ক্যাটেগরিঃ রাজনীতি

 

ঘুণ পোকা কাঠে ধরে কাঠ ধ্বংস করে। আর শয়তান পোকা মানুষ বা জাতিতে প্রবেশ করলে তা ধ্বংস হয়। জানিনা আমরা সত্যিই সেই ধ্বংসের দিকেই এগুচ্ছি কি না। তবে কিছু বলার আগে অবশ্যই বলে রাখা উচিত যে, যারা সৎমা। তাদের সৎ বলে কেন? সৎ মানে তো ভাল। নাকি তাদের কাজে কর্মে অসৎ জিনিসটা ফুটে উঠে বলে তাদেরকে অসম্মানের বালাই দিয়ে সৎমা বলা হয়। যদি তাই হয়ে থাকে তবে আমি একজন সাধারণ মানুষ হিসেবে বলবো, এই সরকার সৎ সরকার।

আমি একজন ছাত্র এবং অবশ্যই খেটে খাওয়া মানুষ। আমার দেহের আহার জোগানোর জন্য প্রতিদিন এক জায়গা থেকে অন্য জায়গায় ছুটতে হয়। কিন্তু আমার সেই দৌড়ের জায়গাটুকু যদি বন্ধ হয়ে যায়, তাহলে আমি কি বাকশাল খেয়ে বাঁচবো? আমার কি কোন সত্তা নেই, নাকি বাকশালের দোহাই দিয়ে সেটিও আমাদের সৎ সরকার কেড়ে নিয়েছে।

সরকার বলেছে বিরোধী দলকে চাপে রাখবে। ভাল কথা। তারা যদি অরাজকতার সৃষ্টি করে তবে চাপে রেখে যদি দেশ সুষ্ঠু ভাবে চালানো যায়, তাতে সমস্যা কি। কিন্তু একের পর এক সরকার যেভাবে মনগড়া মত কাজ করে মানুষের রোষানলে পড়ছে আর তৃনমূল পর্যায় থেকে যেভাবে আন্দোলন শুরু হচ্ছে তাতে করে সরকার কতদিন চাপে রাখবে। আমার কাছে মনে হচ্ছে যে, সরকার দিন দিন উল্টো চাপে পড়ে যাচ্ছে।

সব সরকারের আমলেই কিছু না কিছু ভুল থাকে। কিন্তু এই রকম ঢালাও ভাবে প্রত্যেকটা কাজে দলীয়করণ আর বিচার বিভাগ-শাসন বিভাগ হাতের অঙ্গুলি দিয়ে নিয়ন্ত্রণ করাকে যে যাই বলুক, আমি বলবো সরকার আসলেই অনেক বড় ভুল করছে। কারন মানুষ কত সহ্য করবে। গতকাল তৃনমূল পর্যায় থেকে যেভাবে হুটহাট করে সিদ্ধান্ত আসতে লাগলো, আমার কাছে মনে হয়েছে দেশ কোন বিপ্লবের দিকে যাচ্ছে।
তাই আমি এই সৎ সরকারের প্রতি আকুল আবেদন করছি, আপনারা আপনাদের বিতর্কিত কাজ গুলো থেকে সরে আসুন। সৎ সরকার থেকে সতি সরকার হউন।

মো: ইয়াকুব আলী
১৭.০৫.২০১২