেশে ফেরা! পর্ব-২

/

২৭ চৈত্র ১৩৯৯ বঙ্গাব্দ, ১০ এপ্রিল ১৯৯৩ ইং রোজ রবিবার। ঠিক সকালবেলা বাইর হলাম, বড়দা’র বাসা থেকে। আগেই নাস্তা সেরে জামাকাপড় পড়ে রেডি হয়েছিলাম। জামাকাপড় পড়তেই বড়দাদা জিজ্ঞেস করলেন, “কোথায় যাবি?” আমি বললাম, “দাদা, আমি কানাইদের বাসায় যাচ্ছি। আজই মনে হয় রওয়ানা দিতে পারি, আমার জন্য আশীর্বাদ রাখবি।” বড়দাদা কিছুক্ষণ চুপ করে থাকার পর বলল,… Read more »

পড়ন্ত বিকেলে চিকনাগুলের জলকন্যায়

/

চারিদিকে থৈথৈ করছে অথৈজল, মাঝখানে ঠায় দাঁড়িয়ে আছে একটি বন । দূর থেকে মনে হয় সবুজ শাড়ি পরে জলে ডুব দিয়েছিল এক জলকন্যা , জল থেকে উঠে শুকাতে সূর্যের কাছে এলিয়ে দিয়েছে সেই ভেজা গা । কাছে যেতে যেতে কম্পিউটারের পিকচার জুম অপশনের মতো ছোট থেকে ক্রমেই বড় হতে থাকে । নাগালে যেতেই মনের গভির… Read more »