ক্যাটেগরিঃ আইন-শৃংখলা

 

আজ কোন রাখ ঢাক না রেখে বলছি (মাননীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী) সাহারা খাতুন শুধু আওয়ামী লীগকে নয় গোটা দেশকেই তার নামের স্বার্থকতা দেখিয়ে ছাড়বেন। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী তাঁর কোন ঋন এর শোধ দিচ্ছেন তা জানিনা। তবে মূল্যটা বড় বেশি চড়া হয়ে গেল। এ দেশে কোন মন্ত্রী কখনো স্বইচ্ছায় পদত্যাগ করবেন তা ভাবার কোন কারন নেই। কারন সে মানসিকতা আজো গড়ে ওঠেনি। আর পদত্যাগ না করা পর্যন্ত আমরা বলতেই পারি তার প্রচ্ছন্ন ইঙ্গিতেই তার পুলিশ বাহিনীর সদস্যরা আজ প্রকাশ্যে গলা চেপে ধরার সাহস পায়। আজ প্রকাশ্যে সাংবাদিক নির্যাতনের মহড়া দেয়। গোপনে বিরোধী দলীয় কর্মকাণ্ডে সহযোগীতা করে। ঠিক একইভাবে বাংলাদেশ পুলিশের শত ত্রুটির মাঝেও যে সুনামটুকু ছিল তাও ধূলিস্যাৎ করেছেন।

সাধারন জনগনের শেষ আশ্রয়স্থল আজ ভয়াবহ প্রশ্নবিদ্ধ। দায়িত্ব পাওয়া যতটা না কঠিন তার থেকে অনেক বেশি কঠিন তা যথাযথভাবে পালন করা। যিনি অক্ষম তাকে টেনে নিয়ে যাওয়া মানে প্রতিষ্ঠানকে অক্ষম করে দেয়া। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী, হতে পারে আপনার হাতে এই দায়িত্ব দেয়ার মত আর কোন যোগ্য নেতা নেই। অথবা তাদের উপর আপনি আস্থা রাখতে পারছেন না। কিন্ত যার উপর দায়িত্ব অর্পন করেছেন তিনি একাই যথেষ্ট আপনার দলকে এবং এ দেশকে সমূহ বিপদের দিকে ঠেলে দিতে। আর সে প্রমান ইতিমধ্যে বারংবার তিনি দিয়েছেন। সাংবাদিক নেতারা তাকে মূল্যায়ন করেছেন ব্যার্থতার দিক থেকে সফল বলে। খুব কি ভূল করেছেন? অন্ধত্ব প্রলয় বন্ধের দাওয়া নয়।