ক্যাটেগরিঃ ব্লগ

আমরা সাধারণ, অতি সাধারণ। কোন সন্দেহ নেই। এ দেশটাকে কষ্টেসৃষ্টে টেনে নিয়ে যাচ্ছেন আমাদের মহান রাজনিতীবিদগন। স্বাভাবিকভাবেই তাদের কর্মকাণ্ড নিয়ে প্রশ্ন তোলা আমাদের একেবারেই অনুচিত। রাজার নীতি বলে কথা!
এই রাজাদের যারা সাঙ্গপাঙ্গ। বেয়াদবি করে ফেললাম, সাঙ্গপাঙ্গ নয় সহযোগী। আমরা কি পারি তাদের কর্মকাণ্ড নিয়েই কথা বলতে? না বলা উচিত? আমরা প্রতিনিয়তই এই ধৃষ্টতা দেখিয়ে আসছি। তাদের মহানুভবতা। এরপরেও রাবণ না হওয়া স্বত্বেও আমাদের মাথা বহাল তবিয়তে আছে।
দেশটা তো তাদের। তারা কি আমাদের মত আশ্রিতদের কাছ থেকে কিছু উপঢৌকন দাবী করতে পারেন না? আমরা তাদের সেই সম্মানটুকুও দিতে চাই না। বিপত্তিটা এখানেই বাধে। তারা বাধ্য হয়ে উপহার, বখশিশ বিভিন্ন বিশেষণে বিশেষায়িত করে এই উপঢৌকন আদায় করে নিতে বাধ্য হন। এ জন্য তাদের আবার নিজস্ব বাহিনী পর্যন্ত গঠন করতে হয়। তাদের পুষতেও তো খরচ আছে তাই না? এখানেও আবার আমরা বাধ সাধি। আমরা একে দুর্নীতি বলে অপপ্রচার চালাই। এটা কি অন্যায় নয়?
আজ বাধ্য হয়ে দুর্নীতি দমন কমিশনার বলেন- পিয়ন-চাপরাশির কথায় আদালত চলে না। ঠিকই তো আমরা কেন সবাই রাজা হতে চাই? কেনই বা রাজাদের বিব্রত করতে যাই?
সারে চার হাজার কোটি টাকা কোন টাকাই নয়। এ কথা কতখানি সমৃদ্ধ অর্থনীতির একটি দেশের অর্থমন্ত্রী বলতে পারেন? এই সমৃদ্ধি আমাদের রাজাধিরাজরাই এনেছেন। এটা আমরা ভাবছিই না।
রামুতে সহিংস ঘটনা ঘটেছে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী স্বয়ং উপস্থিত হয়েছেন। এমনকি কে বা কারা কম্মটি ঘটিয়েছেন তাও স্পষ্ট করে এসেছেন। ছায়া সরকার তদন্ত কমিটি করেছেন। জনসম্মুখে প্রকাশ করেছেন। এমনকি যাদের অনুদানে(!) আমরা দুমুঠো খেয়ে বেচে বর্তে আছি তাদের কাছেও সেই রিপোর্ট প্রদান করেছেন। এটা নাকি তাদের কর্তব্য(!)আর কি চান? এরপরেও আমাদের চোখে তাদের দোষের শেষ নেই।
রাজায় রাজায় ঝগড়া বিবাদ হবে তারা কারো চোখ উপরে নিতে চাইবেন আরো কত কি-ই বলবেন তা আমরা কেন শুনতে যাই? এটা আবার ফলাও করে প্রচার করারই বা কি আছে?
প্রতি পাঁচ বছর অন্তর আপনি একটি ভোট দিয়ে এই রাজাদের কাঁধে তুলে দিচ্ছেন রাজ্যের বোঝা। তারা তা গ্রহণে কি কখনো অনাগ্রহ প্রকাশ করেছেন? করেন নি । বরং এই মহান দায়িত্ব নিতে তারা আপনার কত অন্যায্য অপবাদ হাসিমুখে মেনে নিচ্ছেন। তাদের পদধূলিতে আপনার কুঁড়েঘর ধন্য হয়ে যায় প্রতি পাচ বছর অন্তর অথচ পান থেকে চুন খসলেই আপনারা সব ভুলে যান।
ইদানীং আপনারা নাকি ক্ষমতার সাধও পেতে চাইছেন। তাও আবার ভিন্ন পথে। কেন এ দুঃসাহস বলুন তো? আপনারা কি কোন রাজাধিরাজের উত্তরসূরি? উত্তরসুরী নন অথচ রাজাধিরাজ হতে চান। এ বড় অন্যায়। আপনাদের অত্যাচারে গনতন্ত্রের মুলাটা ঝুলিয়েই রাখতে হয়। সামান্য প্রজা হয়ে রাজাধিরাজদের দিকে অঙ্গুলি উত্থাপন; এত বেশি ত্যক্ত করা এ বড় ধৃষ্টতা, নয়?

kmgmehadi@yahoo.com