ক্যাটেগরিঃ আন্তর্জাতিক

7920west-bengalname-change-800x509
হঠাত করেই পশ্চিমবঙ্গের নাম পালটে বাংলা রাখা হয়েছে। বাংলা তো এই মুহূর্তে একটি বিশ্ব ব্যান্ড । রপ্তানি বাণিজ্যের ক্ষেত্রে বাংলা শব্দটির একটিই মানে আর তা হল বাংলাদেশ। এটা ঠিক যে ময়ূর পুচ্ছ ধারণ করলেই যেমন কাক ময়ূর হয়ে যায় না তেমনি প: বঙ্গ বাংলা নাম ধারণ করলেই বাংলা হয়ে যাবে না। বাংলা ব্র্যান্ডটি বাংলাদেশের। এটা নিঃসন্দেহে বাংলাদেশকেই রিপ্রেজেন্ট করবে, প: বঙ্গকে নয়।
কিন্তু তারপরেও কথা থেকেই যায়। মেড ইন বাংলাদেশ লেখা পণ্যটির পাশেই যদি লেখা থাকে মেড ইন বাংলা তাহলে একজন সাধারণ ক্রেতা বা ভোক্তার কাছে দুয়ের পার্থক্য বোঝাটা একেবারেই অসম্ভব হয়ে যাবে। যদিও ইংরেজি ভার্ষনে নামটি রাখা হয়েছে Bengal তথাপিও ভয়টা থেকেই যায়। এ ধরনের হাইপোথিথিস এর জন্ম হত না। যদি হাজার বছরের পুরনো নামটা রাতারাতি পালটে ফেলার পেছনে যৌক্তিক কোণ ব্যাখ্যা থাকত। যে ব্যাখ্যাটা তারা দাঁর করিয়েছেন, তাকে আমার কাছে অন্তত যুক্তিগ্রাহ্য মনে হয়নি। পশ্চিম বঙ্গের যুক্তিকেই যদি মেনে নেই তাহলে আমরা নিশ্চয়ই খুব শিঘ্রই দেখতে পাব উত্তরখণ্ড, উত্তর প্রদেশ এরাও তাদের নাম সংশোধন করে উত্তর বাদ দিয়ে শুধু খণ্ড বা শুধু প্রদেশ করবে। আমাদের এখন তাহলে সেটাই দেখার অপেক্ষায় থাকতে হবে।

হতে পারে আমরা অনেক বেশী ভেবে ফেলেছি। এতটা সন্দেহ প্রবণ না হওয়াই ভাল। হ্যাঁ আপনার কাছে এমন অনেক যুক্তি থাকতে পারে। আমার কাছে যুক্তি একটাই, আর তা হল। ভারতের মত এত বড় একটা পরাশক্তি যখন প্রতিদ্বন্দ্বী হয় তখন বাংলাদেশের মত ছোট ছোট শক্তিধর দেশগুলোকে অনেক বেশী কৌশলী আর সচেতন থাকাটা একান্তই জরুরী। আর আশঙ্কার কারনটা হল দেশটা ভুটান, মালদ্বীপ, শ্রিলংকা বা বার্মা নয় ভারত।
বাংলা নাম করনের ক্ষেত্রে তাদের একটি সচতু্র পরিকল্পনা থাকতেই পারে। আবার নাও থাকতে পারে। সবাই একভাবে সবকিছু দেখে না। আমি আপনি না হয় একটু বাকা চোখেই তাকালাম। যদি কোণ আশঙ্কা থেকে থাকে সাবধানতা অবলম্বনের সুযোগ তো মিলবে।
বিষয়টাকে একেবারে হালকা ভাবে না নিয়ে বাংলাদেশ রপ্তানি উন্নয়ন ব্যুরো যদি একটু সতর্কতা অবলম্বন করে। যদি বিশ্ব বাজারে বাংলাদেশ ব্র্যান্ডকে আরো শক্তিশালী করার চেষ্টা করে সেটা নিশ্চয়ই দোষের হবে না। সম্ভবত সেটা বরং বাংলাদেশের জন্যই ভাল হবে।

kmgmehadi@gmail.com