ক্যাটেগরিঃ ব্লগ

১। আজ মঙ্গলবার দুপুরের দিকে ঢাকার নিম্ন আদালত চত্বরের পাশে পুলিশ ক্লাবের ভেতর নিয়ে এক তরুণীর শ্লীলতাহানি করেছে বলে পুলিশের বিরুদ্ধে অভিযোগ উঠেছে।
২। পরে ওই তরুণীকে জোর করে থানায় নিতে চাইলে আইনজীবীরা বাধা দেন। এ সময় এক আইনজীবীসহ ওই তরুণীকে থানায় নিয়ে যায় কোতোয়ালী থানা পুলিশ।
৩। এসময় প্রথম আলোর আদালত প্রতিবেদক প্রশান্ত কর্মকারকে মারধর করে তাঁর কালো কোট ছিনিয়ে নিয়ে যায় পুলিশ।
মূল সংবাদ: প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, দুপুর ১২টার দিকে ওই তরুণী তাঁর বাবা এবং মায়ের সঙ্গে একটি মোটরসাইকেলে করে মুখ্য মহানগর হাকিমের আদালতে থেকে বের হচ্ছিলেন। মোটরসাইকেলটি পথে পুলিশ ক্লাবের সামনে পৌঁছলে পুলিশ এর গতিরোধ করে। পুলিশ মোটরসাইকেলটি চোরাই অভিযোগ করে তরুণীর বাবাকে থানায় নিয়ে যেতে চায়।
তরুণীটি এর প্রতিবাদ করলে একজন পুলিশ সদস্য মেয়েটিকে পেছন থেকে জড়িয়ে ধরে ক্লাবের ভেতরে নিয়ে যায়। সেখানে পুলিশ তাঁর শ্লীলতাহানির চেষ্টা করে।
একপর্যায়ে তরুণী বের হয়ে বিষয়টি আইনজীবীদের জানালে সেখানে জটলা তৈরি হয়। খবর পেয়ে সাংবাদিকেরা আদালত চত্বরে ছুটে আসেন। এসময় পুলিশ আইনজীবীদের লাঠিপেটা শুরু করে।
টেলিভিশন চ্যানেলের ক্যামেরাম্যানরা ওই দৃশ্য ধারণ করতে গেলে কোতোয়ালি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সালাউদ্দিন চিত্কার করে বলতে থাকেন, ভালো করে ভিডিও করেন।
এক পর্যায়ে পুলিশ ওই তরুণী এবং রাজু নামের এক আইনজীবীকে জোর করে পুলিশ ভ্যানে তোলার চেষ্টা করে। রাজু এসময় প্রশান্ত কর্মকারকে জড়িয়ে ধরলে পুলিশ প্রশান্তকে মারধর দরে তাঁর কালো কোট ছিনিয়ে নিয়ে চলে যায়।