ক্যাটেগরিঃ কৃষি

ফরিদপুরের নগরকান্দার পাট চাষীরা তাদের উৎপাদিত পাট নিয়ে পড়ছে মহা সংকটে। পানির অভাবে পাট পচাঁতে পারছেনা। ফলে পাট উৎপাদনে প্রচুর ঘাটতি হওয়ার আশঙ্কা দেখা দিয়েছে।

উপজেলা কৃষি অফিস সূত্রে জানা যায়, পাট উৎপাদনে খ্যাত উপজেলায় এ বছর সাড়ে নয় হাজার হেক্টর জমিতে পাটের চাষ হয়েছে। যার লক্ষ্য মাত্রা সাড়ে আট লক্ষ মন উৎপাদন আশা করা যাচ্ছে। পাটের বাম্পার ফলন হলেও পানির অভাবে সে আশা ভেস্তে যেতে বসেছে।

সরেজমিনে দেখা গেছে, পানির অভাবে অনেক চাষী পানির আশায় পাট না কেটে জমিতেই রেখে দিয়েছে, ফলে শুকিয়ে মরে যাচ্ছে। অনেকে পাট কেটে শুকনা জমিতে মজুদ করে রেখেছে, আবার অনেকে নছিমন, ভ্যান গাড়ীতে বহন করে ৪/৫ কিলোমিটার দূরে নদীর ঘোলা পানিতে নিয়ে পঁচাতে বাধ্য হচ্ছে। এতে এক দিকে উৎপাদন খরচ বেড়ে যাচ্ছে, অন্যদিকে সোনালী আঁশের মান নিম্নমানের হচ্ছে।

উপজেলা কৃষি অফিসার গোপাল কৃষ্ণ দাস জানান, আমরা পাট চাষীদের পাটের আঁশ ছোলার জন্য রিভোনার মেশিন ব্যবহারের জন্য পরামর্শ দিচ্ছি। ইতি মধ্যে চাষীদের মাঝে ৬৬ টি রিভোনার মেশিন বিনামূল্যে সরবরাহ করা হয়েছে।

মোঃ জিহাদ হোসাইন জাহিদ
০১৯২০-৩৫৩৪৫৪
০৪ আগষ্ট ২০১২