ক্যাটেগরিঃ রাজনীতি

বাংলাদেশ একটি স্বাধীন ও সার্বভৌম দেশ ত্রিশ লক্ষ শহীদের রক্ত ও আড়াই লক্ষ মা বোনের ইজ্জতের  মূল্যে অর্জিত আমরা স্বাধীন পেয়েছিলাম আমরা একটি স্বাধীন রাষ্ট্র । আমাদের  মহান মুক্তিযুদ্ধের মূল  চেতনা ই ছিল গনতন্ত্র, ধর্মনিরপেক্ষতা ,জাতীয়তাবাদ  ইত্যাদি । আমাদের স্বাধীনতার তেতল্লিশ বছর পর ও আমাদের স্বাধীনতা ও আমাদের মুক্তিযুদ্ধের চেতনা পুরোপুরি  অর্থহীন অসার রুপেই পরে আছে । যদি বলি আমাদের দেশের  গনতন্ত্রের কথা গনতন্ত্র কি এটা কম বেশি সবারই জানা আছে । গনতন্ত্রের মূল মন্ত্র ই হলো বাকস্বাধীনতা তথা মুক্ত চিন্তার প্রকাশের খোলা মাঠ । কিন্তু আমাদের দেশের বাস্তবতা সত্যিকার গনতন্ত্রের সপুর্ণ বিপরীত । স্বাধীনতার তেতল্লিশ বছর পর ও আমরা আমাদের বাকস্বাধীনতা তথা মুক্ত চিন্তার প্রকাশের দ্বার পুরোপুরি বন্ধ । আমাদের দেশে মুক্তচিন্তা বা মত প্রকাশের জন্য আজো মুক্ত চিন্তার ধারক ও বাহকদের পদে পদে লান্হনা ও ব্যন্হনার শিকার হতে হয় । তাই আজ আমাদের দেশে গনতন্ত্র আজ সম্পুর্ণ ভাবে অর্থ হীন । একটি রাষ্ট্রের গনতন্ত্র তখন ই  অর্থহীন হয় যখন মানুষ তার বাক স্বাধীনতা বা মুক্ত মত প্রকাশের অধিকার নিয়ে সিনিবিনি খেলা হয় । বর্তমান ডিজিটাল যুগে তথ্য প্রযুক্তি আজ প্রায় সবার ই হাতের নাগালে বর্তমান সাইবার যুগে মানুষের মুক্ত চিন্তা ও মত প্রকাশের বিভিন্ন মাধ্যম ই এখন হাতের মুঠোয় । ব্লগি ও টুইটার,  ফেইস বুক তথা বিভিন্ন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম গুলির মাধ্যমে আজ সারা দুনিয়ার মানুষ তাদের বাকস্বাধীনতা তথা মুক্ত চিন্তা প্রকাশ করছে ।আমাদের বাংলাদেশীদের জন্য ও তার ব্যতিক্রম ঘটেনি । কিন্তু আমাদের বাকস্বাধীনতা তথা মুক্ত চিন্তা প্রকাশের বড় অন্তরায় হলো ধর্মীয় উগ্র মৌলবাদী ও তার সাথে সরকার তথা রাষ্ট্রযন্ত্র । প্রথমেই বলতে চাই ধর্মীয় উগ্র মৌলবাদী আমাদের স্বাধীনতা তথা মুক্ত মত প্রকাশকে কিভাবে বাধা গ্রস্হ করেছে । আমাদের দেশের নব্বই শতাংশ মানুষ মুসলমান ধর্মের অনুসারী হওয়ায় এখনে মুসলিম ধর্মীয় উগ্র মৌলবাদীরা একটি বিশেষ সুবিধা নিয়ে আছে । এখানে শক্ত খুটি গেড়ে মুসলিম ধর্মীয় উগ্র মৌলবাদীরা দানবের ন্যায় বসে আছে   তাই তাদের  মতের বিপরীতে যদি কোন ভিন্ন মত প্রকাশ করা হয় তখনি তারা সমগ্র দেশকে উল্টা পাল্টা করে দেয়  ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাত দোহায় দিয়ে সে ক্ষেত্রে মত প্রকাশ কারির জীবন হয়ে উঠে দুর্বিশহ নিজের স্বাধীন চিন্তা চেতনা ও মত প্রকাশের জন্য হয়তো তাকে ধর্মীয় উগ্র মৌলবাদীদের হাতে জীবন দিতে হয় না হয় জীবন রক্ষার জন্য মাতা ও মাতৃ ভূমির মায়া ত্যাগ করে নির্বাসিত জীবন জাপন করতে হয় । এর অজস্র উদাহরন বাংলাদেশে আছে । তাই আমাদের স্বাধীন দেশে নিজের স্বাধীন মত প্রকাশের অন্যতম বাধা ইসলাম ধর্মীয় উগ্র মৌলবাদ । আমাদের সরকার তথা রাষ্ট্রযন্ত্র সব সময় ই মৌলবাদীদের পক্ষে অবস্হান নিতে মোটে ও কুন্ঠাবোধ করে নি সব সময় ই সরকার তথা রাষ্ট্রযন্ত্র মৌলবাদীদের কোন না কোন ভাবে পৃষ্ঠপোষক হিসেবে কাজ করে আসছে । তাই মৌলবাদীদের স্বার্থ রক্ষা আমাদের মুক্ত চিন্তা তথা বাক স্বাধীনতা প্রকাশের পথ প্রায় রুদ্ধ । তাই আমাদের  মুক্ত চিন্তা তথা বাক স্বাধীনতা প্রকাশের ক্ষেত্রে  সব সময় ই সরকারের বৈরি মন ভাব তাই সরকার বিভিন্ন কালো আইন করে মুক্ত চিন্তা তথা বাক স্বাধীনতা প্রকাশের পথ প্রায় বন্ধ করে রাখে তাই বর্তমান সময়ের তেমনি একটি কালো আইন হলো তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি আইন সেই সাথে আছে সম্প্রচার নীতিমালা । বর্তমান ‘তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি আইন সম্পুর্ণ ভাবে আমাদের  মুক্তচিন্তার অন্তরায় ।  ফেসবুক, ইন্টারনেট ও ব্লগে মাধ্যমে আমাদের দেশের তরুন প্রজন্ম স্বাধীনভাবে লেখালেখির মাধ্যমে মত প্রকাশ করেছে কিন্ত এই আইন টি মুক্ত মত প্রকাশের ক্ষেত্রে সম্পুর্ণ অন্তরায় আমাদের সংবিধানের ৩৯ ধারায় মতপ্রকাশের স্বাধীনতা ও নিশ্চয়তা দেওয়া হয়েছে অথচ তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি আইনের ৫৭ ধরায় সেই অধিকারকে সম্পুর্ন ভাবে বাধাগ্রস্হ করা হয়েছে । তাই আমাদের বাংলাদেশে স্বাধীন ও মুক্ত মত প্রকাশের ক্ষেত্রে একদিকে যেমন রয়েছে উগ্র ধর্মীয় মৌলবাদীদের খন্জর অপরদিকে ঝুলছে রাষ্ট্রযন্ত্র তথা প্রশাসনের হাত করা অর্থাৎ জেল জুলুম ।