ক্যাটেগরিঃ জনজীবন

 
Natore-Accident

নানা কারণে Steven Spielberg এর “Saving Private Ryan” সিনেমাটা বিখ্যাত – Spielberg এর জাদুকরী পরিচালনায় দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের ‘D-Day’ এর অসাধারণ বিশ্বাসযোগ্য উপস্থাপন, Spielberg এর দ্বিতীয় অস্কার পাওয়া, অসাধারণ অভিনয় করেও Tom Hanks এর তৃতীয় অস্কার না পাওয়া (“Life is Beautiful” সিনেমায় অবিশ্বাস্য অভিনয় করা আরেক অভিনেতা Roberto Benigni কাছে হেরে যাওয়া – সে আরেক গল্প)।

অনেকদিন পর ওই সিনেমাটার কথা, তার প্লটটার কথা মনে পড়লো কিছুদিন আগে নাটোরে ঘটে যাওয়া দুর্ঘটনার পর। ওই সিনেমাটা গল্প নেয়া হয়েছিল দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের একটা সত্যি ঘটনা থেকে – একই পরিবারের চার ভাই (Niland Brothers) যুদ্ধে গিয়েছিল। হেডকোয়ার্টারে খবর আসে ওদের তিন ভাই যুদ্ধে মারা গেছে। তাই একমাত্র জীবিত ভাইকে যুদ্ধের ফ্রন্ট থেকে ফেরৎ পাঠানো হয় – একটা পরিবারের সব ভাই মারা যাবে এটা মেনে নেয়নি প্রশাসন।

নাটোরের দুর্ঘটনায় হতাহত মানুষদের মধ্যে একই পরিবারের সাতজন আপন ভাই ছিল। এদের মধ্যে মারা গেছে ছয় জন, আরেকজন মারাত্মক আহত অবস্থায় হাসপাতালে। এই দুর্ঘটনার শতভাগ দায় সরকারের। অবশ্য চালক, মালিক সবাইকে বলির পাঁঠা বানানোর চেষ্টা করা হচ্ছে। এই আলোচনায় এখন যাচ্ছি না। এই আহত সব মানুষের পুর্ণ চিকিৎসার দায়িত্ব সরকারের। কিন্তু ছয় সন্তানকে হারানো ওই পরিবারটি কি একটু বেশী মনযোগ পেতে পারতো না তাদের বেঁচে থাকা শেষ ছেলেটিকে বাঁচানোর জন্য? একটু ভাল চিকিৎসার ব্যবস্থা?

“Saving Private Ryan” সিনেমায় দেখা যায় যুদ্ধের জেনারেল Tom Hanks এর নেতৃত্বে দল পাঠায় চার ভাইয়ের মধ্যে একমাত্র বেঁচে থাকা Ryan কে বাঁচিয়ে ফিরিয়ে নিয়ে আসার জন্য। সেই দলের নেতা Tom Hanks নিজের জীবন দিয়ে এই কাজটা সম্পন্ন করে – শেষ জীবিত ভাইকে ফিরিয়ে নিয়ে আসে। এক অসাধারণ মানবিক গল্প!

দুর্ঘটনার দিন রাতে টিভির খবরে দুর্ঘটনার খবর দেখার সময় ওই ভাইদের মৃত্যুর খবরও দেখলাম। কিন্তু কোথাও এটা দেখলাম না, সব আহত মানুষ বা অন্তত ওই সপ্তম ভাইটির কোন উন্নত চিকিৎসার ব্যবস্থা কেউ করছে। অবশ্য আমাদের স্বয়ং প্রধানমন্ত্রী তো এই ঘটনায় শোক প্রকাশ করেছেন! ‘মূল’ কর্তব্য তো পালিত হয়েই গেছে।

একটা চ্যানেলের খবরে ওই ভাইদের একমাত্র বোনটিকেও দেখালো – নিতান্ত দরিদ্র পরিবারের মানুষ। তাই অনুমান করাই যায় বাসের ছাদে চড়ে যাওয়া ওরা আসলে ‘মানুষ’ ছিল না; ছিল ‘মফিজ’। ‘মফিজ’ রা ছয় ভাই একসাথে মরুক বা সাত ভাই, তাতে কী? এই দেশের ‘মফিজ’ দের আর Private Ryan হয়ে ওঠা হয় না, হবেও না কোনদিন।