ক্যাটেগরিঃ প্রশাসনিক, ফিচার পোস্ট আর্কাইভ

 

নিচের তিনটি ছবির প্রথম দুটি ছবি প্রায় একই সময়ে তোলা। প্রথম দুটি ছবি প্রাইভেট কারের, এরপরের ছবিটি ঢাকা শহরের অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ যানবাহন ‘লেগুনার’ (কার্জন হল সংলগ্ন রাস্তা থেকে ছবি তিনটি তোলা)। দেখা যাচ্ছে, প্রাইভেট গাড়ি দুটির প্রথমটিতে একজন যাত্রী আছে, দ্বিতীয়টিতে কোনো যাত্রী নেই। বেশিরভাগ সময়ই প্রাইভেট গাড়িতে একজন যাত্রী থাকে বা কোনো যাত্রী থাকে না। অপরদিকে লেগুনা নামক গাড়িটিতে যাত্রী রয়েছে ১৪জন (সামনে ড্রাইভারের পাশে দুজন, পিছনে ৬+৬ = ১২জন)।

 

প্রাইভেট গাড়ি-১

 

প্রাইভেট গাড়ি-২

একটি প্রাইভেট গাড়ি জায়গা নেয় যে পরিমাণ সে পরিমাণ জায়গা নিয়ে যে গাড়িগুলো ঢাকা শহরে চলে সেগুলো যাত্রী পরিবহন করে ১৪জন। কোনো কোনো ক্ষেত্রে আরো বেশি, অফিশ টাইমে অনেক যাত্রী পাদানিতেও দাঁড়িয়ে যায়।

Over Population

জনবহুল এ দেশে চাহিদার সাথে তাল রেখে গাড়ি বাড়ে না, আবার রাস্তা যে পরিমাণ আছে তাতে গাড়ি বাড়াতে গেলে দুর্ঘটনার সংখ্যা বাড়বে। রাস্তা বাড়াতে গেলে কৃষি জমি কমবে। ঢাকা শহরে এ সমস্যা আরো প্রকট, বর্তমানে এমন অবস্থা হয়েছে তাতে মনে হয় ঢাকার জনসংখ্যা না কমালে কোনোভাবেই জ্যাম কমবে না।

এ অবস্থায় প্রাইভেট গাড়িগুলো সমস্যা অনেক বাড়িয়ে দেয়। প্রাইভেট গাড়িগুলো রাস্তায় প্রতিদিন কয়েক চক্কর দেয়। পরিবারের ‘প্রধান’ অফিশে যায়, এরপর গাড়িটি খালি ফিরে এসে ছেলে-মেয়েদের নিয়ে স্কুলে যায়, আবার খালি ফিরে আসে।

এরপর স্কুল থেকে বাচ্চাদের আনতে যায়, অফিশ থেকে প্রধানকে আনতে যায়, ফাঁকে আবার শপিং বা আত্মীয় স্বজন আনা নেওয়ার ব্যাপারও থাকে। অর্থাৎ গাড়িটি প্রায় সারাদিন রাস্তায় থাকে। সরকারি গাড়ি বা বেসরকারি গাড়ি -এ বাস্তবতা উভয় ক্ষেত্রে।

একটু খেয়াল করলেই দেখা যাবে, জ্যামের ছবি তুললে দেখবেন, সেখানে যথেষ্ট সংখ্যক প্রাইভেট গাড়ি রয়েছে। বিশেষ করে মিরপুর রোডে (নিউমার্কেট থেকে যে রোডটি মিরপুরের দিকে গিয়েছে। সেখানে এ অবস্থা এক কথায় ভয়াবহ।

42_Traffice+Jam+Kakoli_07062016_0003

সমাধান কী? যেহেতু প্রাইভেট গাড়ি কেনার ওপর নিষেধাজ্ঞা আরোপ করা সম্ভব নয়, আবার গাড়ির মালিক পথে কয়বার গাড়ি বের করবে তাও বেধে দেওয়া সম্ভব নয়, তাই সমাধান খুঁজতে হবে কিছু আইনের মধ্য দিয়ে। যা করা যেতে পারে–

১। কড়াকড়ি রোড ট্যাক্স আরোপ করা যেতে পারে;

২। বাৎসরিক ট্যাক্স বাড়ানো যেতে পারে;

৩। ব্যস্ত রাস্তাগুলোতে নির্দিষ্ট সময় বেধে দিয়ে প্রাইভেট কারের চলাচল নিষিদ্ধ করা যেতে পারে, যেমন রিক্সার চলাচল নিষিদ্ধ রয়েছে;

৪। রাস্তায় কোনো প্রাইভেট গাড়ি পার্ক করলে (তা যতটুক সময়ের জন্যেই হোক) উচ্চ হারে জরিমানা আরোপ করা যেতে পারে;

৫। সরকারি গাড়ি সরকারি কাজেই শুধু ব্যবহার করতে হবে, এ আইনটি  যথাযথভাবে প্রয়োগ করতে হবে।

ঢাকা শহরে বাসা ভাড়া এবং অফিস বাড়ার সাথে রাস্তার মূল্যটিও নির্ধারণ করতে হবে। রাস্তাটি কে কতটুকু ব্যবহার করছে তা হিসেব করতে হবে। একই মাপের একটি গাড়ি (যেমন, ‘লেগুনা’) চলে ১৪জন যাত্রী নিয়ে, প্রাইভেট কার চলে একজন যাত্রী নিয়ে বা খালি, তাই এটি কোনোভাবেই যৌক্তিক হয় না।

যেখানে জনবহুল এ দেশে সমাধান খুঁজতে হবে ডাবল ডেকারসহ অন্যান্য পাবলিক বাসের সংখ্যা বাড়িয়ে সেখানে প্রাইভেট কারের সংখ্যা দিন দিন বেড়েই চলছে। যেনতেন কাজেও আছে বলে তারা প্রাইভেট কার নিয়ে বের হয়। যেহেতু চালকের বেতন মাসিক হিসেবে হয়, তাই গাড়িটি তারা যথাসম্ভব ব্যবহার করতে চায় হয়ত! একজন চালকের সাথে কথা বলে এরকমটি জানতে পেরেছি।

 

# প্রথম ছবি তিনটি আমার নিজের তোলা, শেষ ছবিটি bdnews24.com থেকে নেওয়া।