ক্যাটেগরিঃ আইন-শৃংখলা

mahmuda
মাননীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী মহোদয় কি এবারও বলবেন যে, “আগে এস পি বাবুল আক্তারের স্ত্রীর কর্মকাণ্ড খতিয়ে দেখতে হইবে!!
জানি তিনি নিশ্চয়ই এটা বলিবেন না। মুখ ফসকে বেড়িয়ে যেতে চাইলেও মুখ চেপে তা আটকাবেন।
দয়া করে তিনি যেন এটাও না বলেন যে, দ্রুতই হত্যাকারীদের ধরা হবে বা আমরা সর্বোচ্চ চেষ্টা করে যাচ্ছি কিংবা এর সাথে অমুক জরিয়ে থাকতে পারে। বরং তিনি যেন দ্রুততর সময়ের মধ্যে হত্যাকারীদের ধরে দৃষ্টান্তমুলক শাস্তি নিশ্চিত করে দেখিয়ে দেন যে, আমরা সত্যিই পারি।
বাংলাদেশে সন্ত্রাসীরা শক্তিশালি নয় তাদের থেকে প্রশাসন অনেক বেশি শক্তিশালী এবং একই সাথে তারা যথেষ্ট আন্তরিকও। নয়ত আমরা এমন সাহসী এস পি বাবুলদের সাহসীকতাপূর্ন কর্মকাণ্ড আর দেখতে পাব না। কেননা এর পরে তারাও হয়ত স্ত্রী সন্তানদের নিরাপত্তাকে বিবেচনায় নিয়ে থেমে যেতে বাধ্য হবেন। আমরা কোন অন্ধকার সুরঙ্গের মধ্যে ঢুকে যেতে চাই না।
মন্ত্রী মহোদয় নিজেও নিশ্চয়ই সেটা চান না।
অতএব মাননীয় মন্ত্রী মহোদয় এবার গৎবাঁধা নিয়মে না চলে আড়মোড়া ভেঙ্গে জেগে উঠুন। আর সেটা যে কি করে করতে হয় তা তো মাননীয় মন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বহুদিন ধরেই দেখিয়ে যাচ্ছেন। শুধু তার পদাঙ্ক অনুসরন করলেই হয়ত অনেক কিছুই পাল্টে যেতে পারে।
দয়া করে আর আমাদের আতঙ্কগ্রস্ত করে তুলবেন না।