ক্যাটেগরিঃ চারপাশে

 

কী শক হলেন ? মোটেই সক হবেন না। এটাই হচ্ছে সত্য। ১৯৭৭ সালের ১০ মে জন্ম নেওয়া ক্রিস দীর্ঘ ৩৫ বছর পর জানতে পেরেছেন বাংলাদেশের কোনও এক নৌকার মাঝি ইমাম মিয়া তার বাবা। মায়ের নাম জানা নেই। যেমনটি জানেন না তার অপর ভাইবোনদের সম্পর্কেও। খবরটি প্রচার করেছে ব্রিটেন থেকে প্রকাশিত বাংলা ভাষার অনলাইন পত্রিকা।

আজ থেকে ৩৫ বছর আগে হতভাগ্য এই যুবকের জন্ম হয়েছিল বাংলাদেশের কোনো এক খুপরি ঘরে। জন্মের চার সপ্তাহের মাথায় তার দারিদ্র বাবা তাকে বিক্রি করে দিয়েছিলেন হল্যান্ড প্রবাসী দম্পতির কাছে। সেই থেকে বাংলাদেশের নবজাতক ইমাম মিয়া হয়ে গেছেন ক্রিস ইমাম হুরমান। পত্রিকাটি প্রকাশ করেছে তার আসল বাবা নাসির মিয়া নৌকার মাঝি ছিলেন। সড়ক দুর্ঘটনায় তার এক পা ক্ষতিগ্রস্ত হলে অপর পায়ে ভর দিয়েই রাজধানীর বসিলা, হাজারীবাগ, মনেশ্বর রোড, মোহাম্মদপুর সহ আশপাশের গুদারাঘাটে পারাপার করতেন। তবে ক্রিস ইমামের পাসপোর্টে তার শিশুকালের ঠিকানা রয়েছে মনেশ্বর রোড, মোহাম্মদপুর। ক্রিসের বাবা নাসির মাঝির গ্রামের বাড়ি কোথায় ছিল ক্রিস ইমাম বলতে পারছে না।

পত্রিকাটি আরও বলেছে তার পালক পিতা হল্যান্ডের উইলিয়াম হুরমান ও মা ক্যাটরিনা হুরমান কিছুদিন আগে তাকে এসব তথ্য জানিয়েছেন। হুরমান দম্পতিও চান, ইমাম তার মা-বাবাকে খুঁজে পান। উইলিয়ামের কাছ থেকে ইমাম মিয়া জেনেছেন, নাসির মাঝি যখন দুর্ঘটনার শিকার হন তখন তার সংসারে নেমে আসে ঘোর অন্ধকার। তার অপর দুটি ছেলে-মেয়েকে ভাত দেওয়ার ক্ষমতা নাসিরের পক্ষে একেবারেই ছিল না তখন। স্থানীয় বেবি হোমের মাধ্যমে হুরমান দম্পতি তখন খোঁজ পান নাসির মাঝির। কিছু টাকার বিনিময়ে তখন ছয় সপ্তাহের শিশু ইমাম মিয়াকে বিক্রি করা হয়। আর জন্মের ছয় সপ্তাহের মাথায় বিক্রি হওয়া ইমাম মিয়াকে নিয়ে যাওয়া হয় হুরমানের নিজের বাড়ি হল্যান্ডের জুটেমিয়ার শহরে। সেখানেই ক্রমে ক্রমে বড় হয়ে ওঠেন বাংলাদেশের নাসির মাঝির ছেলে ক্রিস ইমাম নামে।

তারপরে হল্যান্ডে উইলিয়াম হুরমান ও ক্যাটরিনা হুরমান দম্পত্তির নিজেদের ছেলের মত করেই মানুষ হয়েছে অত্যন্ত মেধাবী ক্রিস ইমাম অর্থনীতিতে পিএইচডি শেষ করেছে, বর্তমানে লন্ডনের একটি ব্যাংকের উচ্চপদস্থ কর্মকর্তা হিসেবে কাজ করছেন।

ক্রিস ইমাম বর্তমানে বাংলাদেশে এসেছে সঙ্গে রয়েছে তার বন্ধু অনিতা। খুজে ফিরছে তার নারীর বন্ধন, তার আসল বাবা-মা কে। জানা নেই খুজে পাবে কিনা, তবুও খুঁজছে।

প্রিয় পাঠক-পাঠিকা পাঠক,বাংলাদেশের সব মানুষের কাছে ক্রিস ইমামের আবেদন, কেউ যদি তার মা-বাবা কিংবা ভাইবোনদের খোঁজ পান তাহলে অবশ্যই যোগাযোগ করবেন এসব টেলিফোন নম্বরে। ০১৭২৬১৮৮৬১৫ (জি আর চৌধুরী, ০১৭৭২৯৪৭১৩১ (ইসা), ০১৭১৬ ৩০৮৪৯৪ (বাবু), ০১৭১৪৭৪৯ ৮২৯ (আফজাল)।

এক্স ফাইভ ওয়ান
২৮/১১/২০১২ ইং