ক্যাটেগরিঃ ধর্ম বিষয়ক

আস্তিকতা এবং নাস্তিকতা নিয়ে সবচেয়ে চমৎকার উক্তিটি করেছেন ফ্রেডরিক নিটসে।
তিনি প্রশ্ন করেছেন,
“মানুষ কি ঈশ্বরের ভুলে সৃষ্ট, নাকি ঈশ্বর মানুষের ভুলে সৃষ্ট?”

উড এলেনের বক্তব্যটিও চমৎকার। তিনি বলেছেন,
“তোমাদের কাছে আমি নাস্তিক, কিন্তু ঈশ্বরের কাছে আমি শুধু একজন অন্ধ বিশ্বাসের বিরুদ্ধতাকারী।”

আমেরকিার বিখ্যাত সাহিত্যি কুট ভনেগার্ট বলেছেন,
“পরকালে বিশ্বাস থাকলে ইহকালে কখনই তুমি মানবিক হতে পারবে না।”

ফরাসী দার্শনিক ভলতেয়ার বলেছেন,
“যারা তোমাকে দিয়ে অযৌক্তিক কিছু বিশ্বাস করায়, তারা তোমাকে দিয়ে একইসাথে মন্দ কিছুও করায়।”

শক্ত কথাটা বলেছেন বৈজ্ঞানিক কল্পকাহিনী লেখক আইজাক আসিমভ,
“আমি তোমাকে নাস্তিক হতে বলি না, বাইবেলটা ভাল করে পড়ো, ওটিই তোমাকে নাস্তিক বানায়।”

আমরা সবচেয়ে ভাল লাগে ফরাসী দার্শনিক আলবেয়ার কামুর উক্তিটি, দীর্ঘদিন ধরে এরকম একটি বক্তব্যই আমি খোঁজ করেছি। তিনি বলেছেন,
“আমি ঈশ্বর বিশ্বাস করি না, তাই বলে আমি নাস্তিকও নই।”

মার্ক টোয়েনের কথাটা শুনবেন? বাইবেল নিয়ে ভয়ঙ্কর উক্তি আছে তাঁর। তিনি বলেছেন,
“বাইবেলে অনেক মহৎ কবিতা আছে, কিছু নৈতিক শিক্ষা আছে; তবে সবচেয়ে বেশি আছে অসংলগ্ন কথাবার্তা এবং হাজার হাজার মিথ্যা কথা।”

ফরাসী সাহিত্যিক এমিলি জোলার কথাটি দিয়ে শেষ করি-
“মানব সভ্যতা কোনদিন পূর্ণতা পাবে না যতদিন না চার্চের শেষ পাথরটি শেষ পাদ্রীর মাথায় পড়ছে।”