ক্যাটেগরিঃ ব্লগালোচনা

দেখেশুনে মনে হচ্ছে বাংলাদেশে একদল নতুন মাতুব্বর পয়দা হইছে। এরা ব্লগের আইন কানুন বিষয়ে জ্ঞানগর্ভ বয়ান দিচ্ছে। মিটিং করছে – জ্ঞানী কথা বলছে। অনেকের আবার “টিম” বিষয়ক এলার্জি আছে দেখছি। উনি নিজে আবার বলছেন – আমরা সন্মিলিত ভাবে প্রতিরোধ করি। খাড়াইলটা কি? “টিম” করলে খারাপ আর “সন্মিলিত” প্রতিরোধ করলে ভাল। বিষয়টা বুঝতে পারলাম না।

সোজা কথা হলো – ব্লগের জন্যে কোন আইনের দরকার নাই। বিশেষ করে সরকারের পক্ষ থেকে তো নাই ই। প্রত্যেকটা ব্লগ তাদের নিজস্ব নীতিমালার ভিত্তিতে পরিচালিত হবে -স্বচ্ছতা এবং দায়িত্বশীলতার সাথে। একদল মানুষ যখন কোন বিশেষ এজেন্ডা নিয়ে কাজ করে – মিথ্যা আর প্রতারনার আশ্রয় নেয় – সেখানেই সমস্যা। শুরুর দিকে কয়েকটা ব্লগ নিজেদের প্রসারের জন্যে অসততার আশ্রয় নিয়ে এক দিকে ভালই করেছে – ফলে জন্ম নিয়েছে ডজনখানের চেয়ে বেশী ব্লগ। এখন ব্লগারদের সামনে রয়েছে নিজস্ব পছন্দ খুঁজে নেওয়ার সুযোগ

এখন ব্লগারা বেছে নিতে পারবে পছন্দের ব্লগ সাইট – তীব্র ধর্মবিদ্বেষী মুক্তমনা ব্লগে লিখবে নাকি রাজাকারতন্ত্ররে ধারক সোনাব্লগে লিখবে নাকি ক্রেডেনশিয়াল জমা দিয়ে সচলায়তনে লিখবে নাকি মুক্তকন্ঠে গালাগালির আনন্দ পেতে আমারব্লগে লিখবে নাকি নিজেই একটা ব্লগষ্পট খুলে লিখবে – এইটা ব্লগারের নিজের পছন্দের বিষয়। এই বিষয়ে সরকারকে দিয়ে আইন করিয়ে নিজেদের দায়িত্ব অন্যর উপর চাপানোর চেষ্টা না করে – নিজেরা দায়িত্বশীলতার সাথে নীতিমালা তৈরী করুন আর সততার সাথে তা অনুসরন করুন।

ব্লগের ব্যবস্থাপনার উচিত গুটিকয়েক যশলোভী ব্লগারের বুদ্ধিবিবেচনার উপর নির্ভর না করে মুক্তমনে ব্লগ পরিচালনা করুন। ব্লগারদের পোষালে লিখবে – না হলে চ্যানেল বদলাবে – এইটাই স্বাভাবিক।