ক্যাটেগরিঃ মুক্তমঞ্চ

 

বাংলাদেশের বেশিরভাগ মানুষ ধার্মিকের অভিনয় করে ধার্মিক নয়। যা এ দেশের একটি অন্যতম প্রধান সমস্যা।
আর যারা সত্যিকারের ধার্মিক তাদের ধর্মীয় জ্ঞান নগণ্য অথচ সুযোগ থাকা সত্যেও তারা ধর্মীয় জ্ঞান লাভের চেষ্টা করে না। এটা আরেকটি বড় সমস্যা।

সবচেয়ে বড় সমস্যা হল যারা সত্যিকারের আলেম তারা সাধারণ মানুষের মাঝে সেই জ্ঞান প্রসারের ব্যবস্থা করছেন না। আজ পর্যন্ত কোন আলেম জঙ্গীবাদের পক্ষ অবলম্বন করেন নি। আবার বিপক্ষে জনমত গঠনেও তাদের কোন ভূমিকা দেখা যায় না। আবার আমাদের শিক্ষা ব্যবস্থায়ও ধর্মকে একটি সাধারণ বিষয় করে রাখা হয়েছে যেখান থেকে একজন শিক্ষার্থী অনেকগুলি প্রশ্ন নিয়ে বের হচ্ছে। প্রশ্নের উত্তরগুলি জেনে বের হতে পারছে না।

আমার কাছে হাস্যকর মনে হয় যখন দেখি এ দেশের নিতি নির্ধারক গন জঙ্গিবাদ দমনের ব্যাপারে কঠোর মনোভাব দেখালেও যে ধর্মের নামে অধর্মকে আশ্রয় করে ধর্মীয় জঙ্গিবাদের উত্থান সেই ধর্মীয় শিক্ষা দানের ক্ষেত্রে তাদের কোন মাথা ব্যথাই নেই।

যেমনটা তারা করছেন এইডস নিরোধের ক্ষেত্রে। যেখানে নীতি – নৈতিকতা, আদর্শ, আবহমান সংস্কৃতি। বিশেষত ধর্মীয় অনুশাসনই হতে পারে এইডস প্রতিরোধে প্রধান উপায় সেখানে তারা সব রেখে কনডম হাতে নিয়ে ঘুরে বেড়াচ্ছেন।
যেন মশা মারার কয়েল বিক্রির কৌশল হিসেবে মশা উৎপাদনের ব্যবস্থা করা!