ক্যাটেগরিঃ গণমাধ্যম, ব্লগ সংকলন: সাগর-রুনি হত্যাকাণ্ড

বাংলাদেশ প্রতিদিনে আজ যে খবরটি প্রকাশিত হয়েছে তা সম্পূর্ণ উদ্দেশ্যমূলক। শেখ মহিউদ্দিন আহমেদ কে হেয় করার জন্য এই গুজব ছড়ানো হচ্ছে। তিনি কোন ফ্রিডম পার্টির নেতা ছিলেন না , এই লিঙ্কে তার পরিচয় পাওয়া যাবে। তিনি ২০০৫-এ দেশ ছেড়েছেন । সে সময় তৎকালীন সরকার তাকে মিথ্যা মামলায় জড়ায় এবং ক্রস ফায়ারে নিয়ে যায়। কয়েকজন সেনা কর্মকর্তা তাঁকে সাহায্য করায় তিনি নতুন করে প্রাণ ফিরে পান। এই সংবাদে বলা হয়েছে তিনি সাগর-রুনির হত্যা রহস্যের ব্যাপারে ফেসবুকে প্রচারণাকারী একথা সত্য নয় কারণ তাঁর আগে অন্যেরা ঐ ব্যাপারে প্রচারণা করেছে । তিনি ছবিটি শেয়ার করেছেন কয়েক হাজার শেয়ারকারীর ন্যায়। একজন সচেতন মানুষ হিসেবে এই হত্যাণ্ডের প্রতিবাদ করা কি অন্যায়?

উপরন্তু গত ৪ঠা মার্চ এটিএন বাংলার চেয়ারম্যান তাঁকে ফোন করে ভয়ভীতি দেখিয়েছেন। সর্বপরি এই হত্যাকাণ্ডের বিচার দাবীসহ শেখ মহিউদ্দিনের বিরুদ্ধে আনিত অভিযোগের তীব্র প্রতিবাদ জানাচ্ছি।

[লিংক]

বিপ্লবী শেখ মহিউদদিন আহমেদ কে এদেশের নষ্ট রাজনীতিকরা নিশ্চিহ্ন করার পাঁয়তারা করে চলেছে এখনো। তবে এদেশে কে আর মাথা তুলে দাঁড়াবে নির্ভীক চিত্তে? আমি দাঁড়াবো । শেখ মহিউদ্দিন কে ফিরিয়ে আনার দায় আমার…আমাদের।