ক্যাটেগরিঃ মুক্তমঞ্চ

ছোটবেলায় দেখতাম কেউ যদি বাড়ির আসে পাশে সাপ দেখতে পেত সে তখন মুখে সাপ বলতো না ,শুধু ইশারা দিয়ে বলতো ‘লাঠি নিয়ে আয়’ তখন বুঝতাম না ,পরে তিনি বলতেন সাপ কে দেখে যে সাপ বলবে এবং ওই সাপকে যদি না মারা হয় তাহলে ওকেই সবার আগে কামড়াবে ,তাই ইশারায় কাজ সারতে হবে বিষয়টা এখনো মনে হলে চরম হাসি পায়

সময় অনেক বদলে গেলেও আজও সাপের মতো কিছু  বিষয় আছে যা আমি, আপনি সচরাচর দেখতে পাই কিন্তু বলার মতো সাহস হারিয়ে ফেলতেছি, কারণ দেশের  সাধারণ মানুষদের ভেতর ওই সাপের ভয় এখন চরম, পত্রিকার তত্থ বলে আমাদের অর্থমন্ত্রী ঘুষকে (সাপ)  ঘুষ না বলে বলেন স্পিড মানি, কারণ তিনি যদি বলেন কোনো কোনো  আমলারা ঘুষে আসক্ত তাহলে তিনি মন্ত্রণালয় চালাতে পারবেন না . স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী জানেন তার অধীনস্ত বাহিনীর কর্ম- অপকর্মের (সাপ) মাত্রা কতদূর, শিক্ষামন্ত্রী কোনো ভাবেই প্রশ্ন ফাঁস (সাপ) বন্ধ করতে পারে নাই, উপরন্তু যারা প্রশ্ন পত্র ফাঁসের কথা বলবে তাকে ধরে চোদ্দশিকে ভরবে ভয় দেখিয়ে সাধারন মানুষের মুখে সীসা মেরে দিচ্ছে, প্রতিদিন অসংখ্য মানুষ গুম হয়ে যাচ্ছে, শৃঙ্খলা বাহিনীর পরিচয়ে বাড়ি থেকে ধরে নিয়ে যাচ্ছে পরে তার কোনো খোঁজ কেউ জানে না সাপের ভয় এখন চরম।

তথ্য মন্ত্রী হাসানুল হক ইনু  স্থানীয় নেতা ও মন্ত্রীদের ব্যাপারে সরকারি বরাদ্দ মেরে খাওয়ার কথা বলে সংসদেও গালমন্দ খেয়েছেন , আজ দেখলাম চট্টগ্রামের মেয়র সাহেব সচিবদের ছোট একটা আবদারের কথা ফাঁস করে দেওয়ায় জানিনা কি পরিমান গালমন্দ খাবেন। আমাদের সংবিধান অনুযায়ী দেশ চালাবে  জনপ্রতিনিধি কিন্তু বর্তমানে জনপ্রতিনিধিরা দেশ চালায় কি? নাকি দেশ চালায় আমলারা?  এটা দৃশ্যমান যে আমলাদের চাকরি যায় না বলেই জনপ্রতিনিধিরা নিরুপায়, সাধারণ মানুষও নিরুপায়, সরকারি বরাদ্দের একশত ভাগের দেশের দৃশ্যমান উন্নয়ন হয় দশ ভাগ, তাহলে বাকি নব্বই ভাগ? ভেবে দেখা দরকার, আরো একবার মনে হয় ভেবে দেখা দরকার।