ক্যাটেগরিঃ প্রবাস কথন

ছোট বেলায় ঈদের আগের দিন ঘুম হত না বাসার কারো । আমি যখন এওক্টু বড় হই দায়িত্ব পড়ত ঈদের গরু পাহারা দেবার মত কঠিন এবং আনন্দময় কাজটির । অনায়াসে রাত জাগতাম । পাশের বাড়ির রাসেল , বন্ধু কালাম , সেই সাথে আরো অনেকে মিলে রাত পার করে দিতাম । সময় সবাই কে অনেক দুরে সরিয়ে দিয়েছে । আমাদের বাড়িতে কোরবানীর ঈদ হবে তাতে করে বন্ধুদের মন খারাপ হত না । আর আমার সকল বন্ধু কোরবানী দিত না। আমার মায়ের কাছে আমি যেমন আমার বন্ধুরা ও তেমন ছিল । ঈদের দিনে তাদের প্রতি আমার মমতাময়ী মায়ের ভালোবাসা আর বেড়ে যেত । সেই জন্য মাকে নিয়ে আমার গর্বের শেষ নেই ।

বাবা’কে হারিয়েছি অনেক গুলো বছর । সেই সময় মা আগলিয়ে রেখেছে যক্ষের ধনের মত আমাকে , আমার বোনকে এবং আমার ভাইকে । আমরা বড় হয়েছি , বিশেষ করে আমি । দেশ ছেড়ে আজ দেশের বাইরে পড়ে আছি অনেকটা জীবিকার তাগিদে। দেশে ঈদের আনন্দ শুরু হবে আগামীকাল থেকে।

আজ সৌদি আরবে ঈদ হয়ে গেল । এবছর অনেক লম্বা ছুটি । অফিস বন্ধ তাই কিছুক্ষণ নিজের বাসায় কিছুক্ষণ বন্ধুদের বাসায় ঘুরছি । কোথায় ও মন টিকে না । অফিস খোলা থাকলে ব্যাস্ততা সব ভুলিয়ে রাখে । এখন সব সৃতি মাথা ছাড়া দিয়ে উঠেছে । খুব ভোরে ঘুম থেকে উঠে ঈদের নামাজ পড়ে এলাম । আশে পাশে সকলে বাংলাদেশী কিন্তু পরিচিত নয় তাই তাদের সাথে তেমন কুশল বিনিময় হলনা । সকলে নিজেকে নিয়েই ব্যাস্ত । আবার ফিরে এলাম চারদেয়ালের মাঝে সবাই মিলে ঈদের জন্য তৈরি বিশেষ খাবার খেয়ে বেরিয়ে পড়ল অনেকেই । আমার কোন আত্নিয় স্বজন নেই এখানে তাই বন্ধুরা অনুরোধ করলে ও গেলাম না কোথাও । একাকী রুমে বসে নেট খুলে বসলাম । মাকে ফোন করলাম । সবাই ব্যাস্ত শুধু ব্যাস্ত নই আমি । রঙ্গিন ঈদ রঙহীন লাগে আমার কাছে ।

বিঃদ্রঃএই লেখাটি মুলত আত্নকথন , জানিনা এটি প্রকাশ হবে কিনা , আর প্রকাশ হলে ও কেউ কিছু মনে করবেন না । সকল কে ঈদুল আযহার শুভেচ্ছা । ঈদ মোবারক ।