ক্যাটেগরিঃ আইন-শৃংখলা

 

সরকারী দল, বিরোধী দল একজন আর একজনকে দোষারোপ না করে, নিজেদের মধ্যে বিভেদ ভুলে এক হয়ে কাজ করেন। আমাদের দেশকে আর জঙ্গি হিসাবে অন্য দেশের কাছে তুলে ধরবেন না। দেশে আইএস আছে? নেই এবং কখনও ছিল না। এই একটি কথা যদি আপনারা তুলে ধরতে না পারেন তবে অস্ত্রব্যবসায়ী আমেরিকা, রাশিয়া বা আমাদের দাদাদের কাছ থেকে বাচঁতে পারবেন না। দেশের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্রের মুল হোতা এই সব দেশ বাংলাদেশকে জংগীদের অভয়ারন্য হিসেবে প্রমান করার জন্য তৎপর, তারা যদি কোনমতে একবার প্রমাণ করতে পারে তবে শত চেষ্টা করে ও এই দেশকে রক্ষা করা যাবে না। কি দিয়ে মোকাবেলা করবেন এই সব অস্ত্র ব্যবসায়ীদের।সময় হয়েছে জাতীয় ঐক্যের। দেশের ষোল – সতের কোটি মানুষ জঙ্গিবাদকে ঘৃণা করে, সবাইকে নিয়ে জঙ্গিবাদকে প্রতিহত করুন, হাতে হাত রেখে কাজ করেন, ষোল- সতের কোটি মানুষ এক হয়ে কাজ করলে গুটিকয়েকের  জন্য এদেশ জঙ্গী আস্তানা হতে পারে না।