ক্যাটেগরিঃ মানবাধিকার

সমাজ সেবার নামে একদুই জন এর জন্য রাস্তায় দাড়িয়ে চেঁচামেচি করে ঘন্টায় ঘন্টায় ছবি পোষ্ট করার সময় আমাদের আছে। কারো ক্ষুধা নিবারণের জন্য নয়, ফেসবুকে সেলফি পোষ্ট করার জন্য রাস্তার পাশে কাউকে ধরে মুখে ভাত দিয়ে দশ বিশটা সেলফি নেওয়ার সময় আমাদের আছে। আমরা সমাজকর্মী তবে সমাজের উন্নয়নের জন্য নয় ফেসবুকে ছবি পোষ্ট করার জন্য আমরা সমাজ কর্মী। ছেঁড়া কাপড়ে উম্মাদ মহিলার কথা আমরা ভাবি না, শরীরে অর্ধাংগ দেখা দিলে ও আমরা কেউ গিয়ে তার শরীর আবৃত করার জন্য নিজের শরীরের অতিরিক্ত কাপড় খুলে দিই না। নাসরিন, মঞ্জু, আলেয়া যারা প্রতিদিন গার্মেন্টস এ কাজ করার পর ও তিন মাস ধরে বেতন পাই না সেই দিকে আমরা তাকাই না। কেএফসি, এমএফসি তে প্রেমিকার জন্য হাজার টাকার পার্টি দিতে পারি, পঞ্চাশ বয়সী পঙ্গু লোকনাথ মেয়ের বিয়ের টাকা যোগাড় করার জন্য শহরের এক প্রান্ত থেকে আর এক প্রান্তে হেঁটে যায় আমরা পারি না তাদের জন্য কিছু করতে। শিশু অধিকার, শিশু শ্রম এই সব নিয়ে চিৎকার চেঁচামি করার সময় আমাদের আছে, রাস্তার পাশে দাড়িয়ে থাকা কিশোর যখন পলিথিনের ফুটোয় ফু দেয় তা দেখে ও দেখার সময় আমাদের নেই। পথ শিশুদের অধিকার নিয়ে মানববন্ধন করার  সময় আমাদের আছে, নিজ বাসায় নাবালক কাজের ছেলে/মেয়ে টার অধিকার নিয়ে কথা  বলার সময় আমাদের নাই। আমরা হলাম এই যুগের সমাজকর্মী(সেল্ফি কর্মী/ফেসবুক কর্মী)