ক্যাটেগরিঃ শিল্প-সংস্কৃতি

 

শনিবার, ১৪ এপ্রিল, বাংলা একাডেমির আধুনিক পঞ্জিকা অনুসারে আজ পহেলা বৈশাখ। ষড়ঋতুর পরিক্রমায় প্রকৃতির খেলায় নাগরদোলার ন্যায় বছর ঘুরে আবার এসেছে বাঙালির সর্বজনীন এই লোক উৎসব। রাজধানী-সহ সারা দেশের প্রতিটি বাঙালি বর্ষবরণে প্রথম দিনের নতুন সূর্যকে আহবান জানাবে সম্মিলিত কণ্ঠে গান গেয়ে।

রাজধানী ঢাকায় মঙ্গল শোভাযাত্রার মধ্য দিয়ে শুরু হবে পহেলা বৈশাখ উৎসব উদযাপন। আর তাই খুব ভোরে ভোরে ঘুম থেকে উঠে নতুন জামাকাপড় পড়ে শোভাযাত্রায় অংশ নেয় ধর্ম-বর্ণ নির্বিশেষে সব শ্রেণি-পেশার বাঙালি। সূর্যোদয়ের পর পর ছায়ানটের শিল্পীরা সম্মিলিত কণ্ঠে ‘এসো হে বৈশাখ, এসো এসো…। তাপস নিঃশ্বাস বায়ে, মুমূর্ষুরে দাও উড়ায়ে, বৎসরের আবর্জনা দূর হয়ে যাক যাক যাক, এসো এসো…’ গান গেয়ে নতুন বছরকে আহবান জানাবে।

নববর্ষকে কেন্দ্র করে যে কোনো অপ্রীতিকর ঘটনা এড়াতে রাজধানীতে নিরাপত্তা দিচ্ছে পুলিশ পুলিশ, র‌্যাব ও বিভিন্ন গোয়েন্দা সংস্থা সহ আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্যরা।

গতকাল উত্তরায় সরেজমিনে ঘুরে দেখলাম উত্তরার বিভিন্ন বিপণীবিতানগুলোতে চোখ ধাঁধানো আলোকসজ্জা করা হয়েছে। এছাড়াও রঙিন ফুল, বেলুন এবং পহেলা বৈশাখ লেখা বাংলা অক্ষর দিয়ে সাজানো হয়েছে বিভিন্ন ব্যবসা প্রতিষ্ঠান। মিষ্টির দোকানগুলোতে চলছে বাম্পার বেচা-কেনা। মাছ বাজারে ছিলো ইলিশের ছড়াছড়ি। ক্রেতার কমতি না থাকলেও এবারের ইলিশ আকারে কিছুটা ছোট এবং দামও তুলনামূলক হাতের নাগালে বলা চলে। এই যেমন মাঝারি আকারের ছয়টি ইলিশের দাম ১,৮০০ টাকা।

এদিকে পহেলা বৈশাখ উপলক্ষ্যে উত্তরা হাউজ বিল্ডিং সংলগ্ন পুলিশ বক্সের সামনে ডিএমপির ট্রাফিক উত্তর বিভাগ প্যান্ডেল সাজিয়ে আয়োজন করেছেন পান্তা-ইলিশের। উত্তরার গুণী ব্যক্তিবর্গ, সাংবাদিক ও বিশিষ্ট জনদের সেখানে আমন্ত্রণ জানানো হয়েছে। এছাড়া অন্য আয়োজনের মধ্যে দক্ষিণ খান চেয়ারম্যান বাড়ি এলাকায় ভিন্ন ভিন্ন তিনটি জায়গায় তিনদিন ব্যাপী তিনটি এবং উত্তরখান এলাকায় আটটি বৈশাখী মেলার আয়োজন করা হয়েছে।

নববর্ষের এই প্রভাতে প্রাণে জাগুক নব নব আশা, নববর্ষে সবাই নিও ব্লগ ডট বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমের ভালোবাসা।

১৪২৫ বঙ্গাব্দের পহেলা বৈশাখ উপলক্ষ্যে ব্লগ ডট বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম পরিবারকে জানাই অনেক অনেক শুভেচ্ছা। আর এই পরিবারের একজন নাগরিক সাংবাদিক হিসেবে এই পরিবারের পক্ষ থেকে ব্লগ ডট বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমের সকল নাগরিক সাংবাদিক এবং শুভানুধ্যায়ীদের জন্যও রইল বাংলা নববর্ষের শুভেচ্ছা সহ অভিনন্দন ও শুভকামনা।