ক্যাটেগরিঃ নাগরিক সমস্যা

 

এই ভোগান্তি সাধারন থেকে মধ্যবিত্ত সকলের । বছরের শেষ দিকে সরকার আরো একবার তেলের মুল্য বৃদ্ধি করেছে। দাম বেড়ে বর্তমানে জ্বালানি তেলের নতুন মুল্য হচ্ছে ডিজেল ও কেরোসিনের দাম হবে লিটারপ্রতি ৬১ টাকা, অকটেন ৯৪ টাকা, পেট্রল ৯১ টাকা এবং ফার্নেস অয়েলের দাম হবে ৬০ টাকা। গত নভেম্বর মাসে সরকার সর্বশেষ তেলের মুল্য বৃদ্ধি করেছিল ।

তেলের মুল্য বাড়লে সবকিছুর মুল্যের উপর চরম প্রভাব পড়ে । সাধারন এবং নিম্ন আয়ের মানুষ গুলো তখন বেঁচেথাকার জন্য হিমশীম খেতে হয় । কিন্তু জ্বালানি তেলের মুল্য বৃদ্ধিতে সরকারের খোড়া যুক্তিতে জনগন তথা সাধারন মানুষ এখন আর তৃপ্ত নয় । সরকার বলছেন -গত ২০১০-১১ অর্থবছরে জ্বালানি তেল আমদানিতে বিপিসির লোকসান হয়েছে আট হাজার ১৯৮ কোটি ২৪ লাখ টাকা। আন্তর্জাতিক বাজারে জ্বালানি তেলের বর্তমান মূল্য অব্যাহত থাকলে গতকালের দাম বাড়ানোর পরও চলতি অর্থবছরে জ্বালানি তেলের খাতে প্রায় ১০ হাজার কোটি টাকা ভর্তুকির প্রয়োজন হবে।

অর্থাৎ তেলের এই মূল্যবৃদ্ধিই শেষ নয় । আগামি বছরে আর ও কয়েকদফা তেলের দাম বৃদ্ধির সম্ভাবনা আছে । এটাকে মানুষ এখন আর আতংক না বলে মহাআতংক হিসাবে ধরে নিচ্ছে । একেক বার তেলের মুল্য বৃদ্ধি পেলে সবচেয়ে বেশী সাধারন মানুষ ক্ষতিগ্রস্থ হয় , সরকার সেই বিষয় জানেন কিন্তু মানেন বলে আমার মনে হয় না । মাঝে মাঝে অনেক সন্মানীত মন্ত্রী মহোদয় বলেন দেশ এখন এগিয়ে নিয়ে গেছি বিগত সরকারের আমলের চেয়ে অনেক বেশী । একথা বর্তমান প্রেক্ষাপটে কতটুকু যুক্তিসঙ্গত।

সময় সময়ের গতিতে চলে । বিপদ আপদ আর সুখ কখন ও চিরস্থায়ী হয় না মানুষের জীবনে । সুখের কথা মানুষ অতি দ্রুত ভুলে যায় , কিন্তু দুঃখের কথা মনে থাকে অনেক দিন । পুরানো ক্ষতের মত শুকিয়ে গেলে ও এর দাগ রয়ে যায় । মানুষের মনে কষ্টের যে দাগ একবার বসে যায় তা দূর করা অনেক কষ্টের । দুই বছর পর আসছে নির্বাচন । নির্বাচনের ব্যাপারে আজো কোন সিদ্ধান্ত হয়নি । নির্বাচন সময় মত অনুষ্ঠিত হবে কিনা সেই বিষয়ে সন্দেহ দানা বাঁধতে শুরু করেছে মানুষের মনে । এই দেশের মানুষ আর কোন ওয়ান ইলেভেন দেখতে চায়না ।

জ্বালানি তেলের বারবার মূল্যবৃদ্ধি সরকারের উপর জনগনের নেতিবাচক প্রভাব পড়বে । জন আন্দোলন একসময় জনরোষে রুপান্তর হয়ে গেলে সেটাকে সামাল দেওয়ার মত সরকারের সামর্থ্য এখন আর নেই । বার বার জ্বালানি তেলের মুল্য বৃদ্ধির পূর্বে এসব নিয়ে ভাবা উচিত সরকারের নীতি নির্ধারকদের । না হলে চোর পালালে বুদ্ধি বাড়িয়ে কতটুকু লাভ হবে এই সরকার , সেই প্রশ্ন থেকেই যায় ।