ক্যাটেগরিঃ ব্লগালোচনা

 

আমার ব্লগিং জীবনের বয়স ৬ মাস হলো। এই ব্লগেই আমার ব্লগিং শুরু এবং এই মুহূর্তে একমাত্র এখানেই আমি ব্লগিং করি। অন্যান্য ব্লগ মাঝে মাঝে ঢুঁ মেরে আসি। আমার যতটুকু অভিজ্ঞতা তাতে বলি অনেক দিক থেকে এই ব্লগ স্বাতন্ত্র্যের দাবী রাখে। মাত্র একবছর সময়ের মধ্যে এই ব্লগ একটা চমৎকার অবস্থান তৈরি করেছে বাংলা ব্লগ জগতে – এটা এই ব্লগের একজন ব্লগার হিসেবে আমাকে দারুণ সুখ দেয়।

ব্লগে আমরা নানা বিষয়ে আলোচনা করি, বিতর্ক করি, মাঝে মাঝে ঝগড়াঝাটিও। অনিবার্যভাবেই ব্লগকে কেন্দ্র করে ব্লগারদের মধ্যে একধরনের সম্পর্ক গড়ে উঠেছে। বলাই বাহুল্য সম্পর্কটা ‘ভার্চুয়াল’। আজকের যুগ তো ভার্চুয়াল সম্পর্কেরই – আমাদের বাস্তব সম্পর্কগুলোও আজ ফেইসবুকের কল্যাণে ‘ভার্চুয়াল’ হয়ে গেছে। কিন্তু আমি বলতে চাইছি যুগ বিরোধী, উল্টো কথা। ব্লগে আমাদের মধ্যকার ভার্চুয়াল সম্পর্কগুলোকে বাস্তবে নিয়ে আসা যায় কিনা সেটা নিয়ে।

আমার বিবেচনায় ব্লগ যদি ব্লগার এবং এর পাঠকদের মধ্যে একটা কমিউনিটি তৈরি করতে না পারে তবে সেটা আমাদেরই ব্যর্থতা। এতে কোন সন্দেহ নেই যে এটা প্রাথমিকভাবে হবে ব্লগকে কেন্দ্র করেই। কিন্তু আমরা যদি মাঝে মাঝেই একত্রে বসতে পারি, বলতে পারি কিছু কাজের আর কিছু অকাজের কথা, তাহলে আমার ধারনা এটা আমাদের মধ্যে একটা কমিউনিটি তৈরি করতে সাহায্য করবে।

আমার মনে হয় আমরা অনেক ব্লগার আছি যারা চাই পরষ্পরের সাথে ধারনার বিনিময় করতে, পরিচিত হতে। কিছুদিন আগে এই ব্লগের প্রথম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীতে অনেক ব্লগার গিয়েছিলেন। কিন্তু নানা আনুষ্ঠানিকতার ভীড়ে সেই অনুষ্ঠানটি ব্লগারদের মধ্যে পারষ্পরিক পরিচয় আর আলোচনার সুযোগ করে দিতে পারেনি। তাই আমার মনে হয় ব্লগ কর্তৃপক্ষের দিকে আর তাকিয়ে না থেকে আমরা নিজেরাই একটা দিন ঠিক করে বসতে পারি। এই ব্যাপারে আমার প্রস্তাব শেষে দেয়া হোল।

ওইদিন আমরা ব্লগ এবং ব্লগিং নিয়ে ধারনার বিনিময় করতে পারি। আমাদের এই ব্লগের সমস্যা খুঁজে বের করতে পারি, ব্লগের উন্নতির জন্য পরামর্শ ঠিক করতে পারি। সেগুলো আমরা ব্লগ কর্তৃপক্ষকে পৌঁছে দিতে পারি। আমার বিশ্বাস এই ব্লগের কর্তৃপক্ষ যথেষ্ট সংবেদনশীল; তাই তাঁরা আমাদের পরামর্শ গ্রহন করার সর্বাত্মক চেষ্টা করবেন। সাথে অন্য সব বিষয় নিয়ে কাজের আর অকাজের কথা তো হবেই। আসুন না সবাই, সব মতের, সব রাজনৈতিক দর্শনের, নতুন, পুরাতন সব ব্লগার একটু সময় করে। আমার বিশ্বাস সময়টা আমরা উপভোগ করবো। অন্তত ঢাকায় যেসব ব্লগাররা আছেন, তারা কোনভাবেই মিস করবেন না বলে দাবি করছি একভাবে।

স্বাধীনতা দিবস এ জাতির একত্রিত হওয়ার দিন। এদিন অনেকেই লালে-সবুজে মাখামাখি হয়ে পথে নামেন। ২৬শে মার্চ ছুটির দিনও। ২৬শে মার্চ আমরাও আড্ডার স্বাধীনতা উপভোগ করতে চাই। স্থান হিসেবে ছবির হাট প্রাঙ্গন বেছে নিয়েছি, তাহলে সহজেই জমায়েত হয়ে একে অন্যকে খুঁজে নিতে পারব। তারপর ভেতরে একত্রে জায়গা জুড়ে বসাও যাবে। আর আড্ডার ফাঁকে কিছু মুখরোচক খাবারের ব্যবস্থাও করে নেয়া যাবে।

আড্ডা হাইলাইটস
তারিখঃ ২৬ মার্চ
সময়ঃ বিকাল ৩:৩০ টা
স্থানঃ ছবির হাট প্রাঙ্গন

আমাদের আড্ডার স্থান, সময়, তারিখের ব্যাপারে কারো কোন পরামর্শ থাকলে জানাবেন – পরামর্শ অনুযায়ী এগুলো পাল্টাতে পারে। তবে দেখা গেল দিন-তারিখ-সময় ঠিক করতে করতেই আড্ডার সুযোগটা হাতছাড়া হয়ে গেল। সে কারণেই নির্দিষ্ট তারিখ প্রস্তাব করেছি পোস্টে।

আরেকটা কথা, যারা যারা এই আড্ডায় আসতে চান তারা যদি সেটা নিশ্চিত করেন তাহলে ভাল হয়। যারা ঢাকার বাইরের ব্লগারদেরকেও বলছি একটু কষ্ট করে আসুন। আর প্রবাসী ব্লগাররা …………..!