ক্যাটেগরিঃ আইন-শৃংখলা

 

বাংলাদেশ ক্রমেই উগ্র ধর্মীয় জঙ্গি গোষ্ঠি অভয়রাণ্যতে পরিনত হতে চলছে । উগ্র ধর্মীয় জঙ্গি এখনে এতটাই শক্ত অবস্হানে আছে যে কোন ভাবেই বোধ হয় এদের মুল উৎপাটন করা সম্ভব তো নয় ই বরং অদূর ভবিষ্যতে আমাদের দেশ একটা উগ্র ধর্মীয় জঙ্গি রাষ্ট্রে পরিনত হতে চলছে ।বিশেষ করে আমাদের যে রাজনৈতি দল গুলিই ক্ষমতার আসনে বসেছে তারা তাদের ক্ষমতাকে চিরস্হায়ী করার জন্য উগ্র ধর্মীয় জঙ্গিবাদ কে আশ্রয়-পশ্রয় দিয়ে উগ্র ধর্মীয় জঙ্গিবাদীদের রিষ্ট পুষ্ট করেছে এবং করছে । আর এ আসকারাই ওদের সাহস আজ এত বড় হয়ে গেছে । দীর্ঘ দিন যাবৎ আমাদের দেশে উগ্র ধর্মীয় জঙ্গিদের দ্বারা মুক্তচিন্তা বা মুক্তবিবেকের ধারক ও বাহকেরা আহত বা নিহত হয়ে আসছে যার কোন টার উ সুরাহা সরকার করতে পারে নি বা সরকার সুরাহা করতে ব্যর্থ হয়েছে ।

কবি শামসুর রহমান , ড: হুমায়ুন আজাদ , ব্লগার বাজীব হায়দার কোন টার ই সুরাহা আজ ও হয় নি কালের বির্বতনে সব ফাইলেই ধুলোর স্তপ জমে আছে । ফারাবী সাইফুর রহমান যিনি নাকি দীর্ঘ দিন যাবত বিতর্কিত এক চরিত্রে বিশেষ ভুমিকা পালন করছে কিন্তু সরকার সব জেনে বুজে ও তার বিরুদ্ধে কার্যকরী পদক্ষেপ নিতে ব্যর্থ হয়েছে । ফারাবী সাইফুর রহমান একজন স্ব ঘোষিত খুনি কিন্ত তার পর ও কেন সরকার এবং আইন প্রয়োগ কারি সংস্হা ফারাবী সাইফুর রহমান বিরুদ্ধে যথা যথ ব্যবস্হ্যা নিতে ব্যর্থ কেন ?

ফারাবী গণজাগরণ মঞ্চের কর্মী ব্লগার আহমেদ রাজীব হায়দারের জানাজা পড়ানোয় ইমামকে হত্যার হুমকি দিয়ে গত বছর আলোচনায় আসেন। এরপর পুলিশ তাকে গ্রেপ্তার করে। ফেইসবুক ব্যবহার করে ইমামকে হত্যার হুমকি দেয়ায় তথ্যপ্রযুক্তি আইনে তার বিরুদ্ধে ঢাকার একটি আদালতে অভিযোগ গঠনও করা হয়। হাই কোর্ট থেকে জামিন নিয়ে গত বছরের ২১ অগাস্ট কারাগার থেকে বেরিয়ে আসেন ফারাবী। তার পর ফারাবিরা পাগলা কুকুরের ভুমিকায় অবর্তীন হয়েছে ।

আর ফারাবী সাইফুর রহমান শনিবার লেখক অভিজিৎ রায়ের বই বিক্রি তালিকা থেকে সরিয়ে না নিলে রকমারির কার্যালয়ে আক্রমণ করা হবে বলে ফেইসবুকে হুমকি দেন। আমাদের দেশের সরকার ও পুলিশ বেশ চতুর কোথাকার কে কাকে নিয়ে ফেইসবুকে কি কটুক্তি করলো তাতেই তাকে টেনে হেচরে পুলিশ ধরে এনে জেল জরিমানা করে দিল অথচ অভিজিৎ রায়কে একের পর এক হত্যার হুমকি দিয়ে আসছিল উগ্র ধর্মীয় জঙ্গিরা তাতে সরকরের কোন দৃষ্টি ই ছিল না । আজ বাংলাদেশ মুক্তচিন্তা প্রকাশ সত্যিই মোটে ও নিরাপদ নয় । তার পর ও কি চুপ করে বসে থাকা যাবে না মোটে ও তাই এটা ই শুধু বলবো অভিজিৎ রায়ের শোক কে শক্তিতে পরিনত করতে হবে মার্সিয়া ক্রন্দন নয় শক্ত হাতে ধর্মীয় উগ্রবাদ মৌলবাদ জঙ্গিকে প্রতিহত করতে হবে । আর তা না হলে আমাদের মুক্তি যুদ্ধের মুল চেতনা অসাম্প্রদায়িক বাংলাদেশ শুধুই স্বপ্ন ই থেকে যাবে । আর বাংলাদেশ হয়ে যাবে উগ্র সাম্প্রদায়িক জঙ্গিদের আস্তানা বাংলাদেশ হয়ে যাবে একটা আস্তাকুড় । তাই পরিশেষে মুক্তচিন্তার মুক্তমনের সবার কাছে এটাই দাবি মার্সিয়া ক্রন্দন নয় চাই শক্ত হাতে প্রতিরোধ ।