ক্যাটেগরিঃ নাগরিক মত-অমত

যখন সব কিছুই উল্টো পথে চলে, তখন কোনো কিছু সোজা পথে চলতে থাকলে তা বেমানানই মনে হয় । সমাজের সমাজ ব্যবস্থাই যেখানে উল্টো পথে চলে, সেখানে ব্যক্তি সোজা পথে চলতে গেলে উল্টো স্রোতে ভাসার মত অবস্থা হয় । এমন অবস্থায় সমাজের বাইরে চলে গেলে তো কোনো সমাধান হবে না । সমাজে থেকে সব কিছু মেনে নিতে হবে না হয় না হয় মানিয়ে নিতে হবে । তারপর সমাজে থেকেই সমাজের জন্য ভালো কিছু করার চেষ্টা করতে হবে । এক দিনে সমাজ বদলানো যায় না ।

যখন আপনি সরকারী কর্মকর্তা, গুরুত্বপূর্ণ দায়িত্বে আছেন । দায়িত্ব গ্রহণের আগে অসৎ পথে চলার কথা চিন্তাই করেননি, এখনও করেন না । এমতাবস্থায় সৎ ভাবে কাজ করা সম্ভব নয় ভেবে চাকরী ছেড়ে দিবেন কিংবা চাকরীতে যোগদান করবেন না বলে ভাবছেন । আচ্ছা চাকরী থেকে নিজেকে সরিয়ে নিলেই কি সব সমস্যার সমাধান হয়ে যাবে ? আপনি সরে গেলে কেউ না কেউ আপনার জায়গায় আসবে । আর সে যদি অসৎ পথকেই আদর্শ মনে করে, তাহলে তার হাতে দায়িত্ব গেলে অবস্থাটা কেমন হবে একবার ভেবেছেন ?

ভালো কিছু করতে হলে বাইরে থেকে নয়, সমস্যার মাঝে থেকেই করতে হয় । আপনি হয়তোবা প্রচলিত ব্যবস্থায় শতভাগ নিয়ম মেনে চলতে পারবেন না । কিন্তু, কিছুটা হলেও তো পারবেন । এটাই বা কম কিসের ?

অনিয়ম আর দুর্নীতির কাছে প্রচলিত ব্যবস্থা জিম্মি হয়ে গেছে । এজন্য সবাই কম বেশি অনিয়ম অথবা দুর্নীতির সাথে জড়িত । কিন্তু, সবাই তো আর অসৎ নয় । অনেকেই আছেন বাধ্য হয়ে অনিয়ম করেন, আবার অনেকেই অনুকূল পরিবেশ পান না বলে অনিয়ম করেন । প্রচলিত ব্যবস্থা পচে গেলেও সবার অন্তর পচেনি । তাঁরা একটু সমর্থন পেলেই সততার সাথে এগিয়ে যেতে পারবেন । তাঁদের সাথী হিসেবে আপনাকে বড্ড প্রয়োজন !

আপনি যখন একজন সৎ পুলিশ কর্মকর্তা, আপনার অধস্তন বিশ জন সহকর্মীর মধ্যে পাঁচ জন হলেও আপনাকে দেখে অনুপ্রেরণা পাবে । আপনি হবেন তাঁদের আইকন । আপনার চারপাশে একটি পরিচ্ছন্ন পরিবেশ সৃষ্টি হবে ।

আপনি প্রশাসন, কাস্টমস, ব্যাংক কর্মকর্তা অথবা অন্য কোনো সরকারী উচ্চ পদস্থ কর্মকর্তা । গুরুত্বপূর্ণ দায়িত্ব পালনের সময় আপনি আপনার কর্মক্ষেত্রকে গড়ে তুলতে পারেন একটি আদর্শ প্রতিষ্ঠান হিসেবে । আপনার দিকেই তাকিয়ে আছে অসংখ্য মানুষ । আপনার সততা দেখে তাঁরা নিজেদের মনের কোনে লুকায়িত সততার স্বপ্নকে প্রতিষ্ঠা করতে সাহস পাবেন ।

আপনি, হ্যাঁ আপনি, আপনিই পারেন সুস্থ পরিবেশ তৈরি করতে । আপনাকে দেখে তরুণ প্রজন্ম দেশপ্রেমে উদ্বুদ্ধ হবে । তখন সবাই ব্যক্তি স্বার্থ না দেখে রাষ্ট্রীয় স্বার্থ দেখবে ।

 

দর্শন বিভাগ, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ।

ফেইসবুক- https://www.facebook.com/tutul.islam.54