ক্যাটেগরিঃ নাগরিক আলাপ

 

দেশ যখন এগিয়ে যায়, কিছু লোক তার পিছু হাটে। যেমন থাকে সিনেমার ভিলেন, ঠিক তেমনিই। কিন্ত ভিলেন পরিনতি হয় মর্মান্তিক, ভয়াবহ। হয়তো সবাইর জানার কথা। আমি বলছি তার কথা। যিনি দেশের মান মর্যাদার দিকে খেয়াল না করে, ব্যক্তি স্বার্থ হাসিলের উদ্দোশ্যে বিমানবন্দর-দখল করে সাধারণ যাত্রীদের ঘন্টার পর ঘন্টা কষ্ট দিয়েছেন, বিদেশী প্রচার মাধ্যমের হেডলাইন হয়েছেন। আতন্ক ছড়িয়েছেন সবার মাঝে? সাধারণ যাত্রীরা–অপেক্ষার পর অপেক্ষা করে, ভাঙ্গচুর করেছেন–? কিন্ত কেন তিনি এ কাজ করলেন? তাকে তো ভাগ্যবানই বলতে হয়। আবার ভাবতে ও কষ্ট হয়, বঙ্গ বন্ধু শেখ মুজিবর রহমানের সোনার বাংলায় একি হরিখেলা চলছে অবিরাম?

কিন্ত কোথায় থেকে পেলেন উনি এই শক্তি?
কে আছেন তার পিছে?
কি তার পরিচয় ?
কতটুকু বিবেক জাগ্রত আছে ঐ তথাকথিত শ্রমিক নেতার?
তিনি কি কোন এজেন্ট দ্বারা পরিচালিত না কি?
আইন শৃঙ্খলা বাহিনী কি এতই দুর্বল যে তাকে আইনের আওতায় আনতে পারবে না?
উনি যদি বাংলাদেশী হন, তবে কেন একটি আন্তজার্তিক বিমান বন্দর শ্রমিক ধর্মঘটের নামে সুনাম ক্ষুন্ন করবে?
যেখানে ক্ষমতাশীন সরকার সুনামের জন্য মরিয়া হয়ে কাজ করছেন,,দূনীতির বিরুদ্ধে লড়াই করছেন? এটা কি দূনীতির আওতায় পড়ে না ?
দুই মন্ত্রি তার দারত্ব—যেমনটা হয়েছিল চট্রগ্রাম বন্দর নিয়ে? কিন্ত কেন ?
এর কি কোন পরিবর্তন নেই ? পরিবর্তন হবে না সোনার বাংলার? পরিবর্তন হবে না বাংলার সাধারণ মানুষের ?