ক্যাটেগরিঃ স্যাটায়ার

ভাই,এবার একটা গল্প বলি। গল্পটা অনেকেরই জানা,তারপরও বলি। এক দেশে এক হাড় কিপটে ছিল। তার ছেলের বিয়ে। দই ওয়ালাকে বেশী করে পানি দিয়ে দই সরবরাহ করতে বললেন এবং তাকে এটাও বলা হল যে তোকে মেহমানদের সামনে কিন্তু একটু বকা ঝকা করব তুই মনে কিছু করবি না। তা না হলে মেহমানেরা মনে করবে আমিই দইয়ে বেশী পানি দিতে বলেছি।যথা রীতি মেহমান আসলেন এবং দই পর্বটি এসে হাজির। মেহমানেরা দইয়ে পানি দেখে ভিষণ চিৎকার আরম্ভ করল এবং কিপটে লোকটিও সমান তালে দই ওয়ালাকে বকে যাচ্ছে কিন্তু মেহমানদের উত্তেজনাতো কমেনা। কিপটে পরিস্থতি শান্ত করার জন্য দই ও য়ালাকে কষে একটি থাপ্পর দিল এবং তখনই আসল বিপত্তিটা ঘটল। দই ওয়ালা ক্ষোভে ঘৃণায় মেহমানদের উদ্দেশ্য করে বলতে লাগল যে ভাই সব,আমাকে মালিকই দইয়ে বেশী
পানি দিতে বলেছেন। মেহমানেরা আসল রহস্য বুঝতে পেরে সকলে স্থান ত্যাগ করলেন।

অবশেষে কিপটে দই ওয়ালাকে জিজ্ঞেস করলেন যে,তোমারতো দইয়ে পানি দেওয়ার কথা মেহমানদের বলার কথা নয়,তবে বললে কেন ? আপনারও তো থাপ্পর দেওয়ার কথা নয় তবে কেন থাপ্পর দিলেন? দই ওয়ালার সাফ জবাব। এবার গল্পের মূল রসে আসি। শাসক দলের একজন উদর পন্থী এক নেতা প্রায়ই সরকারের ত্রুটি বিচ্যুতি গুলো সোচ্চার কণ্ঠে সমালোচনা করে বেশ বাহাবা কুড়িয়ে থাকেন কিন্তু সেই শাসক শ্রেনীর কিছু নেতা বিবেকের তাড়নায় যখন যোগাযোগ,নৌ পরিবহন,অর্থ ও বানিজ্য মন্ত্রালয়ের দুর্নীতির ব্যাপারে জোড় প্রতিবাদী হয়ে উঠে তখনই সেই উদর পন্থী নেতা যিনি বিবেকের অভিনয় করে তার আসল রূপটি বেরিয়ে আসে । দলীয় কিছু নেতারা বিবেকের তাড়নায় মন্ত্রীদের পদ ত্যাগ নিশ্চত করার জন্য যুগ পদ বক্তৃতা দিয়ে যাচ্ছিলেন ঠিক সেই মুহূর্ত দই ওয়ালার মত অনাকাঙ্খিত বিপত্তি টি ঘটে। উদর পন্থী সেই বিবেক অভিনেতা দলীয় নেতাদের মন্ত্রীদের পদত্যাগ দাবী থেকে সরে এসে অতিরিক্ত কথা না বলার পরামর্শ দিয়ে দলীয় নেতাদের মুখে কুলুপ এঁটে দিলেন এবং প্রতিবাদে সতর্ক হওয়ার জন্য বললেন,যে কাজটি বরাবর তিনি নিজে করে থাকেন। বর্তমানেও সেই বিবেকের অভিনেতা তার কর্মটি জনতার চোখে ধুলো দিয়ে অনবরত সিদ্ধ হস্তে করে যাচ্ছেন।

ধন্যবাদ।