ক্যাটেগরিঃ ব্লগ

 

ডাক্তারদের ছাগল বা ভেড়ার পাল পেয়েছেন নাকি!!!বড় বড় বুলি আওড়াবেন আর ঢাকা শহরে এসি রোম এ বসে খেদিয়ে খেদিয়ে ডাক্তারদের গ্রামে পাঠাবেন আর বিনিময়ে সারা জীবনের হতাসা তুলে দিবেন দেশের শ্রেষ্ঠ সন্তানদের হাতে তা কি করে হয়!!! শুধু একটা পোস্টিং দিয়ে গ্রামে গিয়ে ডাক্তারি করার জন্য নীতি বাক্য কপচালে হবে? আপনারা কি জানেন এইসব স্থানে গিয়ে ডাক্তারি করাত দূরে থাকুক এরা নিজেরাই মানুষিক রোগে আক্রান্ত হয়ে পড়ছে। সৃষ্টির সেরা মানুষের চিকিথসকদের নিয়ে এহেন অবহেলা সারা দুনিয়ায় কোথাও আছে বলে আমি জানি না। দুই পয়সা ধরিয়ে দিয়ে এঁদের সারাটা জীবন অন্ধকারে ঠেলে দেয়ার পায়তারা কেন? আমাদের সবাইকে বুঝতে হবে ডাক্তারি পেশা ও পড়া দুনিয়ার সবচেয়ে কঠিন একটা ব্যাপার। ডাক্তারকে সঠিক ভাবে অবশ্যই মূল্যায়ন করতে হবে। আমৃত্যু ডাক্তারকে পড়াশুনা চালিয়ে যেতে হয়। সমাজের সবচেয়ে মূল্যবান শ্রেণী হচ্ছে ডাক্তার শ্রেণী। জনগণের দোরগোড়ায় স্বাস্থ্য সেবা পৌঁছে দেয়া সরকারের দায়িত্ব। কিন্তু সেই দায়িত্ব পালনে ভ্রান্ত নীতি নিয়ে অগ্রসর হলে কখনই তা সফল হবে না । আর হচ্ছেও না। হাজার হাজার ডাক্তার সরকার নেয়ার পরও গ্রামে ডাক্তার খুঁজে পাওয়া যাচ্ছে না। খুঁজে পাওয়া কোনদিনও যাবে না যদিনা সরকার দৃষ্টিভঙ্গির পরিবর্তন ঘটায়। গ্রামে একজন ডাক্তারের শুধু পোস্টিং আছে আর কিছুই নাই। বসার যায়গা নাই,থাকার যায়গা নাই, টয়লেট নাই, বিদ্যুৎ নাই,ভালো স্কুল নাই, ঔষধ নাই, লোকবল নাই, সামাজিক পরিবেশ নাই, ভালো কাজের মূল্যায়ন নাই, বাড়তি কোন সুযোগ সুবিধা নাই, পড়াশুনা করার সুযোগ নাই…আসলে তেমন কিছুই নাই। আছে শুধু হতাসা। কেন গ্রামে ডাক্তার যাবে!!! কোন আশা ভরসায় একজন ডাক্তার গ্রামে যাবে? কেউ নেতাগিরি করে,কেউ মাল-পানি, কেউ জ্যা্‌ক,কেউ চাকুরী ছেড়ে দিয়ে গ্রামে ছাড়ার জন্য জীবন-মরন চেষ্টা করে।আর এটা করবেই। এইসব ঠেকাতে হলে এই ব্যবস্থার আমুল পরিবর্তন আনতে হবে। ডাণ্ডা দেখিয়ে কোন লাভ নাই কারন এরা বেশীরভাগই নির্দলীয় নয়। সঠিক যায়গায় সঠিক লোক কে দিতে হবে। মান সম্মত ডাক্তার তৈরিতে মেধাবীদের প্রাধান্য দিতে হবে। মেধার ও বয়সের ভিত্তিতে পোস্টিং দিতে হবে। যার বয়স কম ও মেধা বেশী তাঁকে সবচেয়ে ভালো যায়গায় পোস্টিং দিতে হবে। কারন এই মেধাকে দেশের কল্যাণে ব্যাবহার করতে হলে তাঁকে গ্রামে কয়েক বছর ফেলে রেখে দেশ ও জাতীর ক্ষতি করার অধিকার কারো নাই। নবিন ডাক্তাররা যেহেতু দেশের ভবিষ্যৎ কর্ণধার তাই তাদেরকে সঠিক ভাবে গড়ে তুলতে হলে প্রথম থেকেই তাদেরকে সে ভাবে সুযোগ সুবিধা দিয়ে গড়ে তুলতে হবে। সবাই প্রতিভাবান বিশেষজ্ঞ ডাক্তার হবে না। সবার মাঝে সব ধরনের প্রতিভা থাকে না। তাই গনহারে সব ডাক্তারদের সাথে একই আচরন করা ঠিক না। বিভিন্ন ক্যাটাগরিতে ডাক্তার নিয়োগ দিতে হবে। অনেক বেকার ডাক্তার আছে দেশে যারা কোন উচ্চতর ডিগ্রি হাসিলের চেষ্টাও করছেন না আবার সরকারী চাকুরির বয়সও নাই। সেই সব ডাক্তারদের মধ্যে যাদের বয়স ৪০ এর উপরে তাঁদের গ্রামে চুক্তি ভিত্তিক নিয়োগ দেন। দেখবেন ডাক্তারের অভাব হবে না। যারা মেধাবী তাদেরকে অবশ্যই কাজে লাগাতে হবে। তাদেরকে প্রথম থেকেই পড়াশুনা করার সুযোগ দিতে হবে। ভালো ডাক্তার তৈরি করা রাষ্ট্রের অন্যতম দায়িত্ব। আজও আমরা খুব ভালো ডাক্তার দেশের জন্য বানাতে পারিনি। যদি পারতাম তাহলে আমাদের দেশের হাজার হাজার কোটি টাকা উন্নত চিকিথসার নামে বিদেশ পাচার হতো না। বরং আমরা সিঙ্গাপুর,ব্যাংকক এর মতো এই খাতে হাজার হাজার কোটি টাকা বৈদেশিক মুদ্রা অর্জন করতে সক্ষম হতাম। বড় দুঃখ লাগে যখন দেখি দেশের রাষ্ট্রপতি থেকে শুরু করে সাধারন জনগন উন্নত চিকিথসার জন্য বিদেশ যাচ্ছেন! আমাদের দেশের বেশীর ভাগ লোক দারিদ্রতার মাঝে আছে। তাদেরকে চিকিথসা দিতে হলে আমাদের আর্থসামাজিক উন্নয়ন ঘটাতে হবে। শুধু ডাক্তার পাঠিয়ে কোন লাভ হবে না।চিকিথসার নামে দেশের টাকা বিদেশে পাঠানো বন্ধ করতে হবে,বিদেসের টাকা দেশে আনতে হবে, বিদেশী ডাক্তারের প্রতি মোহ সবাইকেই ত্যাগ করতে হবে।