ক্যাটেগরিঃ স্বাস্থ্য

 

হে চিকিৎসক মহোদয় আপনার পবিত্র অ্যাপ্রোনের নিচে যে মানুষটি বাস করে তার বিবেক আজ মৃতপ্রায়। একদা যে ছিল আপনার পথ প্রদর্শক। আজ সে পথহারা। কিছুতেই পায়না নাগাল। নিষ্ঠাবান, নিতির প্রশ্নে আপোসহীন সেই শিক্ষার্থীর। আজ অর্থের প্রলোভনে ভেসে গেছে তার আদর্শ। আপনি কি চিনতে পারছেন আমায়? আমি আপনার বিবেক। যে অষ্টপ্রহর আপনাকে করে দ্বিধান্বিত যদিও বারংবারই ব্যার্থ হয়। তবু থেমে থাকেনা প্রচেষ্টা।

• আপনি যখন অনাহূত পরীক্ষা-নিরীক্ষার নামে অসহায় রোগীদের করছেন সর্বস্বান্ত। তখন আমি লজ্জায় নুয়ে পড়ি।
• যখন আপনি ল্যাবরেটরির কাছ থেকে পার্সেন্টেজ নেন তখন আপনার শরীর থেকে যে দুর্গন্ধ বের হয় তাতে আমার দমবন্ধ হয়ে আসে।
• যখন আপনার ঘরের বাইরে যন্ত্রণাকাতর রোগী কাতরাতে থাকে আর আপনি ঔষধ কোম্পানির প্রতিনিধির সাথে লেনদেনে ব্যস্ত তখন আপনার হাসিকে হায়েনার মত বীভৎস মনে হয়।

আপনার শিক্ষা-শপথ, আপনার আদর্শ খড়কুটোর মত আজ ভেসে যায়। আমি প্রাণপনে তাকে আঁকড়ে ধরে-ধরে আজ বড় বেশি ক্লান্ত; মুমূর্ষুপ্রায়। শুনতে কি পান আমার আর্তনাদ?
কার জন্য এতসব?

এত যে পাতা প্রতারণার ফাঁদ। এত যে গড়ে তোলা টাকার পাহাড়। সুখ কি মিলছে তাতে! অসহায়ের দীর্ঘশ্বাস আর আর্ত পিরিতের ক্রন্দনে ভারি যে বাতাস তার মাঝে থেকে কি করে প্রাণভরে শ্বাস নেন?

• রোগী ধরে আনার জন্য আপনি পোষেন রোগী ধরার দালাল।
• ঔষধ কোম্পানির কাছ থেকে নেয়া সুযোগ-সুবিধার বিপরীতে ব্যবস্থাপত্রে লেখেন তাদের উৎপাদিত ঔষধের নিক নেম।
• ডায়াগনস্টিক সেন্টারের সাথে করেন ৫০-৫০ কমিশন বাণিজ্য।
• তলারটা খান গাছেরটাও কুড়ান। সরকারী হাসপাতালে আসা রোগীকে ধরিয়ে দেন চেম্বারের কার্ড।
• হোক না ঠাণ্ডা জ্বর রোগীকে ধরিয়ে দেন ম্যালেরিয়ার টেস্ট। পারেন তো চর্ম রোগীকে ধরিয়ে দেন বিলিরুবিন টেস্ট।
• একই চিকিৎসক আপনি সরকারী হাসপাতালে গুরু গম্ভীর, রাগী (ভয়ে রোগী তার রোগের বর্ণনা দিতেও সাহস পান না) অথচ প্রাইভেট চেম্বারে হাসিখুশি, প্রাণবন্ত, সজ্জন একজন ব্যাক্তি।
• অস্ত্রোপচার ছাড়া স্বাভাবিক প্রসব আপনার অভিধানেই নেই।
• একজন সাধারণ চিকিৎসক আপনি কত দ্রুতই হয়ে উঠেছেন টাকা কামানোর এক অসাধারণ কৌশলী।

হে মহান কৌশলী এই অর্থ-বিত্ত কি আপনাকে চিরঞ্জীব করতে পারবে? যদি পারে, তাহলে আমার মত বিবেকের মৃত্যুই শ্রেয়। আর যদি তা নাই পারে তবে তো আপনাকে আমার কাঠগড়ায় দাঁড়াতেই হবে। আমি কি সেদিন আপনাকে রেহাই দেব? আজ অনেকেই কষাই বলে, পিশাচ বলে ডাকে অথবা নরখাদক, অবিবেচক। সেদিন আমি কি বলে সম্বোধন করব আপনিই করুন নির্ধারণ। আমার মত যেন আর কোন বিবেককে আর্তনাদ করতে না হয়। এ আমার শ্বাশত কামনা।

বিঃদ্রঃ আমি সেইসব চিকিৎসকের বিবেকের প্রতিধ্বনি করছি যারা আমার মত অসহায়।

kmgmehadi@yahoo.com